×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ মে ২০২১ ই-পেপার

১৬তম দিন: আজকের যোগাভ্যাস

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১০ এপ্রিল ২০২০ ১১:১৮
এক পদ প্রণামাসন। অলঙ্করণ: শৌভিক দেবনাথ।

এক পদ প্রণামাসন। অলঙ্করণ: শৌভিক দেবনাথ।

এক পদ প্রণামাসন

এক পায়ে দাঁড়িয়ে করা এই আসনটি মূলত শরীরের ভারসাম্য রক্ষার আসন। এই ধরনের ভারসাম্য রক্ষার ভঙ্গীমায় মস্তিষ্কের সেরিবেলাম অংশ উজ্জীবিত হয়। এটি মস্তিষ্কের এমনই একটি অংশ। যা চলাফেরার সময় শরীর কী ভাবে কাজকর্ম করবে তা নিয়ন্ত্রণ করে।

কী ভাবে করব

Advertisement

• ম্যাটের উপর পা জড়ো করে টানটান হয়ে দাঁড়ান। দুই হাত পাশে ঝুলিয়ে রাখুন শিথিল ভাবে। চোখ বন্ধ করে শরীরের ভার দু’পায়ে সমান ভাবে ছড়িয়ে দিন। এ বার চোখ খুলে চোখের সমতলে সোজাসুজি কোনও জিনিসের দিকে তাকান।

• এ বারে ডান পা ভাঁজ করে পায়ের পাতা বাম পায়ের ঊরুতে এমন ভাবে ঠেকিয়ে রাখুন যেন গোড়ালি কুঁচকিতে ঠেকে থাকে। স্বাভাবিক ভাবেই ডান হাঁটু বাইরের দিকে থাকবে।

আরও পড়ুন: মাস্ক মিলছে না, বাড়িতে বানাবেন কী ভাবে?

• এ বার ধীরে ধীরে শ্বাস টানতে টানতে শুরুর পোজিশনে এলে এক রাউন্ড পূর্ণ হল। এই ভাবে পর্যায়ক্রমে ৩–৫ রাউন্ড অভ্যাস করতে হবে।

দ্বিতীয় সংস্করণ

• প্রথম ধাপ অভ্যাস করার পর একই ভাবে কাঁধে হাত রেখে ডান দিকে কোমর ঘুরিয়ে হাঁটু না ভেঙে সামনে ঝুঁকুন। ঘাড়, কোমর, শিরদাঁড়া সবই যেন টানটান থাকে। হাত দুটি থাকবে কাঁধের সমান্তরাল।

• এই ভাবে কিছু ক্ষণ দাঁড়াতে হবে। বাঁ পায়ে ভর দিয়ে শরীরের ভারসাম্য রক্ষা করবেন।

• এ বার দুই হাত প্রণামের ভঙ্গিতে বুকের কাছে জড়ো করুন। এই অবস্থায় কষ্ট না করে যত ক্ষণ সম্ভব দাঁড়িয়ে থাকুন।

• এ বার পা নামিয়ে দাঁড়ান। একই ভাবে বাঁ পা ডান কুঁচকিতে ঠেকিয়ে দাঁড়ান। প্রতি বার ২ মিনিট এই অবস্থায় থাকতে হবে। ডান ও বাঁ পায়ে পর্যায়ক্রমে ৩ বার করে অভ্যাস করুন।

শুরুর দিকে এক পায়ে ব্যালান্স করে দাঁড়াতে অসুবিধে হবে। কিন্তু কয়েক বারের চেষ্টায় আশ্চর্যজনক ভাবে সফল হবেন।

আরও পড়ুন: করোনা-হানা থেকে বাঁচাতে সন্তানকে আদর করার সময় এ সব মেনে চলুন

কেন করব

এক পায়ে দাঁড়িয়ে এই আসন অভ্যাস করলে পায়ের পাতা, গোড়ালি-সহ সমস্ত পায়ের পেশি নমনীয় ও দৃঢ় হয়। স্নায়ুতন্ত্র উজ্জীবিত হয়ে শরীরের ভারসাম্য রক্ষায় অত্যন্ত কার্যকর হয়। সব বয়সের মানুষের জন্যে এই আসনটি অত্যন্ত উপযোগী, এমনকি, খেলোয়াড় এবং যাঁরা ওস্টিওপোরোসিসে ভুগছেন, তাঁদের জন্যেও এক পদ প্রণামাসন অত্যন্ত কার্যকর। শারীরিক ভারসাম্যের সঙ্গে সঙ্গে এই আসন অভ্যাস করলে মানসিক ভাবে অবিচল থাকার শক্তি ও আত্মবিশ্বাস তৈরি হয়। মানসিক চাপ ও উদ্বেগ দূর করতে এই আসন উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেয়। বয়ঃসন্ধির ছেলেমেয়েরা এই আসন অভ্যাস করলে উল্লেখযোগ্য ভাল ফল পাবে।

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)



Tags:

Advertisement