নিজেদের ডিজিটাল ঘড়ির সম্ভারে নতুন ‘মুখ’ যোগ করতে চলেছে স্যামসাং। বাজারে আসতে চলেছে গ্যালাক্সি ওয়াচ অ্যাকটিভ, গ্যালাক্সি ফিট, গ্যালাক্সি ফিট ই নামে স্যামসাংয়ের তিনটি নতুন ঘড়ি। সংস্থার দাবি, ফিটনেস ও হেলথ্‌ ট্র্যাকার যুক্ত এই আধুনিক ঘড়ি হবে সংস্থার এ যাবত্ ডিজিটাল ঘড়িগুলোর মধ্যে সবচেয়ে সস্তা। বলে রাখা ভাল, এই হেলথ ও ফিটনেস ট্র্যাকার দিয়ে আপনার স্বাস্থ্য সম্পর্কে প্রচুর তথ্য পাওয়া যাবে। অর্থাৎ সারা দিনে কত পা হাঁটলেন, কত ক্যালোরি কমলো, কত ক্যালোরির খাবার খেলেন, আপনার হার্টরেট ইত্যাদির দিকে নজর রাখবে ট্র্যাকারই।

স্যামসাংয়ের প্রতিটি ঘড়িই মসৃণ ডিজাইন ও জল প্রতিরোধক প্রযুক্তিতে তৈরি। সংস্থার দাবি, ট্র্যাকারগুলি প্রায় নব্বইটির উপর ক্রিয়াকলাপ ট্র্যাক করতে পারবে। যার মধ্যে হাঁটা, জিম করা থেকে শুরু করে বিভিন্ন খেলাধুলো, সবই রয়েছে। জল নিরোধক হওয়ায় এই ঘড়ি পড়ে সাঁতার কাটাও সম্ভব।

গ্যালাক্সি ওয়াচ অ্যাকটিভ ও গ্যালাক্সি ফিট ব্যান্ডের দাম ধার্য করা হয়েছে যথাক্রমে ১৯,৯৯০ টাকা ও ৯,৯৯০ টাকা। ফিট ই-এর দাম পড়বে ২৫৯০ টাকা। গ্যালাক্সি ওয়াচ অ্যাকটিভ পাওয়া যাবে অ্যামাজন ও স্যামসাংয়ের অনলাইন ও অফলাইন স্টোরে। গ্যালাক্সি ফিট ও গ্যালাক্সি ফিট ই পাওয়া যাবে ফ্লিপকার্ট, মিন্ত্রা ও স্যামসাংয়ের অনলাইন ও অফলাইন স্টোরে। ‘গ্যালাক্সি ফিট ই’র বিক্রির জন্য অগ্রিম বুকিং শুরু হবে ১ জুলাই থেকে, পাওয়া যাবে ১৯ জুলাই অবধি। ফ্লিপকার্টে এই ঘড়ি পাওয়া যাবে ৫ জুলাই থেকে।

আরও পড়ুন: ভারতে এল স্যামসাং-এর গ্যালাক্সি ট্যাব এস৫ই, গ্যালাক্সি ট্যাব এ১০.১

গ্যালাক্সি অ্যাকটিভের মূল ফিচারগুলি হল-

  • এটি টাইজেন অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত। অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস- দু’টি অপারেটিং সিস্টেমেই কাজ করবে।
  • ঘুম, ব্যায়াম, ট্র্যাক করার সঙ্গে সঙ্গে এটি আপনার স্ট্রেস লেভেলও ট্র্যাক করবে। এটি ‘কাম’ নামক একটি অ্যাপের সঙ্গে যুক্ত থাকবে যা আপনাকে শান্ত থাকতে সাহায্য করবে।
  • এতে অ্যাক্সিলেরোটোমিটার, জাইরোস্কোপ, ব্যারোমিটারের মতো নানা সেন্সর আছে।
  • এটিতে ব্লাড প্রেশার মনিটরও থাকবে, যা আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করবে। তবে আপাতত এটি ফিচার হিসাবে নয়, গবেষণার অঙ্গ হিসাবে কাজ করবে।
  • ১.১ ইঞ্চির অ্যামলেড ডিসপ্লেটি কর্নিং গোরিলা গ্লাস যুক্ত।
  • ৭৬৮এমবি র‍্যাম ও ৪ জিবির ইন্টারনাল মেমরি যুক্ত।
  • ওয়্যারলেস চার্জিং ব্যবস্থা রয়েছে এই ঘড়িগুলিতে।
  • এটি ব্লু-টুথ, ওয়াইফাই কানেকশনের সুযোগ থাকবে।

গ্যালাক্সি ফিটের মূল ফিচারগুলি হল-

  • এটি পাতলা, হালকা ওজনের ফিটনেস ট্র্যাকার, যা ৯০টির উপর গতিবিধি ট্র্যাক করতে পারবে।
  • এটি নিজে থেকেই হাঁটা, দৌড়নোর মতো গতিবিধি ট্র্যাক করে নেবে এবং তার সঙ্গে স্ট্রেস ম্যানেজমেন্টের ও হার্টবিট মনিটরও কাজ করতে থাকবে।
  • এটি জলপ্রতিরোধক প্রযুক্তিতে তৈরি তাই এটি পড়ে সাঁতারও কাটা যাবে।
  • ফোনের মেসেজ ও বিভিন্ন নোটিফিকেশন পাওয়া যাবে এই ঘড়িতে।
  • ০.৯৫ ইঞ্চির অ্যামলেড ডিসপ্লে থাকবে এতে।
  • ৭ দিনের ব্যাটারি ব্যাক আপ পাওয়া যাবে এই ঘড়িতে।

অন্য দিকে সবথেকে কম দামের ‘গ্যালাক্সি ই’ র মূল ফিচারগুলি হল-

  • এর ওজন মাত্র ১৫ গ্রাম, ০.৭৪ ইঞ্চির পিমোলয়েড ডিসপ্লে থাকবে এতে।
  • এটিও ৭ দিনের ব্যাটারি ব্যাক আপ নিয়ে কাজ করবে।
  • এটিতে হাটা, দৌড়নোর মতো গতিবিধি ট্র্যাক করা যাবে।

গ্যালাক্সি ফিট কালো ও রুপালি রং এবং ফিট ই পাওয়া যাবে সাদা, কালো ও হলুদ রঙে। স্মার্ট ঘড়ির দুনিয়ায় স্যামসাংয়ের নতুন ঘড়িগুলি কতটা সফল হবে তা জানতে অপেক্ষা করতে হবে আর কয়েক দিন।

আরও পড়ুন: সবচেয়ে বেশি রেডিয়েশন রেডমির ফোনে, ওয়ান প্লাস-স্যামসাংরা কোথায় জানেন?