যৌন নিগ্রহে অভিযুক্ত আধিকারিক। অথচ তাঁর সঙ্গেই ৩০০ কোটি টাকার চুক্তি। সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগলের বিরুদ্ধে এমন চাঞ্চল্যকর অভিযোগ সংস্থারই এক অংশীদারের। জানুয়ারি মাসেই বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছিল। সোমবার ক্যালিফোর্নিয়া উচ্চ আদালতে সেই সংক্রান্ত আরও তথ্য জমা পড়েছে। তাতেই এমন তথ্য উঠে এসেছে বলে দাবি মার্কিন সংবাদপত্র ‘দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস’-এর। যে অ্যালফাবেট আইএনসি সংস্থার অধীনে রয়েছে গুগল, তাদের বোর্ড অব ডিরেক্টরসদের বিরুদ্ধে দায়িত্বজ্ঞান বিসর্জন দিয়ে ওই চুক্তি করার অভিযোগ আনা হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে।

ভারতে জন্মগ্রহণকারী অমিত সিঙ্ঘল গুগলের প্রাক্তন ভাইস প্রেসিডেন্ট। তাঁকে ঘিরেই যাবতীয় বিতর্ক। দীর্ঘ ১৬ বছর গুগল সার্চের ব্যবসায়িক বিভাগের দায়িত্বে ছিলেন তিনি। যৌন নিগ্রহের অভিযোগ মাথাচাড়া দিলে ২০১৬-র ফেব্রুয়ারি মাসে ইস্তফা দেন তিনি। সে সময় মোটা টাকার বিনিময়ে গুগল কর্তৃপক্ষ তাঁর সঙ্গে বিদায়ী চুক্তি স্বাক্ষর করেন বলে অভিযোগ।

সোমবার ক্যালিফোর্নিয়া উচ্চ আদালতে যে সমস্ত নথিপত্র জমা পড়েছে, তা থেকে জানা গিয়েছে, সংস্থার এক মহিলা কর্মী অমিত সিঙ্ঘলের বিরুদ্ধে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ এনেছিলেন। তার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হলে দেখা যায়, ঘটনার সময় মত্ত ছিলেন তিনি। পরিস্থিতি দেখে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানো এবং সমাজসেবামূলক কাজে মনোযোগ দেওয়ার কারণ দেখিয়ে আচমকাই সংস্থা থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন অমিত সিঙ্ঘল। সেই মতো ২০১৬-র ফেব্রুয়ারিতে গুগল থেকে ইস্তফা দেন। সেই সময় তাঁর সঙ্গে বিশেষ বিদায়ী চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় সংস্থার, যার আওতায় পরবর্তী দু’বছর তাঁকে ১ কোটি ৫০ লক্ষ ডলার করে দিতে সম্মত হয় গুগল। অন্য কোনও প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থায় নিযুক্ত না হওয়া পর্যন্ত, তৃতীয় বছরেও তাঁকে ৫০ লক্ষ থেকে ১ কোটি ৫০ লক্ষ ডলার পর্যন্ত দেওয়া হবে বলে স্থির হয়। সবমিলিয়ে ভারতীয় মুদ্রায় যা ৩০০ কোটি টাকার বেশি।

আরও পড়ুন: মিমি-নুসরতকে মাঠে নামিয়ে বড় চমক মমতার, বাদ সন্ধ্যা-তাপস, কমল তারকার সংখ্যাও​

সেই চুক্তির এক বছর পর অ্যাপ ক্যাব সংস্থা উবর-এ যোগ দেন অমিত সিঙ্ঘল। উবর-এ যোগ দেওয়ার সময় যৌন নিগ্রহের অভিযোগ চেপে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ২০১৭ সালে আমেরিকা জুড়ে যৌন নিগ্রহের প্রতিবাদে #মিটু আন্দোলন শুরু হলে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগও জনসমক্ষে চলে আসে। তড়িঘড়ি তাঁকে বহিষ্কার করে উবর। ততদিনে গুগলের কাছ থেকে ১০০ কোটি টাকা পেয়ে গিয়েছেন অমিত। সম্প্রতি যা জানতে পারেন গুগলের এক অংশীদার। নিজের আইনজীবী ফ্র্যাঙ্ক বটিনির মাধ্যমে আদালতে মামলা করেছেন তিনি। যৌন নিগ্রহে অভিযুক্ত সিঙ্ঘলের সঙ্গে কোন যুক্তিতে অত টাকার চুক্তি করা হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ফ্র্যাঙ্ক বটিনি। দায়িত্বজ্ঞান বিসর্জন না দিলে যৌন নিগ্রহে অভিযুক্ত অমিত সিঙ্ঘলের সঙ্গে অ্যালফাবেটের বোর্ড অব ডিরেক্টরস ওই চুক্তি করতেন না বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

গুগলের তরফে এ নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও বিবৃতি দেওয়া হয়নি। তবে মার্কিন সংবাদমাধ্যমে সংস্থার মুখপাত্র জানান, ওই ঘটনার পর সংস্থার অন্দরে বেশ কিছু পরিবর্তন ঘটানো হয়েছে। কড়া বিধিনিষেধ আনা হয়েছে ক্ষমতার অপব্যবহার রুখতে।

আরও পড়ুন: ৮ সাংসদ বাদ, মমতার প্রার্থীতালিকায় এ বারও বেশ কিছু চমক​

তবে শুধুমাত্র অমিতই নন, এর আগে যৌন নিগ্রহে অভিযুক্ত অ্যান্ডি রুবিনের সঙ্গেও গুগল ৯ কোটি মার্কিন ডলারের বিদায়ী চুক্তি স্বাক্ষর করে। ভারতীয় মুদ্রায় যা ৬০০ কোটি টাকারও বেশি। ২০১৮ সালে ‘দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস’-ই বিষয়টি সামনে আনে। যার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সরব হন গুগল কর্মীরাই। বহু মহিলা গুগল ছেড়ে বেরিয়ে যান। বাধ্য হয়ে কর্মক্ষেত্রে মহিলাদের নিরাপত্তা সংক্রান্ত নিয়মাবলীতে বেশ কিছু পরিবর্তন ঘটানো হয়।

(আন্তর্জাতিক স্তরের বাছাই করা ঘটনাগুলো নিয়ে বাংলায় খবর জানতে পড়ুন আমাদের আন্তর্জাতিক বিভাগ।)