Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
NCRTC

উন্নয়নের বদলে কেন বিজ্ঞাপনে ব্যয় সরকারি কোষাগারের টাকা? কেজরীকে ভর্ৎসনা সুপ্রিম কোর্টের

মুখ্যমন্ত্রী কেজরীর উদ্দেশে বিচারপতির প্রশ্ন, ‘‘আপনি বিজ্ঞাপনের জন্য বাজেটে ৪০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করতে পারেন, কিন্তু এই প্রকল্পের জন্য ৪০০ কোটি টাকা করতে পারবেন না?’’

গ্রাফিক: সনৎ সিংহ।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৮ নভেম্বর ২০২৩ ১৬:৩৩
Share: Save:

অভিযোগ উঠেছিল কয়েক বছর আগেই। এ বার তাতে কার্যত সায় দিল শীর্ষ আদালত। উন্নয়নের কাজে খরচ না করে সরকারি কোষাগারের কোটি কোটি টাকা বিজ্ঞাপনে খরচ করার জন্য দিল্লির আম আদমি পার্টি (আপ)-র সরকারকে মঙ্গলবার ভর্ৎসনা করেছে সুপ্রিম কোর্ট।

মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়ালের সরকার হরিয়ানার পানিপত এবং রাজস্থানের অলওয়ারের মধ্যে নির্মীয়মাণ ‘আঞ্চলিক র‌্যাপিড ট্রানজিট সিস্টেম’ (আরআরটিএস) রেল করিডরে তহবিল বরাদ্দ না করায় উষ্মা প্রকাশ করেছেন বিচারপতি সঞ্জয় কিসান কউল। মুখ্যমন্ত্রী কেজরীর উদ্দেশে তাঁর প্রশ্ন, ‘‘আপনি বিজ্ঞাপনের জন্য বাজেটে ৪০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করতে পারেন, কিন্তু এই প্রকল্পের জন্য ৪০০ কোটি টাকা করতে পারবেন না?’’

আরআরটিএস করিডর প্রকল্পের তহবিলে দিল্লি সরকার অর্থ না দেওয়ায় গত সপ্তাহে উষ্মা প্রকাশ করেছিল বিচারপতি কউল এবং বিচারপতি সুধাংশু ধুলিয়ার বেঞ্চ। চার দিনের মধ্যে ৪১৫ কোটি টাকা নির্মাণকারী সংস্থা এনসিআরটিসি (ন্যাশনাল ক্যাপিটাল রিজিয়ন ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশন)-কে মেটানোর নির্দেশও দেওয়া হয়েছিল। সেই নির্দেশ মেনে গত ২৪ নভেম্বর এনসিআরটিসি কর্তৃপক্ষকে টাকা দেওয়া হয়েছে বলে দিল্লি পরিবহণ দফতর শীর্ষ আদালতকে জানিয়েছে।

রাজধানী দিল্লির আশপাশের এলাকায় ট্রেন চালানোর জন্য কেন্দ্রের সঙ্গে দিল্লি, হরিয়ানা, রাজস্থান এবং উত্তরপ্রদেশ সরকারে যৌথ উদ্যোগে তৈরি হয়েছিল এনসিআরসিটিসি। এর নেতৃত্বে রয়েছে কেন্দ্রের নগরোন্নয়ন মন্ত্রক। ১৯৫৬ সালের কোম্পানি আইন অনুযায়ী এই সংস্থা তৈরি হয় ২০১৩ সালে। ন্যাশনাল ক্যাপিটাল রিজিয়ন (এনসিআর) দিল্লি, ফরিদাবাদ, গাজিয়াবাদ, গুরুগ্রাম, নয়ডার মতো শহরের বাসিন্দাদের দ্রুত গতির রেল পরিষেবা দিতেই এই সংস্থা তৈরি হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, কেজরী সরকারের বিরুদ্ধে আগেও অনেক বার সরকারি কোষাগারের অর্থ নির্বিচারে বিজ্ঞাপনের প্রচারে খরচ করার অভিযোগ উঠেছে। ২০১৬ সালে আদালত নিযুক্ত বিবি টন্ডন কমিটির রিপোর্টে অভিযোগ করা হয়েছিল, বিভিন্ন রাজ্যের সংবাদপত্রে দিল্লি সরকারের বর্ষপূর্তিতে একাধিক বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল। সে জন্য সরকারের কোষাগার থেকে টাকা খরচ হলেও, বিজ্ঞাপনে সরকারের কাজকে শাসকদল আপের সাফল্য হিসেবে তুলে ধরা হয়। কমিটি মত দিয়েছিল, কেজরী সরকারের ওই কাজ সুপ্রিম কোর্টের আদেশের বিরোধী। তাই কমিটি সুপারিশে জানিয়েছিল, বিভিন্ন সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দিতে দিল্লি সরকারের যে পরিমাণ টাকা খরচ হয়েছে সেই টাকা ফেরত দিতে হবে আম আদমি পার্টি (আপ)-কে। এ ছাড়া যাঁদের নির্দেশে ওই ধরনের বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছিল ওই কমিটি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE