উল্টোডাঙা উড়ালপুলের পর এ বার ইএম বাইপাসের উপর বাঘাযতীন উড়ালপুলের একটি র‌্যাম্পেও যান চলাচল অনিশ্চিত। কারণ, সেতুর ভগ্ন স্বাস্থ্য।

সোমবার রাতে রাজ্য সরকারের সেতু স্বাস্থ্য পরীক্ষা কমিটি ওই উড়ালপুলের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে দেখেন। ওই উড়ালপুলে দু’টি র‌্যাম্প রয়েছে। একটি রুবি থেকে গড়িয়াগামী। এই অংশটি প্রায় ৩১ বছরের পুরনো। অপেক্ষাকৃত নতুন গড়িয়া থেকে রুবিগামী র‌্যাম্পটি। ২১ বছরের পুরনো। সোমবার রাতে এই অংশেই যান চলাচল বন্ধ রেখে কেএমডিএ-র বিশেষজ্ঞ কমিটি উড়ালপুলের ৩০টির বেশি জায়গায় ‘ক্র্যাক’ বা ফাটল  চক দিয়ে চিহ্নিত করেন।

মঙ্গলবার সকালে গিয়ে দেখা যায়, কেএমডিএ-র নির্দেশে উড়ালপুলের ওই অংশের নীচে সাধারণ মানুষের যাতায়াত নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। ওই র‌্যাম্পের নীচে একটা ছোট বাজারও বসত। সেই বাজার বসার ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। অর্থাৎ ওই অংশটি যথেষ্ট বিপজ্জনক বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

উড়ালপুলে এই জায়গাগুলিতে ফাটল আছে বলে চিহ্নিত করেছেন বিশেষজ্ঞরা

আরও পড়ুন: শিক্ষা নিল না কলকাতা, ফের মেট্রোয় হাত আটকানোর ঘটনা, এ বার প্রাণে বাঁচলেন যাত্রী

কলকাতা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সেতু বিশেষজ্ঞ কমিটি কলকাতা পুলিশকে সোমবার রাতে উড়ালপুলের ওই র‌্যাম্পে যান চলাচল বন্ধ রাখতে অনুরোধ করেছিলেন স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য। কিন্তু এর পর তারা যান চলাচল নিয়ে নতুন কোনও নির্দেশিকা পায়নি সেতু বিশেষজ্ঞ কমিটির কাছ থেকে। সে কারণে এখনও যান চলাচল স্বাভাবিক রাখা হচ্ছে উড়ালপুলের উপর।

কেএমডিএ সূত্রে খবর, বিশেষজ্ঞরা এখনও যান চলাচল নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেননি। ওই উড়ালপুলের উপর দিয়ে ভারী যান চলাচল করে। ফাটল থাকা অবস্থায় ভারী যান চলাচল কতটা নিরাপদ, তা নিয়ে কথা বলবেন বিশেষজ্ঞরা। তবে সূত্রের খবর, রাতের দিকে উড়ালপুলের ওই অংশে যান চলাচল বন্ধ রেখে মেরামতির কাজ করতে চাইছে কেএমডিএ। কিন্তু, ওই উড়ালপুলে যান চলাচল বন্ধ রেখে মেরামতি করার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় বাধা তার অবস্থান। কলকাতা পুলিশের এক আধিকারিক বলেন, ‘‘বাইপাসের উপর ওই উড়ালপুল বন্ধ থাকলে তীব্র যানজটের আশঙ্কা রয়েছে। তাই বিশেষজ্ঞদের বড় অংশই চাইছেন উড়ালপুলে যান চলাচল বজায় রেখে প্রয়োজনে কিছুটা নিয়ন্ত্রণ করে সেতু মেরামতি করতে।’’ তবে তা আদৌ কতটাসম্ভব হবে সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি। ফলে ওই সেতু নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা।

আরও পড়ুন: খবর দিল ফেসবুক, পিকনিক গার্ডেনে যুবকের আত্মহত্যা রুখল পুলিশ​