Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

প্রশান্তের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা গেল নতুন বেঞ্চে

সুপ্রিম কোর্টে প্রশান্তের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার দু’টি মামলা রয়েছে। ২০০৯ সালে এক বিচারপতিকে ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ বলায় প্রথম মামলাটি হয়।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৫ অগস্ট ২০২০ ১৩:২৪
Save
Something isn't right! Please refresh.
আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ— ফাইল চিত্র।

আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ— ফাইল চিত্র।

Popup Close

সুপ্রিম কোর্টে আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণের বিরুদ্ধে ২০০৯ সালের আদালত অবমাননার ফৌজদারি মামলার শুনানি পিছিয়ে গেল। বিচারপতি অরুণ মিশ্রের বেঞ্চ মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের কাছে মামলাটি শুনানির জন্য অন্য বেঞ্চে পাঠানোর সুপারিশ করেন। প্রধান বিচারপতি নতুন বেঞ্চ গঠনের পরে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর মামলাটি শুনানির জন্য তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

বিচারপতি অরুণ মিশ্র আজ বলেন, ‘‘আমি আর বেশি দিন দায়িত্বে। নেই এই মামলাটি বিশদে শুনানির জন্য দিনে পাঁচ-ছ’ঘণ্টা সময় প্রয়োজন। প্রশান্তের আইনজীবী রাজীব ধওয়ান আজ বলেন, ‘‘২০০৯ সালে একটি সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আমার মক্কেল বিচারপতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে আদালত অবমাননা করেছেন কি না, সাংবিধানিক বেঞ্চেই তার শুনানি হওয়া উচিত।’’

এদিন শুনানিপর্বে বিচারপতির মিশ্রের বেঞ্চ বলে, ‘‘প্রশ্নটি শাস্তির নয়, প্রতিষ্ঠানের বিশ্বাসযোগ্যতার। মানুষ ন্যায়বিচার পাওয়ার ভরসায় আদালতে আসেন। যখন সেই বিশ্বাসের ভিত্তিতে আঘাত লাগে, তখনই সমস্যার সৃষ্টি হয়।’’

সুপ্রিম কোর্টে প্রশান্তের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার দু’টি মামলা রয়েছে। তহেলকায় দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে এক বিচারপতিকে ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ বলেছিলেন প্রশান্ত। সেই মন্তব্যের জেরে ২০০৯ সালে প্রথম মামলাটি হয়। এ ছাড়া, বিচারপতিদের সম্পর্কে ওই আইনজীবীর করা দু’টি টুইট নিয়ে চলতি বছর দ্বিতীয় মামলাটি হয়। দু’টি ক্ষেত্রেই স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মামলা করে শীর্ষ আদালত।

Advertisement

দ্বিতীয় মামলায় গত ১৪ অগস্ট দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে প্রশান্ত ভূষণকে। প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে নাগপুরে একটি বিখ্যাত ব্র্যান্ডের মোটরবাইকে চড়ে রয়েছেন— এমন একটি ছবি সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছিল। এর পরে সর্বোচ্চ আদালতের কাজকর্ম নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে ভূষণ টুইটে লেখেন, ‘‘এ সব দিকে নজর না-দিয়ে প্রধান বিচারপতি দামী মোটরবাইকে চড়ছেন।’’ প্রধান বিচারপতির মাথায় হেলমেট নেই কেন, সেই প্রশ্নও তোলেন ভূষণ। দ্বিতীয় একটি টুইটেও সর্বোচ্চ আদালতের কাজ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন প্রবীণ এই আইনজীবী।

আরও পড়ুন: কাল বাঁচতে হলে আজ সরব হতেই হবে, ডাক প্রশান্তের

বিচারপতি অরুণ মিশ্রের বেঞ্চ দোষী সাব্যস্ত করার পরে প্রশান্তকে তাঁর ‘অবস্থান’ পুনর্বিবেচনা ও ক্ষমাপ্রার্থনার জন্য ২৪ অগস্ট পর্যন্ত সময় দিয়েছিল। কিন্তু প্রশান্ত ক্ষমা চাইতে অস্বীকার করেন। গতকাল তিনি বলেন, ‘‘ক্ষমতার স্পর্ধার সামনে দাঁড়িয়েই আজ আমাদের কথা বলতে হবে। তার জন্য যা পরিণাম ভুগতে হয়, হবে! তা না হলে কাল আর কিছু বাঁচানোর জন্য পড়ে থাকবে না।’’

আরও পড়ুন: ‘সাংবিধানিক বেঞ্চেই বিচার হোক আদালত অবমাননার’​

ওই মামলার দোষী সাব্যস্ত হলেও প্রশান্তের কী শাস্তি হবে, সে ব্যাপারে রায় এখনও আসেনি। তবে সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি কুরিয়েন জোসেফ বলেছেন, ‘প্রশান্তের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার ফৌজদারি মামলার শুনানি সাংবিধানিক বেঞ্চের সামনে হওয়া উচিত।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement