পুজোর আগে শরীরের অতিরিক্ত মেদ ঝরিয়ে ফেলতে মরিয়া প্রায় প্রত্যেকেই। নিয়মিত শরীরচর্চা, কঠিন ডায়েট, জিম দৌড়নো কিছুই প্রায় বাকি নেই। অনেকে আবার চটজলদি মেদ কমাতে ওষুধের শরণ নিয়ে থাকেন। অথচ আমাদের হাতের কাছেই এমন কিছু সব্জি আছে, যা দিয়ে খুব সহজেই কমিয়ে ফেলা যায় শরীরের মেদ। তার মধ্যে অন্যতম গাজর।

মূলত শীতের সব্জি হলেও আজকাল কম-বেশি সারা বছরই মেলে গাজর। আর এই গাজরের দ্বারাই চটজলদি কমিয়ে ফেলা যায় শরীরের মেদ। পুষ্টিবিদদের মতে, ১০০ গ্রাম গাজরে শর্করা রয়েছে ১০.৬ গ্রাম মতো। তুলনায় ফ্যাটের পরিমাণ প্রায় নেই বললেই চলে, মাত্র ০.২ গ্রাম। কাজেই নিত্য খাদ্যতালিকায় গাজর রাখলে মেদ ঝরবে।

দেখে নিন কী কী ভাবে রোজ মেনুতে যোগ করতে পারেন গাজর।

আরও পড়ুন: হার্ট অ্যাটাকের ভয় পাচ্ছেন? এ সব মেনে চললেই থাকবেন নিশ্চিন্ত

রোগা হতে চেয়েই কি বাড়িয়ে ফেলছেন ওজন? কোথায় হচ্ছে ভুল?

গাজরের স্যালাড: শশা, গাজর, টম্যাটো, পিঁয়াজ দিয়ে স্যালাড তো বানান, দ্রুত ওজন কমাতে সেই স্যালাডেই বাড়িয়ে দিন গাজরের পরিমাণ। অনেকটা গাজর কুঁচিয়ে লেবুর রস ও গোলমরিচ ছড়িয়ে নিয়মিত খান। তবে স্বাদ বাড়াতে স্যালাডে মাখন, মেয়োনিজ বা তেল মেশাবেন না।

গাজরের স্যুপ: গাজর সিদ্ধ করে তা দিয়ে স্যুপ বানিয়ে ফেলুন। হালকা গোলমরিচ, অল্প মাখন যোগ করে এই স্যুপ দিয়ে পেট ভরান দুপুরে বা রাতে। পেট ভরাতে এর সঙ্গে অন্য সব্জিও যোগ করতে পারেন।

গাজরের হালুয়া: সাধারণ উপায়ে যে ভাবে গাজরের সুজি বা হালুয়া বানান, সে ভাবে না বানিয়ে বরং মাখন, চিনি, বাদাম ছাড়া হালুয়া বানান। চিনি ছাড়া হালুয়া খেতে অসুবিধা হলে লঙ্কা ও নুন মেশানো ঝাল সুজির নিয়মেও বানিয়ে ফেলতে পারেন এই হালুয়া। তেলও দিন একেবারে নামমাত্র।