Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

কুপন না পেয়ে বিডিও অফিসে ক্ষোভ শ্রমিকদের

নিজস্ব সংবাদদাতা 
পাইকর ১০ জুলাই ২০২০ ০১:১৮
প্রতিবাদ: মুরারই ২ ব্লক অফিসে শ্রমিকেরা। নিজস্ব চিত্র

প্রতিবাদ: মুরারই ২ ব্লক অফিসে শ্রমিকেরা। নিজস্ব চিত্র

যাঁদের রেশন কার্ড নেই তাঁদের কুপন পাওয়ার কথা হলেও অনেকেই পাননি। আবার কার্ড থাকলেও অনেকে পেয়েছেন কুপন। এমন অভিযোগেই মুরারই ২ ব্লক অফিসে বিক্ষোভ দেখালেন পরিযায়ী শ্রমিকেরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জাজিগ্রামের পরিযায়ী শ্রমিকরা বিডিওর কাছে লিখিত অভিযোগও করেন। পঞ্চায়েত সদস্যরা স্বজনপোষণ করে কুপন বিলি করেছেন বলে দাবি ওই শ্রমিকদের। মুরারই ২ বিডিও অমিতাভ বিশ্বাস বলেন, ‘‘শ্রমিকদের বলা হয়েছে যে সমস্ত ব্যক্তিরা কার্ড থাকা সত্ত্বেও কুপন পেয়েছেন তাঁদের নামের তালিকা দেওয়ার জন্য। তাছাড়া খাদ্য দফতরের আধিকারিককে বিষয়টি দেখার জন্য বলা হয়েছে।’’

বিক্ষোভকারীদের দাবি, জাজিগ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান ও সদস্যরা নিজেদের কাছের মানুষজনকে কুপন দিয়েছেন। অথচ যে সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকের রেশন কার্ড নেই তাঁদের কুপন দেওয়া হয়নি। তাঁরা দাবি জানান, অবিলম্বে সকল পরিযায়ী শ্রমিককে রেশনের কুপন দিতে হবে। যতদিন না সমস্যার সমাধান হবে ততদিন কুপন দিয়ে গ্রামের ডিলারদের রেশন বন্টন করতে দেওয়া হবে না। পরিযায়ী শ্রমিক বিধান মণ্ডল বলেন, ‘‘আমার রেশন কার্ড নেই। আমি রেশনের সামগ্রী পাইনি। অথচ পঞ্চায়েত সদস্যদের বাড়িতে যারা কাজ করে তারা রেশনের কুপন পেয়েছে। প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করব আমাদের রেশনের কুপন দেওয়া হোক।’’

Advertisement

জাজিগ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান রহিম মোল্লা বলেন, ‘‘বিডিও আমাদের প্রত্যেক পঞ্চায়েত সদস্যকে কুড়িটি করে কুপন দিয়েছেন। পঞ্চায়েতের অধীনে ১৮ সংসদ ও ২২টি বুথ বুথ রয়েছে। সরকারি অনুদানের জন্য পরিযায়ী শ্রমিকদের আবেদন করতে বলা হয়েছিল। দু-একজন কার্ড থাকা সত্ত্বেও কুপন নিয়েছেন। আমাদের পক্ষে জানা সম্ভব নয় কার রেশন কার্ড আছে আর কার নেই। পরে আরও সতর্ক হয়ে কুপন বিলি করা হবে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement