Advertisement
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
West bengal Assembly

সাবিত্রীর মন্তব্যের প্রতিবাদে মুলতুবি প্রস্তাব খারিজ, বিধানসভায় হট্টগোল, বিজেপির ওয়াকআউট

তৃণমূল বিধায়ক সাবিত্রী মিত্রের মন্তব্যের প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিধানসভায় মুলতুবি প্রস্তাব আনে বিজেপি পরিষদীয় দল। সেই প্রস্তাব খারিজ করেছেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিধানসভা থেকে ওয়াকআউট বিজেপি বিধায়কদের। চলছে বিক্ষোভ প্রদর্শন।

বিধানসভা থেকে ওয়াকআউট বিজেপি বিধায়কদের। চলছে বিক্ষোভ প্রদর্শন। ছবি পিটিআই।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৯ নভেম্বর ২০২২ ১২:২৭
Share: Save:

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে নিয়ে তৃণমূল বিধায়ক সাবিত্রী মিত্রের ‘বিতর্কিত’ মন্তব্যের প্রতিবাদে রাজ্য বিধানসভায় আনা বিজেপির মুলতুবি প্রস্তাব খারিজ করে দিলেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার বিধানসভার অধিবেশনে এ নিয়ে মুলতুবি প্রস্তাব এনেছিল বিজেপির পরিষদীয় দল।

Advertisement

মুলতুবি প্রস্তাব খারিজ হতেই বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিজেপি বিধায়করা। বিজেপির আনা এই মুলতুবি প্রস্তাব ‘রাজ্যের বিষয় নয়’ বলে খারিজ করেন স্পিকার। “দেশের প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অপমান কী ভাবে রাজ্যের বিষয় নয়?’’ পাল্টা প্রশ্ন করেন বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল।

এর পরই তৃণমূল ও বিজেপি বিধায়কদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। শশী পাঁজা, বীরবাহা হাঁসদা, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যদের সঙ্গে বিতণ্ডা বাধে বিজেপি বিধায়কদের। স্পিকার জানান যে, এটা বিধানসভার বিষয় নয়। যাঁকে ঘিরে বিতর্ক, মালদার মানিকচকের সেই তৃণমূল বিধায়ক সাবিত্রী বলেন, ‘‘ভারতের সংস্কৃতিকে মাথায় রেখে বলেছি। বিরোধী দলনেতা আমাকে ভুল উদ্ধৃত করে টুইট করেছেন।আমি বলিনি স্বাধীনতা আন্দোলনে গুজরাতিদের ভুমিকা ছিল না। প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এটা সম্পর্কে জানেন না।’’

Advertisement

প্রতিবাদে স্লোগান তুলে বিক্ষোভ বিজেপি বিধায়কদের। পরে বিধানসভার অধিবেশন থেকে ওয়াকআউট করেন বিজেপি বিধায়করা। সাবিত্রীকে সাসপেন্ডের দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

প্রসঙ্গত, রবিবার মালদার রতুয়ায় এক দলীয় সভায় সাবিত্রীকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘‘মমতাকে শূর্পণখা বললে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দুর্যোধন-দুঃশাসন বলব।’’ পাশাপাশি দেশের স্বাধীনতার জন্য গুজরাতের কোনও অবদান নেই বলে দাবি করেছেন সাবিত্রী। এই মন্তব্যের নিন্দায় সরব হয়েছে বিজেপি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.