সুমাত্রার একটি চিড়িয়াখানায় বেশ কয়েক বছর ধরে রয়েছে ১১ বছর বয়সী বাঘ ফ্যাবি। কম বয়সী এই ছটফটে বাঘটি চিড়িখানার অন্যতম আকর্ষণ।

সম্প্রতি চিড়িয়াখানার কর্মীরা লক্ষ করেন, ঠিক মতো খাবার খাচ্ছে না ফ্যাবি। প্রথমে তাঁরা ভেবেছিলেন হয়তো শরীরটা ঠিক নেই ফ্যাবির। কিন্তু কয়েক দিন লক্ষ করার পর তাঁরা দেখতে পেলেন মাংসের টুকরো দিলেই ছুটে আসছে সে। কিন্তু মুখে নেওয়ার পর আর ছিঁড়ে খেতে পারছে না।

তখন ফ্যাবিকে পরীক্ষার জন্য খবর যায় পশু চিকিত্সকদের কাছে। তাঁরা এসে ফ্যাবিকে পরীক্ষা করে বুঝলেন,তার শরীরে কোনও সমস্যা হয়নি। সমস্যা হয়েছে তার দাঁতে। সে জন্যই ঠিক মতো খাবার খেতে পারছে না সে। কারণ, ক্যানাইন দাঁতে সমস্যা হওয়ায় সে মাংস ছিঁড়ে খেতে পারছে না।

 

আরও পড়ুন: কম খেটে মোটা মাইনের চাকরি পেতে চান? যাবেন এখানে?

ফ্যাবির এই ক্যানাইন প্রায় ৮ সেন্টিমিটার লম্বা। এই দাঁত তুলে ফেলে দেওয়া সম্ভব নয়। তাই চিকিত্সকরা শরণাপন্ন হলেন ‘রুট ক্যানাল’ পদ্ধতির। এই রুট ক্যানাল করার পরেই ফ্যাবি পুরো সুস্থ। দিব্যি মাংস ছাড়িয়ে ভূরিভোজ করছে সে।

বাঘের দাঁতে এই রুট ক্যানাল করার ভিডিয়ো প্রকাশ করেছে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। তারপর থেকে প্রচুর মানুষ দেখেছেন সেই ভিডিয়ো।

আরও পড়ুন: রাজ পরিবারের দুই জায়ের ‘খেয়োখেয়ি’র কারণ ফাঁস করলেন তাঁদের শাশুড়ির প্রিয় বান্ধবী

 

(সারা বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা নিয়েবাংলায় খবরপেতে চোখ রাখুন আমাদেরআন্তর্জাতিকবিভাগে।)