Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

নতুন প্রজাতির বিরুদ্ধে ক্ষমতা হ্রাস, দক্ষিণ আফ্রিকায় আপাতত স্থগিত অক্সফোর্ডের টিকা

দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনার নতুন স্ট্রেন বা প্রজাতি (বি.১.৩৫১)-র সন্ধান পাওয়ার পর তাতে কোভিড টিকা কতটা কার্যকরী, সে নিয়ে সম্প্রতি একটি সমীক্ষা কর

সংবাদ সংস্থা
কেপ টাউন ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৪:০০


ছবি: সংগৃহীত।

দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনার নতুন প্রজাতির আক্রমণের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলতে ততটা সক্ষম নয় অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা। সাম্প্রতিক সমীক্ষায় এমন প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে বলে দাবি করে সাময়িক ভাবে ওই টিকাকরণ স্থগিত রাখল সে দেশের সরকার। রবিবার এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন সে দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের শীর্ষকর্তারা।

রবিবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জিওয়েলি এমখিজে জানিয়েছেন, অক্সফোর্ডের টিকা ‘কোভিশিল্ড’ দেওয়া আপাতত স্থগিত করলেও কী ভাবে তার ক্ষমতা বাড়ানো যায়, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই গবেষকদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে সরকার। পাশাপাশি, ফাইজার-বায়োএনটেক এবং জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা দেওয়া বন্ধ হবে না বলেও জানিয়েছেন তিনি।

দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনার নতুন স্ট্রেন বা প্রজাতি (বি.১.৩৫১)-র সন্ধান পাওয়ার পর তাতে কোভিড টিকা কতটা কার্যকরী, সে নিয়ে সম্প্রতি একটি সমীক্ষা করা হয়েছিল। গড়ে ৩১ বছর বয়সি প্রায় ২ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের উপর এই টিকা প্রয়োগ করা হয়। ওই সমীক্ষা রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, আগের তুলনায় অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার কার্যক্ষমতা ‘তুলনামূলক ভাবে হ্রাস’ পেয়েছে। যদিও প্রবল ভাবে কোভিডে আক্রান্ত বা চিকি়ৎসাধীন অথবা মৃতদের উপর এই টিকার প্রয়োগের রিপোর্ট এতে শামিল করা হয়নি। দক্ষিণ আফ্রিকার উইটওয়াটারস্ট্রান্ড বিশ্ববিদ্যালয়, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়-সহ একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের কাছে এই রিপোর্ট পর্যালোচনার জন্য পাঠানো হয়েছে। খুব শীঘ্রই এই রিপোর্ট জনসমক্ষে আনা হবে বলে জানিয়েছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়। টিকার কর্মক্ষমতা হ্রাস পাওয়া নিয়ে ইতিমধ্যেই দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সঙ্গে পর্যালোচনা শুরু করেছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা। ওই সংস্থার মুখপাত্র একটি বিবৃতিতে লিখেছেন, ‘নতুন প্রজাতির বিরুদ্ধে টিকার কার্যক্ষমতা মূল্যায়নের পর কী ভাবে তা সাফল্যের সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকার মানুষের কাজে আনা যায়, তা নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সঙ্গে কাজ করা শুরু হয়েছে’। এ নিয়ে অক্সফোর্ডের সঙ্গেও মিলিত ভাবে উদ্যোগী হয়েছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা। সংস্থার দাবি, ‘‘নতুন প্রজাতির বিরুদ্ধে কার্যকরী টিকা আগামী বসন্তেই সরবরাহ করা যাবে।’’ এ নিয়ে নড়েচড়ে বসেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থ(হু)-ও। কোভিড মোকাবিলায় তৈরি সংস্থার একটি টেকনিক্যাল টিমের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্যানেল সোমবার এ নিয়ে আলোচনায় বসবে।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement