• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘মজা’র ছলে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত, রবিনা-ফারহা-ভারতীর বিরুদ্ধে থানায় একাধিক অভিযোগ দায়ের

main
বাঁ দিক থেকে রবিনা-ভারতী-ফারহা

Advertisement

ক্ষমা চেয়েছিলেন আগেই, কিন্তু তাতেও বিতর্ক কিছুতেই থামাতে পারছেন না রবিনা টন্ডন এবং ফারহা খান।  স্যামসন ব্রিগেড ক্রিশ্চিয়ান ইউথের চেয়ারম্যান বিজয় গরিয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে রবিবারেও এই নিয়ে দ্বিতীয়বার তাঁদের বিরুদ্ধে পঞ্জাবের ফিরোজপুর থানায় এফআইআর দায়ের করল পুলিশ।

ঘটনার সূত্রপাত হয়েছিল এক সপ্তাহ আগেই। এক টিভি শো-তে এসে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের কাছে পবিত্র হিব্রু শব্দ ‘হালেলিউয়া’কে নিয়ে মজায় মেতে ওঠেন পরিচালক ফারহা, কমেডিয়ান ভারতী এবং অভিনেত্রী রবিনা। ‘হালেলিউয়া’-র বাংলা তর্জমা করলে দাঁড়ায় ‘প্রার্থনা কর’। সেই শব্দ উচ্চারণ করতেই হাসি-ঠাট্টায় মেতে ওঠেন ওই তিন সেলেব।

এর পরেই পঞ্জাবের আজনালা শহরের  ক্রিশ্চিয়ান ফ্রন্টের সভাপতি সনু জাফর আজনালা থানায় ওই তিনজনের বিরুদ্ধে প্রথম এফআইআর দাখিল করেছিলেন। অভিযোগপত্রে সনু  জানিয়েছিলেন, খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ভাবাবেগে আঘাত করেছেন তাঁরা। পবিত্র শব্দ নিয়ে এ সব মজা ঠাট্টা মোটেও ঠিক নয়। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯৫-এ ধারায় মামলা রুজু করে পঞ্জাব পুলিশ। থানায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকেও পাঠানো হয় তাঁদের।

আরও পড়ুন- ‘এতদিন চুপ ছিলাম, আর নয়’, মৌসুমি চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগে আদালতে যাচ্ছেন জামাই ডিকি

আরও পড়ুন-দেব নয়, টলিপাড়ার অন্য এক নায়কের সঙ্গেই নতুন কেমিস্ট্রি রুক্মিণীর!

শুক্রবারই নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে গোটা ঘটনায় নিশর্ত ক্ষমা চেয়ে ফারহা লেখেন, “আমি খুবই দুঃখিত যে আমার শো-তে কিছু মানুষের ধর্মীয় আবেগে আঘাত দিয়ে ফেলেছি। আমি সব ধর্মকে সম্মান করি। কোনও ধর্মকেই অসম্মান করা আমার উদ্দেশ্য ছিল না। পুরো টিমের তরফ থেকে আমি ক্ষমা চাইছি।”

ফারহার পাশাপাশি রবিনাও টুইটারে লেখেন, “এমন একটাও শব্দ বলি নি যাতে করে কোনও ধর্মকে অসম্মান করা হয়। যাঁদের আমাদের কথা খারাপ লেগেছে তাঁদের কাছে আমরা তিনজনই ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।”

ক্ষমা চাইলেও বিতর্ক এখনও অব্যাহত, মজা করতে গিয়েই জোর ফ্যাসাদে রবিনা-ফারহা-ভারতী।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন