Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Firhad Hakim & Paresh Paul: ৭৪ বছরের পরেশ পাল খুন করাতে পারেন না! সিবিআই তলব নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ ফিরহাদের

ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসে বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকারের খুনের ঘটনায় তৃণমূল বিধায়ক পরেশ পালকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে সিবিআই।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৬ মে ২০২২ ২০:১৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকার খুনের ঘটনায় বেলেঘাটার তৃণমূল বিধায়ক পরেশ পালকে সিবিআইয়ের তলবে ক্ষুব্ধ কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকার খুনের ঘটনায় বেলেঘাটার তৃণমূল বিধায়ক পরেশ পালকে সিবিআইয়ের তলবে ক্ষুব্ধ কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম।
ফাইল চিত্র।

Popup Close

৭৪ বছরের প্রবীণ তৃণমূল বিধায়ক পরেশ পাল কোনও খুনের ঘটনায় যুক্ত থাকতে পারেন না। এমনটাই বললেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। সোমবার ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় তৃণমূল বিধায়ক পরেশ পালকে তলব করল সিবিআই। বুধবার তাঁকে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার দফতরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সিবিআইয়ের তরফে জানা গিয়েছে, কাঁকুড়গাছিতে বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকার খুনের ঘটনায় বেলেঘাটার বিধায়ককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়েছে। সিবিআইয়ের এমন তলব নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী।

ফিরহাদ বলেন, ‘‘কেউ ভাবতে পারবে না যে, ৭৪ বছর বয়সের পরেশ পাল খুন করিয়েছেন। ৭৪ বছর বয়স তাঁর। আমরা ছোটবেলা থেকে পরেশদাকে দেখে এসেছি। এটা কি ইয়ার্কি মারা হচ্ছে! অমিত শাহ যা বলবেন, তা-ই করতে হবে? এত প্রবীণ একজন নেতা! আমরা সবাই শ্রদ্ধা করি তাঁকে। বয়স্ক মানুষকে নিয়ে এমন কাজ ইয়ার্কি ছাড়া কিছু নয়।’’ তাঁর আরও সংযোজন, ‘‘আদালতের অজুহাত দিয়ে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার চেষ্টা হচ্ছে।’’

Advertisement

রাজ্যের একাধিক ঘটনায় সিবিআই তদন্ত কেন তাঁদের অপছন্দ, তা-ও খোলসা করে দিয়েছেন পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘‘মাননীয় আদালত রায় দিয়েছেন সত্য যাতে উদ্ঘাটিত হয়। আদালতের কাছে আমাদের বিরোধীরা আবেদন করেছিলেন, এই পুলিশ দিয়ে হবে না। সিবিআই তদন্ত চাই। আর আমরা সিবিআই তদন্ত নিয়ে আপত্তি করি এই কারণে যে, এখনও দেশের সেরা পুলিশ অফিসাররা আছেন সিবিআইতেই। তাঁদের উপর এই সমস্ত ছোট ছোট কাজের ভার না দিয়ে দেশের বড় বড় কাজের তাঁদের দায়িত্ব দেওয়া উচিত। সেই সিবিআইয়ের মতো সংস্থাকে রাজনৈতিক অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে কেন্দ্রীয় সরকার।’’

প্রসঙ্গত, গত বছর ২ মে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হয়। তাতে তৃতীয় বার ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তন হয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের। ওই দিন রাতেই কাঁকুড়গাছির বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকারকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ ওঠে বেলেঘাটা বিধানসভা এলাকার তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে। অভিজিতের মৃত্যু-সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে তাদের কর্মীদের উপর আক্রমণের ঘটনায় সিবিআই তদন্তের দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় বিজেপি। বিধানসভা ভোটের পর রাজ্যে হিংসার ঘটনায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেয় কলকাতা হাই কোর্ট। সেই মতো অভিজিতের খুনের তদন্ত শুরু করে সিবিআই। এর আগে ওই ঘটনায় বেশ কয়েক জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তারা। ঘটনাস্থলও পর্যবেক্ষণ করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। এ বার ওই ঘটনায় পরেশকে তলব করল সিবিআই। তবে সোমবার পরেশের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। ফলে সিবিআই তলব করলেও তিনি যাবেন কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement