Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

৮০ শতাংশ বোমাই লক্ষ্যে আঘাত করেছে, কেন্দ্রকে রিপোর্ট দিল বায়ুসেনা

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৬ মার্চ ২০১৯ ১৬:৪২
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার অভিযানে জঙ্গিমৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে রাজনৈতিক তরজা চলছেই। অভিযান নির্দিষ্ট লক্ষ্যে আঘাত করতে সফল হয়েছে কি না, তা নিয়েও সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বিরোধীরা। পাকিস্তান দাবি করে আসছিল, কিছু গাছ এবং জঙ্গল ছাড়া কোনও ক্ষতি হয়নি পাকিস্তানের। সেই বিতর্কের মধ্যেই এ বার সরকারের হাতে সরাসরি প্রমাণ তুলে দিল বায়ু সেনা। উপগ্রহ চিত্র দিয়ে ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, ওই দিন ৮০ শতাংশ বোমাই নির্দিষ্ট লক্ষ্যে আঘাত হেনেছে।

বায়ু সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে, ২৬ ফেব্রুয়ারি বালাকোটে অভিযানের ১২ পাতার একটি বিস্তারিত রিপোর্ট তৈরি করেছে বায়ু সেনা। তাতে হামলার বিস্তারিত তথ্যের সঙ্গে রয়েছে বেশ কিছু ‘হাই রিজোলিউশন স্যাটেলাইট ইমেজ’। ওই সময় ভারতের আকাশে থাকা একটি নজরদারি বিমান থেকে ‘রেডার ইমেজ’ও যুক্ত করা হয়েছে ওই রিপোর্টের সঙ্গে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বায়ু সেনার অফিসারকে উদ্ধৃত করে একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের দাবি, ওই রিপোর্টই মোদী সরকারকে দিয়েছে বায়ু সেনা।

ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, বালাকোটের ওই অভিযান সম্পূর্ণ সফল। রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, বায়ু সেনার মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমানে অভিযান চালানো হয়। ওই যুদ্ধবিমানগুলিই ইজরায়েলি স্পাইস ২০০০ বোমা ফেলে আসে। এই বোমাগুলি বাড়ির ছাদ দিয়ে ঢুকে ভিতরে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। ফলে ক্ষতি হয়েছে ভিতরে ভিতরে। এই সূত্রেই রিপোর্টে বায়ু সেনার দাবি, ৮০ শতাংশ বোমাই নির্দিষ্ট লক্ষ্যে গিয়ে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। যে কোনও অভিযানেই ২০ শতাংশকে সম্ভাবনা হিসেবে রাখা হয়। এক্ষেত্রেও সেটাই হয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন: ভারতীয় বায়ু সেনার ক্ষমতা সম্পর্কে কতটা জানেন?

আরও পড়ুন: বোমাবর্ষণের পরও অক্ষত জইশের মাদ্রাসা! উপগ্রহের পাঠানো ছবি ঘিরে ধন্দ

২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের বালাকোটে ঢুকে জইশ জঙ্গিদের সবচেয়ে বড় ঘাঁটিতে বোমাবর্ষণ করে ফিরে আসে। কিন্তু তা নিয়ে শুরু হয় রাজনৈতিক তরজা। ওই অভিযানে কত জন জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে, তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে এখনও। বিরোধীরাও সরকার পক্ষকে এ নিয়ে লাগাতার আক্রমণ করে যাচ্ছে। অমিত শাহ ২৫০ জনের মৃত্যুর কথা বলেছেন। কিন্তু প্রতিরক্ষামন্ত্রী সংখ্যা বলেননি। আবার বিরোধীদের অভিযোগ, বোমাগুলি নির্দিষ্ট লক্ষ্যে ফেলা গিয়েছে কি না, তা নিয়েও বিতর্ক রয়েছে। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিদেরও জইশ জঙ্গিদের ওই ডেরায় ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

আরও পড়ুন: ‘পুলওয়ামা হামলা আসলে বড় দুর্ঘটনা,’ বিজেপি নেতার কথায় বাড়ল বিতর্ক

আবার কয়েক দিন আগেই বায়ু সেনাপ্রধান বীরেন্দ্র সিংহ ধানোয়া স্পষ্ট জানিয়েছিলেন, তাঁদের অভিযান সফল। তবে মৃতদেহ গোনা তাঁদের কাজ নয়। এ বার সেই দাবির পক্ষেই সরকারকে তথ্যপ্রমাণ তুলে দিল ভারতীয় বায়ু সেনা।

(ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

আরও পড়ুন

Advertisement