×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

৩০ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

আদিবাসী ঘরে প্রকল্প তৃণমূলের

মেহেদি হেদায়েতুল্লা
করণদিঘি ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৬:৫৯
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

পিকে-র দল সমীক্ষা করে গিয়েছে। এ বার আদিবাসী পাড়ায় জনসংযোগে নামলেন তৃণমূলের জনপ্রতিনিধিরা।

গত লোকসভা নির্বাচনে আদিবাসী ভোট কেন তৃণমূল থেকে সরে গেল, তা বুঝতে তৃণমূলের হয়ে ময়দানে নেমেছিল ভোট-কুশলী প্রশান্ত কিশোরের (পিকে) দল। গত সপ্তাহে উত্তর দিনাজপুরের করণদিঘির আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকাগুলিতে সমীক্ষা চালানোর পরে তারা স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠক করে। আদিবাসীদের সমস্যাগুলি নিয়ে আলোচনার জন্য তাদের পাড়ায় পাড়ায় জনসংযোগ করার পরামর্শও দিয়েছিল পিকে-র দল।

এ বার সেই নির্দেশ মতো আদিবাসী পাড়াগুলিতে জনসংযোগে নামলেন তৃণমূলের স্থানীয় জনপ্রিনিধিরা। শনিবার করণদিঘির পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি তৃণমূলের স্যামুয়েল মার্ডির নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল আদিবাসী এলাকায় গিয়ে সমস্যার কথা শুনলেন এবং তা লিপিবদ্ধ করে নিলেন, যাতে পরে বিষয় ধরে তা সমাধান করা যায়।

Advertisement

পরে স্যামুয়েল মার্ডি বলেন, ‘‘আদিবাসীদের জন্য রাজ্য সরকারের বেশ কয়েকটি প্রকল্প রয়েছে। সেই প্রকল্পগুলি এবং সরকারি পরিষেবাগুলি সাধারণ মানুষ কী ভাবে পাবে, তা নিয়েই তাদের সচেতন করেছি। আদিবাসীদের পড়ুয়াদের জন্য বিভিন্ন প্রকল্প রয়েছে। সেগুলি নিয়েও প্রচার করা হয়েছে।’’ এই কর্মসূচি ধারাবাহিক চলবে, এ কথা জানিয়ে স্যামুয়েল বলেন, ‘‘এলাকার বাসিন্দারা সমস্যার কথা জানান। সমস্যাগুলি নিয়ে প্রশাসনিকস্তরে আলোচনা করে সমাধান করতে উদ্যোগী হব।’’ দলীয় সূত্রের খবর, এই কর্মসূচি ধারাবাহিক ভাবে চলবে।

তৃণমূল সূত্রে খবর, লোকসভা ভোটে ভরাডুবির কারণ খুঁজতে এবং দলের হাল ফেরাতে পিকে-র দল এই এলাকায় সমীক্ষায় আসে। গত সপ্তাহে প্রতিনিধিদলটি আলতাপুর, রসাখোয়া-সহ বিভিন্ন আদিবাসী এলাকায় সমীক্ষা চালায়। তারা খোঁজ করে, স্থানীয় মানুষ কী কী সরকারি সুবিধা পাচ্ছেন, আদিবাসী গ্রামগুলিতে কী কী উন্নয়ন হয়েছে, পঞ্চায়েত সদস্য-সহ জনপ্রিনিধিরা এলাকার খোঁজখবর রাখছে কি না?

পরে ওই প্রতিনিধিদল করণদিঘি পঞ্চায়েত সমিতির ও বিভিন্ন গ্রাম পঞ্চায়েত প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করে। বৈঠকে পিকে-র দল পরামর্শ দেয়, যে সব এলাকায় আদিবাসীদের বাস, যে সব গ্রাম বা পাড়া আদিবাসী প্রধান, সর্বত্র জনসংযোগে নামা জরুরি নেতাদের। আদিবাসীদের ভাতা-সহ বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও করা জরুরি। এর পরেই তৎপর হন জনপ্রতিনিধিরা। দলীয় সূত্রের খবর, দলের আদিবাসী সেল এনআরসি এবং সিএএ-কে সামনে রেখে হারানো জমি পুনরুদ্ধারে নেমেছে।

Advertisement