Advertisement
২৩ এপ্রিল ২০২৪
Extortion

দিল্লিতে অক্ষয় কুমারের ‘স্পেশাল ২৬’, ইডি আধিকারিক সেজে ব্যবসায়ীর থেকে ২০ কোটির দাবি!

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) আধিকারিক সেজে মুম্বইয়ের এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ২০ কোটি টাকা তোলাবাজির অভিযোগ উঠল খাস দিল্লিতে। অনেকটা যেন অক্ষয় কুমারের হিট ছবি ‘স্পেশাল ২৬’ র ধাঁচে!

‘স্পেশাল ২৬’ ছবিতে যে ভাবে সিবিআই আধিকারিক সেজে লুটপাট চালিয়েছিল অক্ষয় কুমারের চরিত্র অজয় সিংহ, অনেকটা সেই ছবিরও ছায়াই দেখা যাচ্ছে এই কাণ্ডে।

ছবি: সংগৃহীত।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১৮ নভেম্বর ২০২২ ১৪:৫৩
Share: Save:

রাজধানীতে আবার দেখা গেল অক্ষয় কুমারের হিট ছবি ‘স্পেশাল ২৬’-এর ঝলক। না! নীরজ পাণ্ডের ওই সিনেমার প্রদর্শন নয়। এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) আধিকারিক সেজে মুম্বইয়ের এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ২০ কোটি টাকা তোলাবাজির অভিযোগ উঠল খাস দিল্লিতে। অনেকটা যেন অক্ষয়ের ছবির ধাঁচেই! তোলাবাজির অভিযোগে বৃহস্পতিবার ওই চক্রের পান্ডা-সহ ৯ জনকে গ্রেফতার করেছে দিল্লি পুলিশ।

দিল্লি পুলিশের স্পেশাল কমিশনার (ক্রাইম ব্রাঞ্চ) রবীন্দ্র সিংহ যাদব জানিয়েছেন, নিপ্পন ইন্ডিয়া পেন্ট লিমিটেড নামে এক সংস্থার সভাপতি হরদেব সিংহের অভিযোগের ভিত্তিতে দিল্লির একটি অভিজাত হোটেল থেকে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়। তাঁদের জেরা করে এই চক্রের আরও কয়েক জনকে পাকড়াও করা হয়েছে।

হরদেবের দাবি, সম্প্রতি তাঁর কাছে দু’জন ইডি আধিকারিকের নামে দু’টি নোটিস এসেছিল। তাতে লেখা, কেন্দ্রীয় সংস্থাটি তাঁর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে। এর পরেও স্পিড পোস্টে বেশ কয়েকটি এ ধরনের নোটিস পান। ঘাবড়ে গিয়ে ওই নোটিসপ্রেরকদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তিনি। তবে তাঁরা সাহায্য করার নামে প্রথমে ২-৩ কোটি টাকা চান। পাশাপাশি, দিল্লি গিয়ে তাঁদের সঙ্গে দেখা করতে বলেন। ১১ নভেম্বর দরদাম করে টাকার অঙ্ক কিছুটা কমালেও বিষয়টি সামনাসামনি বসে মেটানোর কথা বলেন অভিযুক্তেরা। সেই কথা মতো পরের দিন মুম্বই বিমানবন্দরে দু’জনের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। তবে এ বার দু’জনের দাবি, তাঁর বিরুদ্ধে কোটি কোটি টাকা মূল্যের জমিজায়গার হদিস পেয়েছেন ইডি আধিকারিকেরা। তবে বিষয়টি কয়েক কোটি খসিয়ে মিটমাট করে নেওয়া যেতে পারে। সে জন্য ইডির দিল্লি অফিসে গিয়ে সব কিছু ঠিক করতে হবে। দিল্লিযাত্রার বিমানের টিকিট-সহ হোটেলভাড়া— যাবতীয় খরচ বহন করতে হবে তাঁকে।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, ওই দুই ব্যক্তির দাবি মেনে খরচাপাতি করার পর দিল্লির এক অভিজাত হোটেলে তাঁদের সঙ্গে দেখা করেন হরদেব। তবে সেখানে গিয়ে হরদেবের কাছে ২০ কোটি টাকার দাবি করে অভিযুক্তেরা। এর পরেই পুলিশের দ্বারস্থ হন হরদেব। হরদেবের অভিযোগ পেয়ে ওই হোটেলে পৌঁছন দিল্লি পুলিশের আধিকারিকেরা। রবীন্দ্র বলেন, ‘‘ওই হোটেল থেকে দু’জনকে হাতেনাতে ধরা হয়। এর পর তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদের সময় জানা যায়, হোটেলে আরও ৩ সঙ্গী লুকিয়ে রয়েছেন। তাঁদেরও গ্রেফতার করা হয়েছে।’’

পুলিশের দাবি, গোটা ষড়যন্ত্রের খুঁটিনাটি নিপুণ ভাবে পরিকল্পনা করেছিলেন অভিযুক্তেরা। এতে প্রত্যেকের কী ভূমিকা থাকবে, তা-ও বলে দেওয়া হয়েছিল। ‘স্পেশাল ২৬’ ছবিতে যে ভাবে সিবিআই আধিকারিক সেজে গয়নার দোকানে লুটপাট চালিয়েছিল অক্ষয় কুমারের চরিত্র অজয় সিংহ, অনেকটা সেই ছবিরও ছায়াই দেখা যাচ্ছে এই কাণ্ডে। ধৃতদের কাছ থেকে বারোটি মোবাইল-সহ ১টি গাড়িও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE