Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২
California

পিছনে হাত বেঁধে তোলা হচ্ছে ট্রাকে, ক্যালিফোর্নিয়ায় নিহত চার ভারতীয় বংশোদ্ভূত অপহরণের ভিডিয়ো প্রকাশ্যে

ক্যালিফোর্নিয়ার মার্স কাউন্টির বাসিন্দা ৩৬ বছর বয়সি আমনদীপ ট্রাকের ব্যবসা শুরু করেছিলেন। তাঁর সংস্থার কারখানা থেকেই তাঁর স্ত্রী জসলিন, আত্মীয় আমনদীপ এবং শিশুকন্যাকে অপহরণ করা হয়।

ক্যালি‌ফোর্নিয়ার অপহৃত ভারতীয় বংশোদ্ভূত পরিবার।

ক্যালি‌ফোর্নিয়ার অপহৃত ভারতীয় বংশোদ্ভূত পরিবার। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
ক্যালিফোর্নিয়া শেষ আপডেট: ০৬ অক্টোবর ২০২২ ১৫:০৮
Share: Save:

আশঙ্কাকে সত্যি করে উদ্ধার হয়েছে ক্যালিফোর্নিয়ায় অপহৃত আট মাসের শিশু-সহ ৪ ভারতীয় বংশোদ্ভূতের দেহ। বুধবার একটি বাগান থেকে তাঁদের দেহ উদ্ধার করা হয়। এ বার তাঁদের অপহরণ করার মুহূর্তের একটি ভিডিয়ো প্রকাশ্যে এল। যদিও আনন্দবাজার অনলাইন এই ভিডিয়োর সত্যতা যাচাই করেনি।

Advertisement

ক্যালিফোর্নিয়ার মার্স কাউন্টির বাসিন্দা ৩৬ বছর বয়সি আমনদীপ সম্প্রতি ট্রাকের ব্যবসা শুরু করেছিলেন। আমনদীপের নতুন সংস্থার কারখানা থেকেই তাঁর ২৭ বছর বয়সি স্ত্রী জসলিন কউর, ৩৯ বছর বয়সি আত্মীয় আমনদীপ সিংহ এবং আট মাসের শিশুকন্যাকে অপহরণ করা হয়। সিসিটিভি ফুটেজে তাঁদের অপহরণ করার গোটা দৃশ্যটি ধরা পড়েছে। ভিডিয়োটিতে দেখা যাচ্ছে, জনৈক ব্যক্তি সংস্থার কারখানায় এসে বোঝার চেষ্টা করছেন, তিনি সঠিক জায়গায় এসেছেন কি না। তার কিছু পরেই অপহৃত ব্যক্তিদের মধ্যে এক জনের সঙ্গে তাঁকে কথা বলতে দেখা যাচ্ছে। আরও কিছু সময় গেলে অপহরণ করা ব্যক্তিদের পিছনে হাত মোড়া অবস্থায় দেখা যায়। সেই অবস্থাতেই তাঁদের আমনদীপের মাল বহনকারী গাড়ির পিছন দিকে তোলা হয়।

ভিডিয়োটিতে মাঝের কিছু সময় অস্পষ্টতা দেখা যায়। কিছু পরে দেখা যায় সন্দেহভাজন ব্যক্তি ফের কারখানায় এসে যশদীপকে নিয়ে যাচ্ছেন। যশদীপের কোলে ছিল আট মাসের শিশুকন্যাটি। একই ভাবে তাঁদেরও আমনদীপের গাড়িতে তোলার পর গাড়িটি ছেড়ে দেয়। সন্দেহভাজন ব্যক্তিটিকেও এর পর আর দেখা যায়নি।

গোটা ঘটনায় রীতিমতো আতঙ্কে ক্যালিফোর্নিয়ায় বাস করা প্রবাসী ভারতীয় পরিবারগুলি। খুন হওয়া পরিবারের অন্য আত্মীয়রা এই ঘটনার পর উপযুক্ত নিরাপত্তা দাবি করেছেন। তাঁদের এক জনের কাতর আর্জি, “দয়া করে আমাদের বাঁচতে সাহায্য করুন, আমাদের পরিবারের বাকি সদস্যরা যাতে নিরাপদে থাকতে পারেন, তা একটু নিশ্চিত করুন।”

Advertisement

তবে কী কারণে এই অপহরণ এবং খুন, তা এখনও স্পষ্ট নয়। মার্স কাউন্টির শেরিফ এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, প্রাথমিক ভাবে এটিকে ডাকাতির ঘটনা বলে মনে করা হলেও, অপহৃতদের কোনও কিছুই খোয়া যায়নি বলে দাবি করেছে তাঁদের পরিবার। এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৪৮ বছরের ম্যানুয়েল সালগাডোকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.