Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Narendra Modi

‘৫৬ ইঞ্চি’-খ্যাত মোদীর জন্মদিনে ৫৬ পদের থালি, ৪০ মিনিটে খেতে পারলেই সাড়ে ৮ লক্ষ টাকা ও কেদার ভ্রমণ

নরেন্দ্র মোদীর ৫৬ ইঞ্চি বুকের ছাতি তাঁর অনুগামীদের মধ্যে যথেষ্ট প্রশংসিত। সে কথা মাথায় রেখেই তাঁর জন্মদিনে ৫৬টি পদের থালি চালু করল দিল্লির একটি রেস্তরাঁ।

থালির নামকরণ করা হয়েছে ‘৫৬ ইঞ্চি মোদিজী থালি’।

থালির নামকরণ করা হয়েছে ‘৫৬ ইঞ্চি মোদিজী থালি’। ছবি- সংগৃহীত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৮:১৮
Share: Save:

দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ৭২তম জন্মদিন উপলক্ষে দিল্লির কনট প্লেসের 'আর্ডর ২.১' নামে একটি রেস্তরাঁ ‘৫৬ ইঞ্চি’ নামক একটি থালি চালু করল। নরেন্দ্র মোদীর ৫৬ ইঞ্চি বুকের ছাতি তাঁর অনুগামীদের মধ্যে যথেষ্ট প্রশংসিত। সে কথা মাথায় রেখেই এই থালিতে মোট ৫৬টি পদ রাখা হয়েছে। থালির নামকরণ করা হয়েছে ‘৫৬ ইঞ্চি মোদিজী থালি’।

Advertisement

১৭ সেপ্টেম্বর, শনিবার থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গ্রাহকরা রেস্তরাঁয় এই থালিটি পাবেন। তবে চমকের এখানেই শেষ নয়। খাবারের পাশাপাশি রয়েছে পুরস্কার। ৪০ মিনিটে ৫৬ পদের এই থালি শেষ করতে পারলেই সাড়ে আট লক্ষ টাকা পুরস্কার। সেই সঙ্গে মিলবে কেদারনাথ ভ্রমণের সুযোগও। কেদারনাথ নরেন্দ্র মোদীর প্রিয় গন্তব্যের মধ্যে একটি। গোটা সফরের খরচ বহন করবে রেস্তরাঁ।

তবে এই ৫৬ ভোগের পিছনে অন্য তাৎপর্যও দেখতে পাচ্ছেন অনেকেই। উত্তর ভারতের হিন্দু সমাজে ‘ছপ্পন ভোগ’ শ্রীকৃষ্ণের লীলার সঙ্গে জড়িত। দেবরাজ ইন্দ্রের রোষ থেকে গোকুলের মানুষদের বাঁচাতে কৃষ্ণ টানা সাত দিন গিরি গোবর্ধনকে কড়ে আঙুলে ধারণ করে দাঁড়িয়ে ছিলেন। বিপন্ন গোকুলবাসীরা সেই পর্বতের নীচে আশ্রয় পেয়েছিলেন। সেই সাত দিন গোকুলের মানুষ কৃষ্ণকে প্রতি দিন আটটি করে পদ নিবেদন করতেন। সাত দিনে ৫৬টি পদ খেয়েছিলেন বিষ্ণুর এই অবতার। এখনও উত্তর ভারতের সংস্কৃতিতে ‘ছপ্পন ভোগ’ এক বিশেষ মহিমা ব্যক্ত করে। জন্মাষ্টমীতে কৃষ্ণকে আজও ৫৬ ভোগ নিবেদন করা হয় বহু জায়গায়। মোদীর ৫৬ ইঞ্চি ছাতি আর কৃষ্ণলীলা একত্র করে কোথাও মোদীকে গিরি গোবর্ধনধারীর সঙ্গে মিলিয়ে দেখার চেষ্টা চলছে না তো— প্রশ্ন অনেকেরই। তবে লোকবিশ্বাস অনুসারে, কৃষ্ণের ৫৬ ভোগ ছিল একান্ত ভাবেই নিরামিষ। 'আর্ডর ২.১'-এর আয়োজনে আলাদা করে আমিষ পদের ৫৬ ভোগও থাকছে।

Advertisement

সূত্রের খবর, রেস্তরাঁর থালিতে ২০টি বিভিন্ন ধরনের সব্জি, ডাল, গুলাব জামুন, কুলফির মতো খাবার থাকবে। উত্তর ভারতের ২৬টি খাবারও থাকবে এই থালিতে। দুপুরের নিরামিষ থালির দাম ট্যাক্স বাদ দিয়ে ২৬০০ টাকা। আমিষ থালার নাম ২৯০০ টাকা। রাতের থালি নিলে নিরামিষ এবং আমিষ দু’ক্ষেত্রেই অতিরিক্ত ৩০০ টাকা দিতে হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.