• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিশ্বে মৃত ৫ লক্ষ, রোজ ‘রেকর্ড’ আমেরিকায়

Coronavirus
ছবি রয়টার্স।

করোনা সংক্রমণের দৈনিক রেকর্ড ভাঙল আমেরিকার পাঁচটি প্রদেশে। যার ফলে আগামী সপ্তাহে কাজে ফেরার পরিকল্পনা থাকলেও তা বাতিল করল ফ্লরিডা ও টেক্সাস। রবিবার দেশ জুড়ে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২৫ লক্ষ ৯৭ হাজার ৪০০-র কাছাকাছি। আমেরিকার দক্ষিণ ও পশ্চিম প্রান্তে সংক্রমণের মাত্রা খুব বেশি হওয়ায় নির্বাচনী প্রচারের পরিকল্পনা বাতিল করলেন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। করোনায় গোটা বিশ্বে মৃত্যু ছাড়াল ৫ লক্ষ।

শনিবার ফ্লরিডায় নতুন করে সাড়ে ৯ হাজার মানুষ সংক্রমিত হন ২৪ ঘণ্টায়। অরিজ়োনায় আক্রান্ত হন সাড়ে তিন হাজার। সূত্রের খবর, এই দুই জায়গায় আগামী সপ্তাহে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হয়ে প্রচারে যাওয়ার কথা ছিল মাইক পেন্সের। যা বাতিল করা হয়েছে বলে হোয়াইট হাউস সূত্রে খবর। সংক্রমণের মাত্রা বাড়ায় আপাতত ব্যবসা-বাণিজ্য চালু করার যে পরিকল্পনা ছিল তা-ও স্থগিত রাখা হচ্ছে। দু’মাস বাদে হোয়াইট হাউসে করোনাভাইরাস টাস্ক ফোর্সের প্রথম বৈঠকে, শুক্রবারই করোনা-দলের প্রধান অ্যান্টনি ফাউচি বলেন, ‘‘গুরুতর বিপদের মধ্যে রয়েছে এ দেশ।’’ তাঁর বক্তব্য, ‘একটু বেশি তাড়াতাড়িই’ সব চালু করার চেষ্টা করায় এই বিপত্তি। তা ছাড়া বহু মানুষই বিধি মানছেন না বলে অভিযোগ তাঁর। পরিস্থিতি বিচার করে আপাতত গৃহবন্দিই থাকতে বলা হচ্ছে টেক্সাস, ফ্লরিডা, অরিজ়নার বাসিন্দাদের। ফ্লরিডার বারগুলিতে বসে সুরাপান বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন গভর্নর। টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবটও নির্দেশ দিয়েছেন বারগুলি বন্ধ রাখার। রেস্তরাঁগুলির ভিতরে বসার আসনও ৫০ শতাংশ ফাঁকা রাখতে বলা হয়েছে।

শনিবার ধরলে আমেরিকায় পর পর তিন দিন দৈনিক নয়া সংক্রমণ ৪০ হাজার ছাড়িয়েছে। সাউথ ফ্লরিডা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্রমক অসুখ বিষয়ক বিভাগের ডিরেক্টর কামি কিমের বক্তব্য, লকডাউন উঠতে না উঠতেই নেতারা এমন হাবভাব শুরু করলেন যেন করোনা-যুদ্ধে জয় এসেই গিয়েছে। বড় সংখ্যক রাজনৈতিক নেতা মানতেই রাজি নন কোনও বিপদ রয়েছে। তাঁর কথায়, ‘‘দুর্ভাগ্যের বিষয় আমার প্রদেশের মানুষ এখনও এর ভয়াবহতা বুঝছেন না। কেউ মাস্ক পর্যন্ত পরছেন না।’’ 

বিশ্বে করোনা
মৃত ৫,০২,৯৮৬
আক্রান্ত ১,০১,৮৬,৪১০
সুস্থ ৫৫,১৩,৭০৮

রবিবার গোটা বিশ্বে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ছাড়িয়ে গিয়েছে। নতুন করে ফের সংক্রমণ শুরু হওয়ায় আশঙ্কা বাড়ছে চিনে। বেজিংয়ে শতাধিক বাসিন্দা সংক্রমিত হওয়ার পরে রবিবার সম্পূর্ণ লকডাউন জারি করা হয়েছে বেজিং থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে হুবেই প্রদেশের আনসিন কাউন্টিতে। বছরের শুরুতে উহানে যে ধরনের কড়াকড়ি করা হয়েছিল সেই একই ভাবে ‘তালাবন্দি’ ৫ লক্ষ মানুষ। শুধুমাত্র খাবার ও ওষুধ কিনতে বাইরে বেরোতে পারবেন প্রতি পরিবারের এক জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ জন আক্রান্ত হওয়ায় মোট সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩১১। এরই মধ্যে কোনও দিকে ফাঁক না রেখে ব্যাপক হারে পরীক্ষা চালাচ্ছে চিন। বেজিংয়ের এক কর্তার কথায়, ‘‘এখন অবকাশের সময় নেই।’’ 

সংক্রমণের মাত্রা কোনও কোনও জায়গায় বাড়ায় বেছে বেছে সেই অঞ্চলগুলিতে লকডাউন চালু করার পরিকল্পনা করেছে ব্রিটেন সরকার। সার্বিক ভাবে কোভিডে-১৯-এ দৈনিক মৃত্যুর হার কমায় আগামী ৪ জুলাই থেকে লকডাউন তুলে নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে ইংল্যান্ড। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন