Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

মহা-নাটকের যবনিকা পতন, রাজ্যপালের কাছে ইস্তফা দিয়ে এলেন দেবেন্দ্র ফডণবীস

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ২৬ নভেম্বর ২০১৯ ১৪:৪৮
রাজ্যপালকে পদত্যাগপত্র দিলেন দেবেন্দ্র ফডণবীস। ছবি: টুইটার থেকে

রাজ্যপালকে পদত্যাগপত্র দিলেন দেবেন্দ্র ফডণবীস। ছবি: টুইটার থেকে

জল্পনাই সত্যি হল। শপথ নেওয়ার মাত্র চার দিনের মাথায় মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিলেন দেবেন্দ্র ফডণবীস।

মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠকে ইস্তফার ঘোষণা করে ফডণবীস বলেন, ‘‘মহারাষ্ট্রের মানুষ আমাদের পক্ষেই রায় দিয়েছিলেন। বিজেপি-শিবসেনা জোটের পক্ষেই ছিল জনতার রায়। রাজ্যপাল সরকার গঠনের জন্য় আমাদের ডেকেছিলেন। কিন্তু শিবসেনা আলোচনায় কোনও আগ্রহ দেখায়নি। সেই কারণেই সরকার গঠন হয়নি।’’

শনিবার রাতারাতি শিবির পাল্টে বিজেপিতে ভিড়ে যাওয়ায় অজিত পওয়ারের সমর্থনে ভর করে মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিয়েছিলেন ফডণবীস। কিন্তু মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরে উপমুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেন অজিত পওয়ার। এর পরই বিজেপি বুঝে যায় আর সংখ্যা জোগাড় করা সম্ভব নয়। তার পরই ইস্তফার সিদ্ধান্ত হয়। ফডণবীস সাংবাদিক সম্মেলনেও সে কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, অজিত পওয়ার ইস্তফা দেওয়ায় আমাদের কাছে আর সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই। আমরা ঘোড়া কেনাবেচা করতে চাইনি। তাই আমি পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’’ পরে রাজভবনে গিয়ে রাজ্যপালকে পদত্যাগপত্র দিয়ে আসেন ফডণবীস।

Advertisement

একই সঙ্গে এ দিন ফডণবীস জানান, তাঁরা বিরোধীর ভূমিকাতেই থাকবেন। তবে একই সঙ্গে গত পাঁচ বছরে যে তাঁর নেতৃত্বে সরকার মহারাষ্ট্রে ভাল কাজ করেছে, সে কথাও এ দিন উল্লেখ করেন ফডণবীস।

যা বললেন ফডণবীস:

• আমরা গত পাঁচ বছরে শহরে, গ্রামে যে কাজ করেছি, তা উল্লেখযোগ্য

• আমরা দায়িত্বশীল বিরোধীর ভূমিকা পালন করব

• এই তিন দল কখনওই একমুখী হতে পারবে না

• কিন্তু এটা এমন একটা গাড়ি, যেটা তিন দিকে টানছে

• তিন দল মিলে সরকার গঠনের চেষ্টা করছে

• সেটাই করা হয়েছে, তাই ইস্তফা দিচ্ছে

• বিজেপি প্রথম থেকেই ঠিক করেছিল, ঘোড়া-কেনাবেচা করবে না

• রাজ্যপালের কাছে গিয়ে পদত্যাগপত্র দেব

• দায়িত্বশীল বিরোধী দল হিসেবেই কাজ করব

• আমরা মানুষের জন্য কাজ করে যাব

• সেই কারণেই আমিও ইস্তফা দেব

• অজিত পওয়ার ইস্তফা দেওয়ার পর আমাদের কাছে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই

• তিনি আমাদের সমর্থন করেছিলেন, তার ভিত্তিতেই ঘটনাপ্রবাহ এগিয়েছে

• অজিত পওয়ার এনসিপির পরিষদীয় দলনেতা

• উল্টে শিবসেনা নেতারা দর কষাকষি শুরু করেছিলেন

• কিন্তু শিবসেনা আমাদের সঙ্গে কথা বলেনি

• রাজ্যপাল আমাদের সরকার গঠনের জন্য ডেকেছিলেন

• ভোটের আগে আমরা কোনও প্রতিশ্রুতি দিইনি শিবসেনাকে

• রাজ্যের মানুষ বিজেপি-শিবসেনা জোটের পক্ষে রায় দিয়েছেন

• মহারাষ্ট্রের মানুষ আমাদের ভোট দিয়েছেন

​​আরও পড়ুন: মহারাষ্ট্রে কালই আস্থাভোট, গোপন ব্যালট নয়, হবে সরাসরি সম্প্রচার, রায় সুপ্রিম কোর্টের

আরও পডু়ন: ফের মহা নাটক, আচমকা উপ মুখ্যমন্ত্রী পদে ইস্তফা অজিতের

আগামিকাল বিধানসভায় আস্থাভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিতে হবে দেবেন্দ্র ফডণবীসকে। সুপ্রিম কোর্ট সকালে এই রায় দেওয়ার পরেই শুরু হয় চূড়ান্ত তৎপরতা। সকালের দিকেই ফডণবীসের বাড়িতে বৈঠকে বসে দলের কোর কমিটি। তার মধ্যে আবার ফডণবীসের সঙ্গে দেখা করে আসেন অজিত পওয়ারও।

মঙ্গলবারই সুপ্রিম কোর্ট রায় দেয়, বুধবার বিধানসভায় আস্থা ভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিতে হবে ফডণবীস সরকারকে। অতি দ্রুত প্রোটেম স্পিকার নিয়োগ করে আস্থাভোট প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করার নির্দেশও দেয় শীর্ষ আদালত। শীর্ষ আদালতের তিন বিচারপতির বেঞ্চের নির্দেশ প্রোটেম স্পিকারই বিধায়কদের শপথ বাক্য পাঠ করাবেন এবং তিনিই আস্থা ভোট পরিচালনা করবেন।

শীর্ষ আদালতের এই রায়ের পরেই বিজেপি শিবিরে শুরু হয় চূড়ান্ত তৎপরতা। তড়িঘড়ি নিজের বাড়িতে দলের কোর কমিটির বৈঠক ডাকেন ফডণবীস। অন্য দিকে দিল্লিতে বৈঠকে বসেন নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহ। সেখানেও পরবর্তী রণকৌশল স্থির হয়। কিন্তু তার মধ্যেই উপমুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেন অজিত পওয়ার।

আরও পড়ুন

Advertisement