Advertisement
২৩ এপ্রিল ২০২৪
Kangana Ranaut

দর্শকদের কাছে হাতজোড় করেও ফল মেলেনি, ‘তেজস’-এর জন্য যোগীর দরজায় কড়া নাড়লেন কঙ্গনা!

‘তেজস’ চলছে না। তাঁর ছবি দেখার অনুরোধ করেছেন দর্শকদের। নিন্দকদের শাপশাপান্ত করেছেন তাতেও কাজ হচ্ছে না। এ বার তিনি গেলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের দুয়ারে!

(বাঁ দিকে) যোগী আদিত্যনাথ (ডান দিকে) কঙ্গনা রানাউত।

(বাঁ দিকে) যোগী আদিত্যনাথ (ডান দিকে) কঙ্গনা রানাউত। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
মুম্বই শেষ আপডেট: ৩১ অক্টোবর ২০২৩ ১৭:৩৭
Share: Save:

শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে কঙ্গনা রানাউত অভিনীত ছবি ‘তেজস’। মুক্তির পর তিন দিন কেটে গিয়েছে। কিন্তু বক্স অফিস রিপোর্ট একেবারেই আশাব্যঞ্জক নয়। তিন দিনে টেনেটুনে আড়াই কোটির গণ্ডি পার করেছে এই ছবি। ছবির এমন বেহাল দশা দেখে ময়দানে নামেন কঙ্গনা। হাতজোড় করে অনুরোধ করছেন তাঁর ছবি দেখতে যাওয়ার। তাতেও কাজ হয়নি। এ বার নিন্দকদের শাপশাপান্ত করেছেন, তাতেও কাজ হচ্ছে না। অবশেষে তিনি গেলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের দুয়ারে!

‘তেজস’ বক্স অফিসে উড়ান নিতে ব্যর্থ। হাল ছাড়তে নারাজ কঙ্গনা। কঙ্গনার দাবি, যাঁদের ‘উরি: দ্য সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’, ‘মেরি কম’-এর মতো ছবি ভাল লেগেছে, তাঁদের ‘তেজস’ ভাল লাগতে বাধ্য। পাশাপাশি, অভিনেত্রীর অভিযোগ, ৯৯ শতাংশ ছবিকে নাকি দর্শক সুযোগই দেন না। নেটাগরিকদের বড় অংশের অবশ্য দাবি, ছবি ভাল হলেই দর্শক প্রেক্ষাগৃহে ভিড় জমান। তবে দর্শক যা-ই বলুন, কঙ্গনার ‘তেজস’ দেখতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন যোগী। তার জন্য এ বার উত্তরপ্রদেশে ছুটলেন অভিনেত্রী। উত্তরপ্রদেশের লোক ভবনে দেখানো হল কঙ্গনার এই ছবি। অভিনেত্রীর পাশে বসে ছবি দেখলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর ছবি দেখে নাকি কেঁদে ফেলেছেন যোগী। কঙ্গনার কথায়, ‘‘এই ছবি দেখে যোগীজি চোখ জল আটকে রাখতে পারেননি। উনি আমাকে কথা দিয়েছে দেশ বিরোধী সমস্ত শক্তির থেকে রক্ষা করবেন। তেজাস কোনও সাধারণ ছবি নয়, এটা নারীর ক্ষমতায়নের গল্প।’’

যোগীর কাছে থেকে প্রশংসা পেয়ে তাঁর ছবি বক্স অফিসে বাড়তি অক্সিজেন পায় কি না, সেটাই দেখার।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE