দেশে-বিদেশে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালনের পরিকল্পনা করেছে শেখ হাসিনা সরকার। আনুষ্ঠানিক ভাবে সেই কর্মসূচি শুরুর আগেই ভারতের কলকাতা, আগরতলা, শিলং এবং গুয়াহাটিতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে শেখ মুজিবের জীবন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে তাঁর ভূমিকা এবং রাষ্ট্রগঠন সম্পর্কে তাঁর ভাবনা মানুষের কাছে নিয়ে যেতে একগুচ্ছ পরিকল্পনা নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। তিন শহরে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে হাজির থাকতে পাঁচ দিনের ভারত সফরে আসছেন বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। বাংলাদেশের বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে খবর, সাংবাদিক ও বিশিষ্ট জনেদের একটি প্রতিনিধি দলও আসছে তাঁর সঙ্গে।

বাংলাদেশ বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, শেখ মুজিবের জন্মশতবার্ষিকীতে ১৬টি দেশে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের কর্মসূচি নিতে চলেছে হাসিনা সরকার। সেই পরিকল্পনায় ভারত ও কলকাতা অবশ্যই বাড়তি গুরুত্ব পেতে চলেছে। শেখ মুজিবের ছাত্রজীবন এবং তাঁর রাজনীতির হাতেখড়ি কলকাতায়। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে স্বাধীনতার লড়াইয়ে ত্রিপুরার আগরতলা ও অসমের গুয়াহাটিও বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছিল। তাই হাসিনা সরকার চাইছে জন্মশতবার্ষিকীর কর্মসূচির আগেই বিভিন্ন অনুষ্ঠানে এই তিন শহরে মুজিব চর্চা শুরু হোক। 

এই উদ্দেশ্যে ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে কলকাতার আইসিসিআর-এ শুরু হচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ বিষয়ে চিত্র প্রদর্শনী। তথ্যমন্ত্রী এই প্রদর্শনীর সূচনার আগে পশ্চিমবঙ্গের সংবাদ মাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রতিবেদন নিয়ে একটি বইয়ের উদ্বোধন করবেন। বেকার হস্টেলে শেখ মুজিব যে ঘরে থাকতেন, সেখানে তাঁর মূর্তিতে শ্রদ্ধা জানাবেন মন্ত্রী।