×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

Sexual disorder: ঘুমন্ত অবস্থায় যৌনসঙ্গম? পাঁচটি অদ্ভুত যৌন সমস্যার কথা জেনে নিন

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২১ জুলাই ২০২১ ০৯:২৯
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।
ছবি: সংগৃহীত

সুস্থ স্বাভাবিক যৌন জীবন সকলেরই কাম্য। প্রেম বা বিয়ের সম্পর্কে যৌনসঙ্গম যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গও বটে। কিন্তু যাঁদের অদ্ভুত কিছু যৌন সমস্যা রয়েছে, তাঁরা এই বিষয়ে সারাক্ষণ আতঙ্কে থাকেন। যৌনসঙ্গম যে তাঁদের কাছে খুব একটা সুখকর নয়, তা নিজেরা বুঝতে পারলেও সঙ্গীকে বোঝানো খুব শক্ত হয়ে দাঁড়ায়। এমন অদ্ভুত সমস্যা রয়েছে কিছু মানুষের যার ব্যাপারে অন্যদের কোনও ধারণাই নেই। জেনে নিন তেমনই কিছু সমস্যার কথা।

অফুরন্ত অর্গাজম

অর্গাজম কার না পছন্দ? যৌন মিলনের সময়ে যদি দু’জনেরই অর্গাজম হয়, তা হলে তার চেয়ে আনন্দের বিষয়ে কিছু হতে পারে না। তাই কারও অফুরন্ত অর্গাজম হচ্ছে শুনলে মনে হবে তিনি যেন হাতে চাঁদ পেয়েছেন। কিন্তু রোগটা মোটেই তেমন সুখকর নয়। বরং উল্টোটাই। অনেক মেয়েদের এই সমস্যা থাকে। এই রোগের নাম পারসিস্টেন্ট জেনেটাল অ্যারাউজাল ডিজঅর্ডার। যৌন চাহিদার সঙ্গে এর কোনও সম্পর্ক নেই। তাঁদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে এমন অর্গাজন। হঠাৎ করেই এমন পরিস্থিতি হতে পারে। এবং একের পর এক অর্গাজম হতেই থাকে। শুনতে ভাল লাগলেই শারীরিক ভাবে এটি যথেষ্ট কষ্টদায়ক হয়ে যেতে পারে। হাত-পা স্থির হয়ে যাওয়ারও আশঙ্কা থাকে।

Advertisement

সেক্সোমনিয়া

ঘুমের মধ্যে অনেকেই হেঁটে বেড়ান। সমস্যা গুরুতর হলে ঘুমন্ত অবস্থায় নানা রকম কাজও করে ফেলেন। কিন্তু ঘুমের মধ্যে যাঁরা যৌনসঙ্গম করতে সক্ষম, তাঁদের সমস্যার নাম সেক্সোমনিয়া। রোগটা বেশ গোলমেলে। বিশেষ করে যৌন হেনস্থা নিয়ে আইনি সমস্যায় পড়তে পারেন এই ধরনের মানুষেরা।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।


রেট্রোগ্রেড ইজাকুলেশন

পুরুষদের অর্গাজম হল, অথচ শুক্রাণু বেরোলো না? তা-ও কি সম্ভব। যদিও শরীর যথেষ্ট শুক্রাণু উৎপাদন করছে, কিন্তু তা অর্গাজমের সময়ে মূত্রথলিতে চলে যাচ্ছে। এই রোগের নাম রেট্রোগ্রেড ইজাকুলেশন। এমনিতে চিকিৎসকদের মতে, এই রোগের ফলে খুব একটা শারীরিক জটিলতা হওয়ার কথা নয়। তবে যে দম্পতি সন্তানধারণের চেষ্টা করছেন, তাঁদের জন্য এই রোগ অভিশাপ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

ফাইমোসিস

কোনও টার্টেলনেক শোয়েটার পরার সময়ে অনেকের এক দমবন্ধ অনুভূতি হয়। এই রোগ অনেকটা সে রকমই। তবে কষ্টটা আরও অনেক বেশি। পুরুষদের যৌনাঙ্গের বাইরের ত্বক এতটাই শক্ত হয়ে থাকে যে দেখে মনে হবে যৌনাঙ্গের ঠিক মাথায় একটা রবার ব্যান্ড পরিয়ে রাখা হয়েছে। এই পরিস্থিতি বেশ কষ্টকর। যৌনসঙ্গমেও সাংঘাতিক কষ্ট হতে পারে। তাই চিকিৎসকেরা অস্ত্রপচারের মাধ্যমে এটি বাদ দিয়ে ফেলার উপদেশই দিয়ে থাকেন।

অর্গাজমের পর শারীরিক অসুস্থতা

অর্গাজমের পর সঙ্গীকে জড়িয়ে নিশ্চিন্তে ঘুম? অনেকেরই কাছেই এটা আদর্শ পরিস্থিতি। কিন্তু যাঁদের এই বিরল রোগ রয়েছে, তাঁদের অবস্থা অনেকটাই আলাদা। এই রোগের নাম পোস্ট অর্গাজমিক ইলনেস সিন্ড্রোম। ইজাকুলেশনের ঠিক পরই ফ্লুয়ের মতো উপসর্গ দেখা যায়। জ্বর আসতে পারে। এই রোগের কোনও চিকিৎসা এখনও পাওয়া যায়নি। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য নিজেরই শুক্রাণু আরও পাতলা করে ইনজেকশনের মাধ্যমের শরীরে দেওয়ার চল রয়েছে চিকিৎসামহলে।

Advertisement