×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

অ্যাপ নির্ভর ঋণে প্রতারণা, অবৈধ বহু অ্যাপ প্লে স্টোর থেকে সরাল গুগ্‌ল

সংবাদ সংস্থা
হায়দরাবাদ১৪ জানুয়ারি ২০২১ ১৮:৪২
প্লে স্টোর বহু অ্য়াপ সরাল গুগ্‌ল— ফাইল চিত্র

প্লে স্টোর বহু অ্য়াপ সরাল গুগ্‌ল— ফাইল চিত্র

ঋণ সংক্রান্ত অবৈধ অ্যাপের ফাঁদে ফেলে প্রতারণার অভিযোগে একগুচ্ছ অবৈধ অ্যাপ প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে দিল গুগ্‌ল। গুগ্‌ল প্লে স্টোর থেকেই বেশির ভাগ ভারতীয় অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারী এই ধরনের অ্যাপ ডাউনলোড করেন। ব্যবহারকারীদের স্বার্থ রক্ষার জন্যই এই সিদ্ধান্ত বলে জানানো হয়েছে। সরকারের নির্দেশ এবং ব্যবহারকারীদের রেটিং ও কমেন্টের উপর নির্ভর করে বৃহস্পতিবার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে গুগ্‌ল। শুধু তা-ই নয়, এই ধরনের আরও কিছু অ্যাপ প্রস্তুতকারক সংস্থাকেও নোটিস দিয়েছে তারা। এর মধ্যে রয়েছে ১০মিনিটলোন, এক্স-মানি, এক্সট্রা মুদ্রা এবং স্টুক্রেড-এর মতো অ্যাপ।

অ্যাপের মাধ্যমে ঋণ দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে এক চিনা নাগরিক-সহ ৩১ জনকে সম্প্রতি গ্রেফতার করে হায়দরাবাদ পুলিশ। বৃহস্পতিবারও এক চিনা নাগরিককে গ্রেফতার করা হয় মহারাষ্ট্রের ঠাণে থেকে। পুলিশ জানিয়েছে, একটি কলসেন্টারে কাজ করতেন অভিযুক্তেরা। সেখান থেকেই তাঁদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুধু লোন দেওয়ার নামে টাকা আত্মসাৎই নয়, চড়া সুদে লোনের টাকা উদ্ধারের জন্য ওই সব ব্যক্তির বিরুদ্ধে হুমকি এবং মারধরের অভিযোগও উঠেছে। এর পরই নড়েচড়ে বসেন গুগ্‌ল কর্তৃপক্ষ।

গুগ্‌লের  প্রোডাক্ট, অ্যান্ড্রয়েডের সিকিওরিটি এবং প্রাইভেসি বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট সুজান ফ্রে এক বিবৃতিতে বলেন, ‘আমরা একগুচ্ছ পার্সোনাল লোন অ্যাপের উপর সমীক্ষা করেছি। সরকারি রিপোর্ট ছাড়াও ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতা বিচার করেছি। আমাদের ব্যবহারকারীদের স্বার্থ বিঘ্নিত হয়, তাঁদের গোপনীয়তা নষ্ট হয়, এমন অ্যাপ আমরা প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে দিয়েছি। আরও কিছু এই ধরনের অ্যাপের কর্তৃপক্ষকে নোটিস দেওয়া হয়েছে। তারা যদি নিয়ম না মানে, তা হলে তাদের অ্যাপও সরিয়ে দেওয়া হবে’।

আরও পড়ুন: এখনও চিনে ১৬ ভারতীয় নাবিক আটক, ২৩ জন ফিরছেন দেশে

Advertisement


তেলঙ্গানার পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন, এই প্রতারণা চক্রের হদিশ মেলে এক ব্যক্তির অভিযোগের ভিত্তিতে। তিনি ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ঋণ নিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁকে ২ লক্ষ টাকা দিতে হয় বলে অভিযোগ। শুধু তাই নয়, আরও টাকা আদায়ের জন্য ওই ব্যক্তিকে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল বলেও অভিযোগ। সেই অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নেমে এই চক্রের হদিশ পায় পুলিশ। ধৃতদের কাছ থেকে ২ কোটি টাকা, ল্যাপটপ এবং চারটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করেছে পুলিশ।      

আরও পড়ুন: লালকেল্লায় নয়, দিল্লি সীমান্তে হবে ট্র্যাক্টর র‌্যালি: কৃষক নেতারা

Advertisement