Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

‘আর নিরাপদ নয় মুম্বই’, সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যু নিয়ে অমৃতার মন্তব্যে তরজা চরমে

এর আগে সিবিআইয়ের হাতে সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তভার তুলে দেওয়ার পক্ষে সওয়াল করেছিলেন দেবেন্দ্র ফড়ণবীস।

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ০৪ অগস্ট ২০২০ ১৪:৩২
Save
Something isn't right! Please refresh.
সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত নিয়ে মুম্বই পুলিশকে কটাক্ষ অমৃতার।

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত নিয়ে মুম্বই পুলিশকে কটাক্ষ অমৃতার।

Popup Close

অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত নিয়ে মুম্বই ও বিহার পুলিশের মধ্যে টানাপড়েন চলছেই। এমন পরিস্থিতিতে মুম্বই পুলিশের সমালোচনা করতে গিয়ে বিতর্ক ডেকে আনলেন মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবীসের স্ত্রী অমৃতা। মুম্বই পুলিশ যে ভাবে সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত করছে, তাতে মায়ানগরী আর সাধারণ মানুষের জন্য নিরাপদ নয় বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। তাঁর এই মন্তব্য নিয়ে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছে। ২৪ ঘণ্টা যে মুম্বই পুলিশের নিরাপত্তায় রয়েছে, তাদের অপদার্থ অভিহিত করা কতটা সমীচীন, প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

এর আগে সিবিআইয়ের হাতে সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তভার তুলে দেওয়ার পক্ষে সওয়াল করেছিলেন দেবেন্দ্র ফড়ণবীস। অভিনেতার অ্যাকাউন্ট থেকে কত টাকা লেনদেন হয়েছে, তা জানতে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)-এর হস্তক্ষেপও দাবি করেন তিনি। তার পর সোমবার এ নিয়ে মুখ খোলেন অমৃতা। টুইটারে তিনি লেখেন, ‘‘যে ভাবে সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত পরিচালনা করা হচ্ছে, তাতে আমার মনে হচ্ছে যে মুম্বই মানবিকতা বোধ হারিয়েছে এবং নিরীহ, আত্মসম্মান বোধ সম্পন্ন নাগরিকদের জন্য এই শহর আর নিরাপদ নয়।’’

অমৃতার এই মন্তব্যে চটেছেন শাসকদল শিবসেনার মুখপাত্র তথা রাজ্যসভার সাংসদ প্রিয়ঙ্কা চতুর্বেদী। নাম না করে টুইটারে অমৃতা ফড়ণবীসকে বেঁধেন তিনি। প্রিয়ঙ্কা লেখেন, ‘‘রাজ্য বিজেপি নেতা এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যরা, যাঁরা মুম্বই পুলিশের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলছেন এবং তাদের নামে কুৎসা রটাচ্ছেন, তাঁদের চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছি, এখনই নিজেদের পুলিশি নিরাপত্তা ত্যাগ করুন। তার বদলে বেসরকারি কোনও সংস্থাকে নিযোগ করুন, যাদের হাতে আপনারা নিরাপদ বোধ করবেন। এক জন মুখ্যমন্ত্রী, যাঁর হাতে কিনা স্বরাষ্ট্র দফতরের দায়িত্বও ছিল, তাঁর স্ত্রীর মুখে এই ধরনের মন্তব্য অত্যন্ত লজ্জাজনক।’’

Advertisement



প্রিয়ঙ্কার টুইট।

প্রিয়ঙ্কা আরও লেখেন, ‘‘মুম্বই পুলিশের নিরাপত্তায় এবং মুম্বই পুলিশের গাড়িতেই চারদিকে ঘুরে বেড়ান। জোর করে মুম্বই পুলিশকেই নিজের বেসুরো গান শুনতে বাধ্য করেন। অন্য ব্যাঙ্ক থেকে অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কে মুম্বই পুলিশের স্যালারি অ্যাকাউন্ট সরিয়ে আনেন। কিন্তু সামনেই যেহেতু বিহারে নির্বাচন, তাই বিহার পুলিশের ব্যর্থতা ঢাকতে মুম্বই পুলিশের নামে কুৎসা রটানো হচ্ছে।’’

লঞ্চের কিনারায় বিপজ্জনক ভাবে পা ঝুলিয়ে বসে রয়েছেন অমৃতা, এমন একটি পুরনো ছবি তুলে ধরে তাঁকে আক্রমণ করেন ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টির (এনসিপি) মুখপাত্র অদিতি নালাওড়েও। তাঁর কথায়, ‘‘ওঁর ভোলা উচিত নয় যে, লঞ্চের ধারে যখন বিপজ্জনক ভাবে পা ঝুলিয়ে বসেছিলেন উনি, তখন মুম্বই পুলিশ ওঁর পাহারায় মোতায়েন ছিল মুম্বই পুলিশ।’’ যে বেসরকারি ব্যঙ্কে অমৃতা কর্মরত, সেখানে মুম্বই পুলিশের স্যালারি অ্যাকাউন্ট সরিয়ে নিয়ে যাওয়াই তাঁর এক মাত্র লক্ষ্য ছিল বলেও মন্তব্য করেন অদিতি।

আরও পড়ুন: এইচ-১বি ভিসা নির্দেশে সই ট্রাম্পের, সমস্যায় পড়বেন ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীরা​

পশ্চিম ভারতে অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের কর্পোরেট হেড তথা ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে কর্মরত অমৃতা ফড়ণবীস। ওই ব্যাঙ্কে মুম্বই পুলিশের স্যালারি অ্যাকাউন্ট সরিয়ে নিয়ে যাওয়া নিয়ে আগেও আক্রমণের মুখে পড়েছেন দেবেন্দ্র ফড়ণবীস। যদিও অমৃতার দাবি, তাঁর সঙ্গে দেবেন্দ্রর বিয়ের আগেই মুম্বই পুলিশের স্যালারি অ্যাকাউন্ট ওই ব্যাঙ্কে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে রাজনৈতিক মন্তব্য করেও এর আগে একাধিক বার সমালোচনার মুখে পড়েন অমৃতা। গত বছর উদ্ধব ঠাকরেকে নিশানা করে তিনি লেখেন, ‘‘পদবী ঠাকরে হলেই কেউ সত্যিকারের ঠাকরে হওয়া যায় না।’’ শিবসেনা-এনসিপি এবং কংগ্রেস ঐক্যবদ্ধ হওয়ায়, দেবেন্দ্র ফড়ণবীসকে মুখ্যমন্ত্রীর পদ ছেডে় দিতে হলেও অমৃতার দাবি, তাঁরা ফের ক্ষমতায় ফিরবেনই।



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement