• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্কুশ হাজরার বাড়িও

ankush
অঙ্কুশ হাজরা।

ঠিক যেন কালভৈরব। বুধবার মাত্র কয়েক ঘন্টায় পশ্চিমবঙ্গকে তছনছ করে দিয়েছে অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় আমপান। রাস্তায় গাছ পড়ে বন্ধ হয়েছে রাস্তা। ভেঙে গিয়েছে হাজার হাজার বাড়ি। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়েছে বেশ কয়েকজনের।  বিপুল ক্ষতির মুখে সাধারণ। 
কাঁচা ঘর যেমন ভেঙেছে, আমপানের রুদ্ররোষের কবল থেকে রক্ষা পায়নি অভিনেতা অঙ্কুশ হাজরার বিলাসবহুল আবাসনও। বাড়ির মেঝেতে জল থই থই। জানলার কাচ ভেঙে গিয়েছে। বাথরুমের ফলস সেলিং খসে পড়ছে। 


ছবিসহ সেই ঘটনার কথা পোস্ট করে অঙ্কুশ লেখেন, “ সাইক্লোন নাকি ভূমিকম্প? আমাদের মতো মানুষেরা কিছুটা হলেও এই ক্ষতি সামাল দিতে পারবে। কিন্তু সেই সব মানুষেরা? যাঁরা সব হারালেন? আমরা সবাই তাঁদের একটু পাশে দাঁড়াই।"


অঙ্কুশের বাড়ির ওই চেহারা দেখে নেটাগরিকদের মনে একটাই প্রশ্ন, “বিত্তবান মানুষদের বাড়িই যদি এতটা ক্ষতিগ্রস্ত হয় তবে উপকূলবর্তী মানুষদের আজ না জানি কী অবস্থা।“ অঙ্কুশের পোস্টের কমেন্ট সেকশনে ভিড় করেছে ফ্যানেদের চিন্তা আর দুরবস্থার চিত্র। অভিনেতা স্বস্তিকা দত্তও আমপানের এই বীভৎসতার ছবি কিছুতেই মন থেকে মুছে ফেলতে পারছেন না।  অঙ্কুশের পোস্টে কমেন্ট সেকশনে সে কোথা জানিয়েছেন স্বস্তিকা। কোথা থেকে যে কী হয়ে গেল ঠাওর করতে পারছেন না তিনি। করোনা আতঙ্কে মানুষের ঘুম উড়েছিল। লকডাউনের মধ্যেও পেটের তাগিদে ক্রমশ ঘুরে দাঁড়ানোর মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছিল সবাই। ঠিক সেই সময়েই আরও একটা ধাক্কা... 

দেখুন অঙ্কুশের পোস্ট


প্রথম দফার লকডাউন শুরু হওয়ার আগেই মা’কে নিয়ে অঙ্কুশের বাড়ি এসেছিলেন ঐন্দ্রিলা। কিন্তু লকডাউন শুরু হওয়ায় আর ফেরা হয়নি তাঁদের। কাল বিপর্যয়ের দিনেও দু’জনেই একসঙ্গেই পরিবারের সঙ্গে ছিলেন।

আরও পড়ুন- করোনার দোসর এ বার আমপান, মানুষ যাবেন কোথায়

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন