×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

৩০ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

বাবার পর ছেলে, সাড়ে সাত মাস পর মুক্তি পেলেন ওমর আবদুল্লা

সংবাদ সংস্থা
শ্রীনগর ২৪ মার্চ ২০২০ ১৪:৩৮
জেল থেকে ছাড়া পেলেন জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা। ছবি: টুইটার থেকে

জেল থেকে ছাড়া পেলেন জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা। ছবি: টুইটার থেকে

বাবা মুক্তি পেয়েছিলেন ১০ দিন আগে। এ বার ছেলে ওমর আবদুল্লাকেও মুক্তি দিল কেন্দ্র। আজ মঙ্গলবার শ্রীনগরের জেল থেকে ছাড়া পেয়েছেন তিনি। উপত্যকার বিশেষ মর্যাদা তুলে নেওয়ার পর থেকেই গ্রেফতার ছিলেন ওমর। সাড়ে সাত মাসেরও বেশি সময় পরে মুক্তি পেলেন জম্মু কাশ্মীর ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা ওমর। যদিও করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের অধিকাংশ এলাকায় লকডাউন চলছে। ফলে মুক্তি পেয়েও কার্যত ঘরবন্দিই থাকতে হবে ওমরকে।

কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, উপত্যকায় স্থিতাবস্থা ফিরে আসায় রাজনৈতিক নেতাদের মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। ওমরেরর মুক্তির বিষয়ে কেন্দ্র কী ভাবছে, সম্প্রতি তা জানতে চেয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে, শীর্ষ আদালতের এই ভূমিকার পরেই তড়িঘড়ি ওমরের মুক্তির সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র।

গত বছরের ৫ অগস্ট ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ করে উপত্যকার বিশেষ মর্যাদা তুলে নেওয়ার দিনই জম্মু-কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লা, ওমর আবদুল্লা ও মেহবুবা মুফতি-সহ বেশ কিছু রাজনৈতিক নেতা ও বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার বা গৃহবন্দি করা হয়েছিল। জম্মু কাশ্মীর ভেঙে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করা হয়েছিল ওই সময়েই। তার পর গোটা উপত্যকায় জারি হয়েছিল কড়া নিয়ন্ত্রণ। তখন থেকে বন্দিই ছিলেন ওই নেতারা। তবে পরিস্থিতি এখন অনেকটাই পাল্টেছে। মোবাইল, ইন্টারনেট, কেবল টিভি, ল্যান্ডলাইন-সহ যাবতীয় পরিষেবা চালু হয়েছে। প্রায় পুরোপুরি স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে এসেছে উপত্যকায়। এই পরিস্থিতিতে গত ১৩ মার্চ ফারুক আবদুল্লাকে মুক্ত করেছিল কেন্দ্র। এ বার ওমর আবদুল্লাকে মুক্ত করা হল।

Advertisement

আরও পড়ুন: করোনায় ফের মৃত্যু দেশে, এ বার মুম্বইয়ে আমিরশাহি ফেরত বৃদ্ধের

সম্প্রতি দাদার মুক্তি চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন ওমর আবদুল্লার বোন। সেই মামলায় এক সপ্তাহের মধ্যে কেন্দ্রকে রিপোর্ট দিতে বলেছিল শীর্ষ আদালত। বিচারপতিরা সরকার পক্ষের আইনজীবীকে বলেছিলেন, “তাঁকে (ওমর আবদুল্লা) যদি মুক্তি দিতে চাইছেন, তা হলে দ্রুত মুক্তি দিন।” কাশ্মীরে সবকিছু স্বাভাবিক হওয়ার পর ওমর আবদুল্লার মুক্তি নিয়ে কেন্দ্র কী ভাবছে, তা এক সপ্তাহের মধ্যে জানানোর নির্দেশও দেয় শীর্ষ আদালত। তার পরেই ওমরের মুক্তির সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র।


আরও পড়ুন: এ বার উত্তর-পূর্বেও হানা করোনার, মণিপুরে আক্রান্ত বিদেশফেরত তরুণী

অন্য দিকে এখনও গ্রেফতার করে রাখা হয়েছে জম্মু কাশ্মীরের আর এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিকে। তাঁর বা অন্য নেতাদের মুক্তির বিষয়ে কেন্দ্র কী ভাবছে, সে বিষয়ে এখনও কিছু জানানো হয়নি। তবে রাজনৈতিক মহল মনে করছে, এর পরে মেহবুবা মুফতির সহ অন্য নেতা-নেত্রীদের মুক্তির সম্ভাবনাও জোরদার হল।

Advertisement