Advertisement
০৪ মার্চ ২০২৪
FAT

শরীরের ওজন বাড়াচ্ছে ফাস্ট ফুড, পেটের মেদ কমান এই সব উপায়ে

অধিক ফ্যাট, গাদা গাদা প্রিজাভেটিভ ও অতিরিক্ত চিনি যোগ করা এই সব খাবারগুলি থেকেই বাড়ছে ওবেসিটি-সহ নানা অসুখ।

ফাস্ট ফুড খাওয়া থেকেই বেড়ে চলেছে ওজন। ছবি: আইস্টক।

ফাস্ট ফুড খাওয়া থেকেই বেড়ে চলেছে ওজন। ছবি: আইস্টক।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৩:৩৩
Share: Save:

স্কুল থেকে ফিরে হোক বা দুটো কোচিংয়ের ফাঁকে পেট ভরানো, সহজেই হাতে উঠে আসছে পিৎজা, বার্গার, নইলে নামী ফুড চেনের ভাজাভুজি। কেবল ছোটরাই নয়, বড়রাও অফিসে কাজ করতে করতে খাওয়া সারতে গেলেও হাতে তুলে নিচ্ছেন ফাস্ট ফুড। খিদে পেলেই ফাস্ট ফুডে পেট ভরানো আজকাল প্রায় সকলের কাছেই সহজ সমাধান হয়ে দাঁড়িয়েছে।

কিন্তু এই সহজ সমাধানেই মিশে আছে বিপদ। অধিক ফ্যাট, গাদা গাদা প্রিজাভেটিভ ও অতিরিক্ত চিনি যোগ করা এই সব খাবারগুলি থেকেই বাড়ছে ওবেসিটি-সহ নানা অসুখ। নাগাড়ে এই সব খাবার খাওয়া থেকেই বেড়ে চলেছে ওজন। অল্প বয়সেই জমছে পেটে ও কোমরের অবাঞ্ছিত মেদ।

তাই ফাস্ট ফুড খাওয়ায় য়েমন রাশ টানতে হবে, তেমনই ন্যূনতম কিছু সময় বার করে শরীরচর্চা করাও জরুরি। সঙ্গে হালকা ডায়েটও প্রয়োজন। কী কী ব্যায়ামে আয়ত্তে আনতে পারেন পেটের মেদ? রইল হদিশ।

আরও পড়ুন: ওজন ঝরিয়ে ছিপছিপে হতে চান? সকালের প্রথম পানীয় হোক এ সব

ক্রাঞ্চ: মাটিতে টানটান হয়ে শুয়ে হাঁটু জোড়া ভাঁজ করুন। পায়ের পাতা মাটিতে ঠেকে থাকবে। হাত জোড়া ভাঁজ করে মাথার পিছনে রাখুন। এর পর পেটের উপর চাপ দিয়ে মাথাকে হাঁটুর দিকে নিয়ে যান। এই পজিশনে ৫ গুনু্ন। তার পর মাথাকে মাটিতে ঠেকান। প্রথম দিকে ১০-১৫ বার করে ৩ টি সেটে করুন। পরে পরিমাণ বাড়ান।

পেট ও কোমরের কোর মাসলকে শক্তিশালী করে তুলতে প্লাঙ্কের জবাব নেই।

প্লাঙ্ক: উপুর হয়ে শুয়ে হাতের তালু ও পায়ের আঙুলের উপর ভর দিয়ে গোটা শরীরটাকে হাওয়ায় ভাসিয়ে দিন। এই অবস্থায় পেটকে টেন ধরে থাকুন ভিতরে। প্রথম দিকে দশ সেকেন্ড ধরে রাখুন। তার পর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসুন। প্রতম দিকে বা অভ্যস্ত না হলে কনুই পর্যন্ত মাটির সঙ্গে ঠেকিয়ে প্লাঙ্ক করুন। অভ্যস্ত হয়ে গেলে হাতের পাতা ও পায়ের পাতা মাটিতে রেখে বাকি শরীরটা হাওয়ায় তুলে দিন। শরীরের ক্যালোরি এতে বেশি খরচ হবে। পেট ও কোমরের কোর মাসলকে শক্তিশালী করে তুলতে প্লাঙ্কের জবাব নেই। প্রায় ২ মিনিট করা যেতে পারে এই প্লাঙ্ক। তবে প্রথম দিকে ২০ সেকেন্ড এই পজিশন ধরে রাখার চেষ্টা করুন।

আরও পড়ুন: কী করে বুঝবেন রক্তে শর্করার পরিমাণ কমে গিয়েছে? বিপদ সামলাবেন কেমন করে?

স্কোয়াট: দুই পায়ের মধ্যে মোটামুটি ১২ ইঞ্চি দূরত্ব রেখে হাত দুটো মুঠো করুন। এ বার চেযারের আকারে অর্থাৎ ‘দ’ হয়ে বসুন। এটি করার সময় পায়ের পেশীতে এবং পেটে টান অনুভব করবেন। প্রথম প্রথম ১০ বার করে ৩ টি করে সেট করুন। পরে তা বাড়িয়ে ১০ টি সেটে নিয়ে যান। এই ব্যায়ামে শরীরের ক্যালোরি বেশি খরচ হয়। তবে হাঁটুক কোনও অসুখ থাকলে স্কোয়াটকে বাদ দিতে হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE