• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বাজারে মিলছে দেদার, করোনা আবহে এই ফল খেতে ভুলবেন না

pineapple
এই ফল কয়েক টুকরো খেলেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে। জব্দ হবে ভাইরাসজনিত রোগ। ছবি: শাটারস্টক।

করোনা আবহ। এদিকে বর্ষা। পেটের সংক্রমণও বাড়ছে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোও জরুরি। দূরে রাখতে হবে ক্রনিক সমস্যাগুলিকেও। তবে এই মুহূর্তে বাজারে এমন একটা ফল দেদার বিকোচ্ছে, যেটি রোজ অল্প পরিমাণে খেলেই সুস্থ থাকতে পারবেন আপনি। বাড়বে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও।

সুস্থ থাকতে নিয়মিত ফল খাওয়া প্রয়োজন, এ কথা তো সবাই জানি। আম, জাম, লিচু, জামরুল-সবই পাওয়া যাবে এখন। তবে সব রকম পুষ্টিগুণ পেতে, পেট পরিষ্কার রাখতে পারে শুধুমাত্র একটি ফল। সেটি হল আনারস। কিন্তু কেন আনারস খেতে পরামর্শ দিচ্ছেন পুষ্টিবিজ্ঞানীরা?

আনারসে রয়েছে রোগ প্রতিরোধী অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট। যেগুলি অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কমায়। করোনা আবহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো ছাড়াও কো-মর্বিড ফ্যাক্টরগুলি নিয়ে বার বার সতর্ক করছেন চিকিৎসকরা। এ ছাড়াও লকডাউনে ওজনও অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। তাই লো ক্যালরিযুক্ত এই ফল খেলে ওজনও থাকবে নিয়ন্ত্রণে। এ ছাড়া এই ফলে প্রচুর ফাইবার থাকার কারণে পেটের পক্ষেও এটি উপকারী। ভিটামিন সি, পটাসিয়ামে ভরপুর এই ফল হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বিশেষ উপকারী। তাই রোগ নিয়ন্ত্রণও সম্ভব হবে।

আরও পড়ুন: চশমা পরে বাইরে বেরচ্ছেন? এ সব না মানলেই সংক্রমণের আশঙ্কা​

এই ফলে অনেকগুলো ডাইজেসটিভ এনজাইম বা পাচক উৎসেচক থাকে। এগুলিকে বলা হয় 'ব্রোমেলেইন'। পুষ্টিবিদ সোমা চক্রবর্তী এই প্রসঙ্গে বলেন, "প্রচুর পরিমাণে ফোলেট, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ এই ফল। রয়েছে ম্যাঙ্গানিজও। তাই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এটি। ফেনলিক অ্যাসিড বা ফ্ল্যাভেনয়েড থাকায় এই ফল পুষ্টিগুণে ভরপুর। এ ছাড়াও বর্ষাকালে হজমের একটা সমস্যা দেখা যায়। সে ক্ষেত্রে ব্রোমেলেইন উৎসেচক প্রোটিনের অণুগুলিকে ভেঙে দেয়। ক্ষুদ্রান্ত্রের শোষণে সুবিধা হয়।‘’

আরও পড়ুন: করোনা আবহে ভাইরাল জ্বর-ডেঙ্গি, সেরে গেলেও এ সব না খেলে বিপদ

ব্রোমেলেইন মাংসের প্রোটিনকেও ভাঙতে পারে। প্রদাহ নিয়ন্ত্রণে অর্থাৎ ক্রনিক ইনফ্ল্যামেশন রুখতে সাহায্য করে। প্রচুর জল ও ফাইবার থাকায় কোষ্ঠকাঠিন্যের ক্ষেত্রেও এই ফল খাওয়া যেতে পারে।

 তবে কী পরিমাণে, কতটা এই ফল রোজ খাওয়া যেতে পারে?

১. আনারসের রসের বদলে গোটা ফল খেলে তবেই পুষ্টি সম্পূর্ণ হয়। কারণ রস খেলে ফাইবার থাকে না।

২. একটা গোটা আনারস নয়। বরং রোজ নিয়ন্ত্রিত পরিমাণে খেতে হবে।

৩. নিয়মিত ছোট বাটির এক বাটি অর্থাৎ কয়েক টুকরো আনারস খেলে সহজেই বেশ কিছু রোগের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে।

৪. পাঁচ থেকে ছয় টুকরো আনারস রোজ ডায়েটে রাখলে তা যথেষ্ট উপকারী।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন