Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

৩০ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

কোভিড হয়েছিল উইলিয়ামেরও

শ্রাবণী বসু
লন্ডন ০৩ নভেম্বর ২০২০ ০৩:৪১
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

এপ্রিলেই করোনা-সংক্রমিত হয়েছিলেন ব্রিটেনের রাজকুমার উইলিয়াম। কিন্তু সম্পূর্ণটা আড়ালে রেখে দেওয়া হয়েছিল রাজপরিবারের পক্ষ থেকে। সম্প্রতি একটি রিপোর্টে এমনটাই দাবি করেছে একটি ব্রিটিশ দৈনিক। প্রাসাদের বক্তব্য, যাতে আতঙ্ক না-ছড়ায়, তাই প্রকাশ্যে আনা হয়নি বিষয়টি। মার্চ মাসে করোনা-আক্রান্ত হন উইলিয়ামের বাবা যুবরাজ চার্লস। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের পরে সিংহাসনের প্রথম দাবিদার তিনিই। সন্দেহ করা হচ্ছে, ওর পরপরই সংক্রমিত হয়েছিলেন উইলিয়াম। এই সময়ে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন-সহ দেশের একাধিক রাজনীতিবিদ করোনায় কাবু হন। মন্ত্রিসভার অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। সে সব প্রকাশ্যে এলেও প্রাসাদের বড় রাজকুমারের অসুস্থতার খবর গোপন থেকে যায়। উইলিয়ামের প্রাসাদ, কেনসিংটন প্যালেসের পক্ষ থেকে সরাসরি এর কোনও জবাব দেওয়া হয়নি। কিন্তু ব্রিটিশ দৈনিকটি তাদের রিপোর্টে লিখেছে, রাজকুমার উইলিয়াম তাঁর কোভিড-পজ়িটিভ রিপোর্টটি কাউকে জানাননি। কারণ, তাঁর কথায়, ‘‘আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় রয়েছে। কাউকে চিন্তায় ফেলতে চাইনি।’’

কেনসিংটন প্রাসাদের ডাক্তারেরাই চিকিৎসা করেন উইলিয়ামের। সমস্ত সরকারি নির্দেশিকা মেনে চলেছিলেন রাজকুমার। নরফকের পারিবারিক বাসভবনে আইসোলেশনে থাকেন। টেলিফোন আর ভিডিয়ো কলে যোগাযোগ রাখতেন বহির্বিশ্বের সঙ্গে। ব্রিটিশ দৈনিকটির রিপোর্টে বলা হয়েছে, যুবরাজ চার্লস যেহেতু সিংহাসনের সরাসরি দাবিদার, তাই তাঁর সংক্রমিত হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আনতে বাধ্য ছিল প্রাসাদ। কিন্তু উইলিয়ামের ক্ষেত্রে বিষয়টি তা-নয়। দেশের প্রধানমন্ত্রী তখন আক্রান্ত। রীতিমতো বাড়াবাড়িও হয়েছিল তাঁর। আইসিইউয়ে থাকতে হয়েছিল বরিসকে। তাই এই অবস্থায় দেশবাসীর দুশ্চিন্তা বাড়াতে চাননি উইলিয়াম।

আগামী বৃহস্পতিবার থেকে চার সপ্তাহের জন্য দেশজুড়ে দ্বিতীয় পর্যায়ে লকডাউন জারি হতে চলেছে ব্রিটেনে। রবিবার এক দিনে ২৩,২৫৪ জন আক্রান্ত। মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ১০ লক্ষ ৩৪ হাজার ছাড়াল। গোটা বিশ্বে এখন সংক্রমিতের সংখ্যা ৪ কোটি ৭০ লক্ষ ছুঁইছুঁই। মৃত্যু ১২ লক্ষ ছাড়িয়েছে। শীর্ষ স্থানে থাকা আমেরিকায় সংক্রমিতের সংখ্যা ১ কোটি ছুঁতে চলল। ৯৪ লক্ষ ৭৫ হাজার ছাড়িয়েছে। গত কয়েক দিনে ৯০ হাজার ছাড়িয়ে সংক্রমণ ঘটেছে। মৃত্যু হয়েছে ২ লক্ষ ৩৬ হাজারের বেশি। ব্রিটেনের পাশাপাশি ইউরোপে ফ্রান্স ও স্পেনেও সংক্রমণ বেড়েছে।

Advertisement

যথাক্রমে, ১৪ লক্ষ ও ১২ লক্ষ সংক্রমিত। এরই মধ্যে ফের কোয়রান্টিনে গিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)-র প্রধান টেড্রস অ্যাডানম গেব্রিয়েসাস। এক কোভিড-আক্রান্তের সংস্পর্শে আসায় স্বেচ্ছা-নিভৃতবাসে গিয়েছেন তিনি। টুইট করে জানিয়েছেন, ‘‘আমি ভাল আছি। কোনও উপসর্গ নেই। কিন্তু হু-র প্রোটোকল মেনে আগামী কিছু দিন কোয়রান্টিনে থাকব।’’

আরও পড়ুন

Advertisement