Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জুন ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Aryan Khan: অতিমারি আইন ভেঙে পার্টি শাহরুখ-তনয়দের! মুম্বই পুলিশের তদন্তে ইঙ্গিত তেমনই

মুম্বই পুলিশের এক আধিকারিক মঙ্গলবার জানান, প্রমোদতরীটি কেন মুম্বই থেকে গোয়া যাচ্ছিল, তা জানতে তদন্ত শুরু করেছেন তাঁরা।

       সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ০৬ অক্টোবর ২০২১ ০৬:১৯
Save
Something isn't right! Please refresh.


ফাইল চিত্র

Popup Close

প্রমোদতরীতে মাদক কাণ্ডে আরও তিন জনকে আজ গ্রেফতার করল নার্কোটিক্স কন্ট্রোল বুরো (এনসিবি)। এই নিয়ে মামলাটিতে এখনও পর্যন্ত মোট বারো জনকে গ্রেফতার করা হল। ধৃতদের মধ্যে রয়েছেন বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খানের বড় ছেলে, ২৩ বছর বয়সি আরিয়ান খান। এ দিকে, আজ মুম্বই পুলিশ জানিয়েছে, প্রমোদতরীতে পার্টি করার জন্য তাদের কাছ থেকে কেউপ্রয়োজনীয় অনুমতি নেয়নি। অতিমারির সময়ে এই পার্টিতে কোভিড-বিধি ভঙ্গ হয়েছে কি না, তার তদন্ত করতে আজ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মামলা রুজু করেছে মুম্বই পুলিশ।

মুম্বই পুলিশের এক আধিকারিক মঙ্গলবার জানান, প্রমোদতরীটি কেন মুম্বই থেকে গোয়া যাচ্ছিল, তা জানতে তদন্ত শুরু করেছেন তাঁরা। এ বিষয়ে তাঁরা কথা বলছেন প্রমোদতরীটির সংস্থা, সংশ্লিষ্ট ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থা এবং মুম্বই পোর্ট ট্রাস্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে। এই আধিকারিকের কথায়, ‘‘কোভিড পরিস্থিতিতে রাজ্যে এখন বিপর্যয় মোকাবিলা আইন চালু রয়েছে। মুম্বই-সহ গোটা রাজ্যে যে কোনও অনুষ্ঠান বা পার্টির জন্য পুলিশের অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। কিন্তু এই প্রমোদতরীটির জন্য সে ধরনের কোনও অনুমতি নেওয়া হয়নি।’’ এই পুলিশ কর্তার মতে, ‘‘অনুমতি ছাড়া পার্টির আয়োজন করে অতিমারি আইনের ১৮৮ নম্বর ধারা ভাঙা হয়েছে কি না, সে বিষয়ে তদন্ত করছি আমরা।’’ মহারাষ্ট্রে এখনও ১৪৪ ধারা জারি থাকায় সাধারণ ভাবে পাঁচ বা তার বেশি ব্যক্তির জমায়েত নিষিদ্ধ। আইনের ফাঁক গলে তাই জন্যই প্রমোদতরীটিকে গোয়াতে নিয়ে গিয়ে পার্টি করা হচ্ছিল কি না, সেই প্রশ্নই তুলেছে মুম্বই পুলিশ।

Advertisement

রবিবার আরব সাগরের বুকে এই প্রমোদতরী থেকে আরিয়ান ও তাঁর দুই বন্ধু-সহ আট জনকে আটক করা হয়েছিল। দীর্ঘ ক্ষণ জেরা করার পরে সে দিনই তাঁদের গ্রেফতার করে এনসিবি। গত কাল তাঁদের জামিনের শুনানি ছিল। কিন্তু জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়ে আরিয়ানদের ৭ অক্টোবর পর্যন্ত এনসিবির হেফাজতেই থাকার নির্দেশ দেন অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটান ম্যাজিস্ট্রেট আর এম নারলেকর। আদালতে এনসিবির আইনজীবী দাবি করেছিলেন, আরিয়ান এবং তাঁর দুই বন্ধু আরবাজ় মার্চেন্ট ও মুনমুন ধমেচার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট ঘেঁটে তাঁদের সঙ্গে বিদেশি মাদকপাচারকারীদের যোগাযোগের কথা জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা। তাঁদের আরও দাবি, মাদকের দাম কী ভাব দেওয়া হবে, তা নিয়েও অসংখ্য চ্যাট রয়েছে শাহরুখ পুত্রের ফোনে।

আরিয়ানদের জিজ্ঞাসাবাদ করেই এনসিবি গোয়েন্দারা শ্রেয়স নায়ার নামে ২৩ বছর বয়সি এক মাদক পাচারকারীর সন্ধান পেয়েছিলেন। গত কাল মুম্বইয়ের ঘাটকোপার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে জেরা করে আজ মুম্বইয়ের বিভিন্ন জায়গা থেকে আরও তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ শ্রেয়স-সহ চার জনকে আদালতে তোলা হলে তাদের ১১ অক্টোবর পর্যন্ত এনসিবি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন বিচারক নারলেকর। এদের বিরুদ্ধে মাদক তৈরি, সঙ্গে রাখা ও কেনাবেচার অভিযোগ আনা হয়েছে।

কাল শাহরুখ খানদের পাশে দাঁড়িয়ে কংগ্রেস সাংসদ শশী তারুর টুইট করেছিলেন, ‘‘একটি ২৩ বছরের ছেলের সঙ্গে যে আচরণ করছে সংবাদমাধ্যম, তা সমর্থনযোগ্য নয়।’’ আজ বিজ্ঞাপন বিশেষজ্ঞ প্রহ্লাদ কক্করও বলেন, ‘‘আরিয়ান খান প্রাপ্তবয়স্ক। যদি তিনি মাদক সেবন করে থাকেন, সেটার তদন্ত হবে। সংবাদমাধ্যম নিজেদের টিআরপি বাড়াতে এই মামলায় বারবার শাহরুখ খানের নাম জড়াচ্ছে।’’ আরিয়ানকে যে দিন গ্রেফতার করা হয়, সে দিনই রাতে শাহরুখদের বাড়ি গিয়েছিলেন সলমন খান। সূত্রের খবর, শাহরুখ-গৌরীকে ফোন করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন ও অনুষ্কা শর্মা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement