খাস সেনা ছাউনিতেই ধর্ষণের অভিযোগ। সেনার ইস্টার্ন কমান্ডের সদর দফতর ফোর্ট উইলিয়ামের ভিতর এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ সেখানকারই এক কর্মীকে গ্রেফতার করল।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ১৫ জুন সন্ধ্যায় ময়দান থানায় ফোর্ট উইলিয়ামের এক গ্রুপ-ডি কর্মী অভিযোগ করেন, তাঁর ১১ বছরের বালিকাকে ধর্ষণ করেছেন সেনা ছাউনিরই অন্য এক কর্মী। প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে সেনা ছাউনির ভিতরে কর্মী আবাসনে। ওই নাবালিকাকে একা পেয়ে, চকোলেটের লোভ দেখিয়ে নিজের ঘরে নিয়ে যায় অভিযুক্ত সাগর মল্লিক। তিনি নিজেও সেনা আবাসনের একজন সাফাই কর্মী।

পরে ওই নাবালিকা তার মায়ের কাছে শারীরিক অস্বস্তির কথা জানালে পরিবারের সদস্যেরা গোটা বিষয়টি জানতে পারেন। কিন্তু ততক্ষণে নিজের ঘর থেকে পালিয়ে যান অভিযুক্ত।

আরও পড়ুন: পুলিশি হয়রানির অভিযোগ প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়ার, ডিসির নেতৃত্বে তদন্ত কমিটি গড়ল লালবাজার

জাদুকরের মৃত্যুতে মামলা পুলিশের

ওই পরিবার গোটা বিষয়টি সেনা কর্তৃপক্ষতে জানালে সেনা পুলিশ ময়দান থানায় খবর দেয়। ময়দান থানা অভিযোগ দায়ের করে। বুধবার ভোর রাতে অভিযুক্তকে পাকড়াও করে পুলিশ। ধৃত সাগর মল্লিকের বিরুদ্ধে পকসো (প্রিভেনশন অফ চিলড্রেন ফ্রম সেক্সুয়াল অফেনসেস) আইনে মামলা শুরু করেছে পুলিশ। বুধবার ধৃতকে আদালতে পেশ করা হবে।

কলকাতা শহরের রোজকার ঘটনার বাছাই করাবাংলা খবরপড়তে চোখ রাখুন আমাদেরকলকাতাবিভাগে।