Advertisement
২৭ জানুয়ারি ২০২৩
taliban

Afghanistan-Taliban Crisis: শরণার্থীদের জন্য সীমান্ত খুলুন, আফগানিস্তানের প্রতিবেশীদের কাছে আবেদন রাষ্ট্রপুঞ্জের

রাষ্ট্রপুঞ্জের সাম্প্রতিক রিপোর্ট বলছে, যুদ্ধ পরিস্থিতির কারণে আফগানিস্তানে খাদ্যসঙ্কট শুরু হয়েছে। আগামী কয়েক সপ্তাহে তা বাড়তে পারে।

আফগান সীমান্তে পাহারা উজবেক সেনার।

আফগান সীমান্তে পাহারা উজবেক সেনার। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া।

সংবাদ সংস্থা
নিউ ইয়র্ক শেষ আপডেট: ২০ অগস্ট ২০২১ ১৭:৫৭
Share: Save:

শরণার্থীদের জন্য সীমান্ত খোলা রাখতে আফগানিস্তানের প্রতিবেশী দেশগুলির কাছে আবেদন জানাল রাষ্ট্রপুঞ্জ। মানবতার স্বার্থে আফগান শরণার্থীদের আশ্রয় দেওয়ার জন্য পাকিস্তান, চিন, উজবেকিস্তান, ইরান, কাজাখস্তান, তুর্কমেনিস্তান সরকারকে বার্তা দিয়েছেন রাষ্ট্রপুঞ্জের শরণার্থী বিষয়ক কমিশনের হাই কমিশনার শাবিয়া মান্টো

মাস তিনেক আগে আফগানিস্তান থেকে আমেরিকার সেনা প্রত্যাহার শুরুর পরে তালিবানের পাশাপাশি ‘সক্রিয়’ হয়েছিল প্রতিবেশী দেশগুলিও। গৃহযুদ্ধের জেরে গৃহহীন হয়ে পড়া আফগান নাগরিকদের আটকাতে পাকিস্তান, উজবেকিস্তান, তুর্কমেনিস্তানের মতো দেশগুলি সীমান্তে নতুন করে বেড়া দেওয়া, চেকপোস্ট বসানোর কাজও শুরু করে। এই পরিস্থিতিতে আশ্রয়হীন আফগানদের জন্য সীমান্ত খুলে দিতে এবং খাদ্য ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে গত সপ্তাহে রাষ্ট্রপুঞ্জের খাদ্য ও কৃষি সংগঠন প্রতিবেশীদের অনুরোধ জানিয়েছিল।

রাষ্ট্রপুঞ্জের সাম্প্রতিক রিপোর্ট বলছে, যুদ্ধ পরিস্থিতির কারণে ইতিমধ্যেই আফগানিস্তানে খাদ্যসঙ্কট শুরু হয়েছে। আগামী কয়েক সপ্তাহে তা আরও বাড়ার আশঙ্কা। এই পরিস্থিতিতে মহিলা ও শিশুদের নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে রিপোর্টে। তবে আমেরিকার নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনী ১৪ অগস্ট থেকে প্রায় ৯,০০০ মানুষকে উদ্ধার করেছে। শাবিয়া ন্যাটোর এই ভূমিকার প্রশংসা করেছেন। কিন্তু সেই সঙ্গেই ঘরছাড়া আফগানদের আশ্রয় এবং খাদ্যের ব্যবস্থা করার দিকে নজর দেওয়ার কথাও বলেন তিনি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.