Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

অভিনন্দন পাক এফ-১৬ বিমানই নামিয়েছিলেন, প্রমাণ হিসাবে রেডার ইমেজ পেশ করল বায়ুসেনা

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৮ এপ্রিল ২০১৯ ১৯:২১
দিল্লিতে সাংবাদিক বৈঠকে ভাইস মার্শাল আর জি কে কপূর। ছবি: পিটিআই।

দিল্লিতে সাংবাদিক বৈঠকে ভাইস মার্শাল আর জি কে কপূর। ছবি: পিটিআই।

ডগ ফাইটে পাক যুদ্ধবিমান এফ-১৬ই নামিয়েছিলেন বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। প্রমাণ হিসাবে এ বার রেডার ইমেজ পেশ করল ভারতীয় বায়ুসেনা।ক’দিন আগেই ভারতের দাবি নিয়ে প্রশ্ন তোলে মার্কিন পত্রিকা ‘ফরেন পলিসি’। তারা দাবি করে, ভারত-পাক সঙ্ঘাতের পর আমেরিকা পাকিস্তানের সমস্ত এফ-১৬ যুদ্ধবিমান গুনে দেখেছে। তাতে একটি যুদ্ধবিমানও কম নেই। তার পরই এ দিন সাংবাদিক বৈঠক ডেকে রেডার ইমেজ পেশ করে ভারতীয় বায়ুসেনা।

সোমবার বিকালে দিল্লিতে সাংবাদিক বৈঠক করেন বায়ুসেনার ভাইস মার্শাল আর জি কে কপূর। সেখানে বেশ কিছু ছবি তুলে ধরেন তিনি, যা ২৭ ফেব্রুয়ারি পাক যুদ্ধবিমানের সঙ্গে ভারতের মিগ ২১ বাইসন বিমানের সঙ্ঘর্ষ চলাকালীন রেডারে ধরা পড়ে। তাতে পাকিস্তানের একটি এফ-১৬ যুদ্ধ বিমান স্পষ্ট দেখা গিয়েছে।

নিরাপত্তা এবং গোপনীয়তা রক্ষায় ওই ছবিগুলি জনমাধ্যমে প্রকাশ করা সম্ভব নয় বলে জানান ভাইস মার্শাল। তবে সেই সঙ্গে তিনি আরও জানান, ২৭ ফেব্রুয়ারি জম্মু-কাশ্মীরের ঝাঙ্গরে নিয়ন্ত্রণরেখার পশ্চিমের ওই এলাকায় একাধিক এফ-১৬ যুদ্ধ বিমান এয়ারবোর্ন আর্লি ওয়ার্নিং অ্যান্ড কন্ট্রোল সিস্টেম (এইডব্লিউএসিএস) রেডারে ধরা পড়ে। উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের মিগ ২১ বাইসন বিমান লক্ষ্য করে আমরাম মিসাইল ছুড়ছিল তারা। ভারতের তরফেও তার পাল্টা জবাব দেওয়া হয়। তাতে পাকিস্তানি বায়ুসেনার একটি এফ-১৬ বিমান গুলি করে নামান অভিনন্দন বর্তমান।

Advertisement

আরও পড়ুন: জাতীয়বাদ, সুশাসনের সঙ্গে রইল রামমন্দির তাসও, ইস্তাহার প্রকাশ বিজেপির​

ভাইস মার্শাল আরজিকে কপূর আরও জানান, মাঝ আকাশে ওই সঙ্ঘর্ষে দুটি বিমান ভেঙে পড়ে, যার মধ্যে একটি হল ভারতের মিগ ২১ বাইসন যুদ্ধবিমান। আর অন্যটি হল পাকিস্তানের এফ-১৬। পাকিস্তানি এফ-১৬ বিমানটি নিয়ন্ত্রণ রেখার ওপারে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে গিয়ে পড়ে।

আরও পড়ুন: গাঁধীর হত্যাকারীদের কাছে দেশপ্রেম শিখব না, মোদী-বিজেপিকে আক্রমণ মমতার​

গত ১৬ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপি কনভয়ে পাক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ হামলা চালানোর পর নতুন করে ভারত-পাক দ্বন্দ্ব চরমে ওঠে। পুলওয়ামার জবাবে ২৬ ফেব্রুয়ারি পাক অধিকৃত কাশ্মীর এবং বালাকোটে ঢুকে বোমা বর্ষণ করে ভারতীয় বায়ুসেনা। তার পর দিন ভারতে আক্রমণ করতে আসে পাক বায়ুসেনার এফ-১৬ যুদ্ধবিমান। তাদের তাড়া করে পাক অধিকৃত সাবজকোটের ৭-৮ কিলোমিটার ভিতরে ঢুকে পড়েন উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। সেখানে পাকিস্তানের হাতে বন্দি হন তিনি। পরে যদিও তাঁকে ছেড়ে দেয় ইমরান খানের সরকার।

(ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

আরও পড়ুন

Advertisement