Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

চুপিসারে বাড়িতে, জানেই না প্রশাসন

প্রত্যক্ষদর্শী ওই বাসিন্দারা জানান, শুধু বৃহস্পতিবার রাত নয়, প্রায়ই মুরারইয়ে ছোট গাড়ি, ট্রাকে করে পরিযায়ী শ্রমিকরা বাড়ি ফিরছেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা
মুরারই ০৯ মে ২০২০ ০৬:৩৯
রাতের অন্ধকারে বাড়ি ফেরা। মুরারইয়ে। নিজস্ব চিত্র

রাতের অন্ধকারে বাড়ি ফেরা। মুরারইয়ে। নিজস্ব চিত্র

রাতের আঁধারে চুপিসারে ছোট গাড়ি ও ট্রাকে চেপে বাড়ি ফিরছেন পরিযায়ী শ্রমিকেরা। হচ্ছে না স্বাস্থ্য পরীক্ষা। এতে সংক্রমণের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে মুরারইয়ে। এলাকাবাসীর একাংশ জানাচ্ছেন, বৃহস্পতিবার রাত ১২টার সময় মুরারইয়ে একটি ট্রাক থেকে কিছু পরিযায়ী শ্রমিককে নামতে দেখা গিয়েছে। প্রশাসন এমন খবর জানা নেই বলে দাবি করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ওই বাসিন্দারা জানান, শুধু বৃহস্পতিবার রাত নয়, প্রায়ই মুরারইয়ে ছোট গাড়ি, ট্রাকে করে পরিযায়ী শ্রমিকরা বাড়ি ফিরছেন। এঁদের অনেকে মুর্শিদাবাদ ও বর্ধমানের ইটভাটায় কাজ করেন বলে জানা যাচ্ছে। তাঁদের মুরারইয়ের ভাদীশ্বর, নতুনবাজার, কালীতলার সামনে রাস্তার ধারে নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে। পরে শ্রমিকরা পায়ে হেঁটে বাড়ি ফিরছেন। স্বাস্থ্য পরীক্ষা না করে বাড়ি আসার পরের দিন থেকেই তাঁদের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরতে দেখা যাচ্ছে। এতেই করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

মুরারইয়ের বাসিন্দা আশরাফ আলি বলেন, ‘‘পরিযায়ী শ্রমিকেরা বাড়ি আসতেই পারেন। কিন্তু, তাঁরা কোন জেলা থেকে আসছেন, অরেঞ্জ না রেড জোন সেই বিষয়ে কোনও তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না।’’ এই তথ্য প্রশাসনের কাছেও নেই বলে অনেকের দাবি। শ্রমিকরা স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে নিভৃতবাসে থাকলে তাঁরাও সুস্থ থাকবেন। এলাকার মানুষজনও আতঙ্কিত হবেন না। প্রশাসনের কাছে এলাকাবাসীর অনেকের আবেদন, এই বিষয়ে আরও সতর্ক হওয়ার প্রয়োজন। বিডিও (মুরারই ১) নিশীথভাস্কর পাল বলেন, ‘‘আমাদের এই বিষয়ে কিছু জানা ছিল না। তবে বিভিন্ন গ্রামে আশাকর্মী ও সিভিক ভলান্টিয়ার রয়েছেন। তাঁরা এলাকার পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্য সংগ্রহ করে আমাদের জানাচ্ছেন। তবে এই রকম ঘটনা ঘটলে পুলিশ, প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠক করে এলাকায় নজরদারি চালানো হবে।’’

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement