Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Sreelekha-Sashanka: ডেট নয় নোংরামি! বুধবার শ্রীলেখা-শশাঙ্কের সাক্ষাৎ নিয়ে উত্তাল নেটমাধ্যম

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৯ জুলাই ২০২১ ১৭:২২
অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

ডেট করবেন শ্রীলেখা মিত্র-শশাঙ্ক ভাভসার। তাই নিয়ে উত্তেজিত নেটাগরিকেরা! বুধবার শশাঙ্কের সঙ্গে ডেটে যাবেন, নেটমাধ্যমে জানিয়েছেন অভিনেত্রী। সঙ্গে পরামর্শও চেয়েছেন, ‘কী সাজে যাওয়া যায়?' তাই নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া অনুরাগীদের মধ্যে। বেশির ভাগের মত, শাড়িতে শ্রীলেখা নাকি বেশি আকর্ষণীয়। তাঁদের এবং অভিনেত্রীর মতে, তাই শাড়ি না পরাই ভাল। এ বিষয়ে আনন্দবাজার অনলাইনের কাছে অভিনেত্রীর যুক্তি, ‘‘বাচ্চা ছেলে। শাড়ি পরে গেলে হয়তো পরিস্থিতি বদলে যাবে। লোকে আমায় ছেলেধরা বলবে!’’ প্রসঙ্গত, কিছু দিন আগেই নেটমাধ্যমে কফি ডেটে যাওয়ার কথা জানিয়েছিলেন শ্রীলেখা। তাঁর শর্ত ছিল, বদলে পথপশুদের দত্তক নিতে হবে। অভিনেত্রীর ইচ্ছাপ্রকাশের আধ ঘণ্টার মধ্যেই শর্ত মেনে সাড়া দেন শশাঙ্ক ভাভসার। সঙ্গে সঙ্গে ডেটে রাজি শ্রীলেখাও।

আনন্দবাজার অনলাইনকে অভিনেত্রী আরও জানিয়েছেন, ‘‘আমার খুব ইচ্ছে ড্রেস বা জিন্স-শার্ট পরব। ডেট করব। পোশাকেও যেন সেই আমেজ থাকে।’’ কফির সঙ্গে আর কী থাকবে? অভিনেত্রীর দাবি, তিনি ডেট করবেন জানিয়েছেন। শশাঙ্ক তাঁর অতিথি। তাই রেড ভলান্টিয়ার্স কর্মী যা খেতে চাইবেন, সেটাই তিনি খাওয়াবেন। এর আগেও শ্রীলেখা বলেছিলেন, কফি ডেটের যাবতীয় খরচ তাঁর।

Advertisement

পাশাপাশি, বিষয়টি নিয়ে জলঘোলাও হচ্ছে। এক দল নেটাগরিকের দাবি, পথপশুদের দত্তক নেওয়াকে সামনে রেখে আদতে নোংরামি করছেন শ্রীলেখা-শশাঙ্ক। সম্প্রতি, একটি অনলাইন গেমে আলাদা ভাবে অংশ নেন অভিনেত্রী এবং রেড ভলান্টিয়ার্স কর্মী শশাঙ্ক। কাকতালীয় ভাবে পাঁচটি বিষয় মিলে যায় তাঁদের। সে কথা নেটমাধ্যমে জানাতেই জনৈক নেটাগরিকের দাবি, বিয়ের বয়স পেরিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বিয়ে হচ্ছে না শশাঙ্কের। তাই ডেটে যাচ্ছেন, এ সব খেলা খেলছেন। উভয়েই বাম সমর্থক হওয়ায় তা নিয়েও কটূক্তি করেছেন অনেকেই।

নেটমাধ্যমে সাফ জবাব দিয়েছেন শশাঙ্কও। তাঁর কথায়, ‘পথশিশু দত্তক নেওয়ার মতোই ভাল উদ্যোগ পথপশু দত্তক নেওয়া। একে কী ভাবে আপনারা বিভিন্ন মন্তব্যের মাধ্যমে খিল্লি করছেন! এই সাধু উদ্যোগকে বাহবা দেওয়া উচিত সকলের।' তাঁর দাবি, ব্যক্তিগত কুৎসা না করে সবাই মিলে পথপশুদের দায়িত্ব নেওয়া যেতে পারে। এতে সমাজ সুন্দর হবে।

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement