Advertisement
২৬ নভেম্বর ২০২২
Kareena Kapoor Khan

তৈমুরের প্রার্থনা, সঙ্গী কে? ছবি দেখিয়ে গোপন কথা ফাঁস করলেন করিনা, মিষ্টি মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দি

ছবিটি পোস্ট করে করিনা লিখেছেন, ‘আমি জানি না তোমরা দু’জন কী প্রার্থনা করছো। কিন্তু আমি তোমাদের আনন্দ, খুশির জন্য প্রার্থনা করছি। আমি প্রার্থনা করছি, তোমরা যত কেক খেতে চাও, সব পাও।’

ভাইবোনের ছবি পোস্ট করলেন করিনা।

ভাইবোনের ছবি পোস্ট করলেন করিনা। —ফাইল ছবি

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৭:২৫
Share: Save:

পাশাপাশি বসে আছে ভাইবোন। দু’জনেরই হাত জোড় করা। ঈশ্বরের কাছে গভীর মনযোগ সহকারে কিছু প্রার্থনা করছে তারা। কিন্তু কী চাইছে, বোঝার উপায় নেই।

Advertisement

এই ভাইবোন দু’জনেই তারকা সন্তান। এক জন সইফ আলি খান, করিনা কপূরের ছেলে তৈমুর আলি খান এবং‌ অন্য জন তার পিসতুতো বোন তথা সোহা আলি খান, কুণাল খেমুর মেয়ে ইনায়া খেমু। ইনায়ার জন্মদিনে তৈমুরের সঙ্গে তার এই ছবি সমাজমাধ্যমে পোস্ট করেছেন করিনা স্বয়ং। ছবিটি নিয়ে নতুন করে চর্চা শুরু হয়েছে তাঁর অনুরাগীদের মধ্যে।

ছবিটি পোস্ট করে করিনা লিখেছেন, ‘আমি জানি না তোমরা দু’জন কী প্রার্থনা করছ। কিন্তু আমি তোমাদের আনন্দ, খুশির জন্য প্রার্থনা করছি। আমি প্রার্থনা করছি, তোমরা যত কেক খেতে চাও, সব পাও।’ একই সঙ্গে করিনা ইনায়ার উদ্দেশে মজা করে লিখেছেন, ‘তোমার মা এটা পড়ছে, আর সে এসব দেখে আমাকে মেরেই ফেলবে।’ তিনি এর পর ইনায়াকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান। লেখেন, ‘রাজকুমারী ইনায়া, তোমার জন্মদিন শুভ হোক। অনেকটা ভালবাসি তোমাকে।’

কিছু দিন আগে এক সংবাদমাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকারে সোহা জানান, তৈমুর এবং ইনায়ার প্রথম সাক্ষাতের দিনটি কেমন ছিল। তাঁর বক্তব্য অনুযায়ী, সে দিন নিজের ঘরেই ইনায়া ঘুমোচ্ছিল। তৈমুর সেখানে গিয়ে খুব চেঁচামেচি করছিল। সোহা ভয় পাচ্ছিলেন, মেয়ের ঘুম হয়তো ভেঙে যাবে। কিন্তু চেঁচামেচির মধ্যে ঘুমিয়েই ছিল ছোট্ট ইনায়া। সে দিন আর দু’জনের আলাপ হয়নি। পরে এক দিন তৈমুরের ঘরে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ইনায়াকে। সে দিন দু’জনের দেখা হয়। করিনার কোলে তৈমুর এবং সোহার কোলে ইনায়ার একটি ছবি সে দিন তোলার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু তা আর হয়ে ওঠেনি, জানিয়েছেন সোহা।

Advertisement

মেয়ের জন্মদিনে মিষ্টি ছবি পোস্ট করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইনায়ার বাবা কুণাল খেমুও। পাঁচ বছরে পা দিয়েছে ইনায়া। কুণাল জানিয়েছেন, কত দ্রুত সময় বয়ে যাচ্ছে, মেয়েকে দেখে তা নতুন করে উপলব্ধি করছেন তিনি। মেয়ের বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তাঁর নিজের বয়স যেন দিন দিন কমছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.