কাঠফাটা গরম মানেই ওষ্ঠাগত প্রাণ আর প্যাচপ্যাচে ঘাম। বাদুড়ঝোলা ভিড় বাস বা ট্রেনে ভিড়ের চাপের থেকেও অসহনীয় হয়ে ওঠে অপরিচিতদের ঘামের গন্ধ।তাই ব্যাগে বডি স্প্রে রাখা ছাড়া উপায় নেই।

কিন্তু এপ্রিল -মে মাসের ঘেমো গরমের সঙ্গে মোকাবিলা করার ক্ষমতা নেই বডি স্প্রে’র। তার উপরে যাঁদের পা ঘামে তাঁদের অবস্থা আরও শোচনীয়।

গ্রীষ্মে রোদ থেকে বাঁচতে পা ঢাকা জুতো পরাই ভাল। কিন্তু পা ঢাকা জুতো পরলে আবার ঘামের সমস্যা রয়েছে। ভাবুন তো, সেজেগুজে কোনও অনুষ্ঠান বাড়িতে গিয়েছেন। সবাই আপনার সাজে মুগ্ধ। কিন্তু জুতো খুলতেই সমস্ত মাটি। ভয়ানক অস্বস্তিকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হয়। কিন্তু এই সমস্যার শিকার অনেকেই। তাই জেনে রাখুন গরমে পা-এর দুর্গন্ধ এড়াবেন কী ভাবে -

নোংরা মোজ পরবেন না।

আরও পড়ুন: ত্বকের সমস্যায় জেরবার? ঘরোয়া উপায়ে এতেই বাজিমাত!​

আরও পড়ুন: কেবল নিজেকে ভালবাসেন আপনার সঙ্গী! কী ভাবে বুঝবেন?​

১) যাঁদের পা বেশি ঘামে, তাঁদের নিয়মিত মোজা পরা উচিত। কিন্তু সেই  মোজা যেন পরিষ্কার হয়। না হলে ঘামের সঙ্গে নোংরা মোজার দুর্গন্ধ মিশে আরও খারাপ পরিণতি হবে।

২) জুতো পরার আগে জুতোয় বডি স্প্রে দিয়ে পাউডার ঢেলে নিন। এতে পা বেশ কিছুক্ষণ শুকনো থাকবে।

৩) প্রতিদিন স্নানের আগে হালকা গরম জলে নুন মিশিয়ে পা ডুবিয়ে রাখুন।

৪) ভিনিগার দেওয়া জলে পা ভিজিয়ে রাখলেও এই সমস্যা দূর হবে।

৫) সপ্তাহে তিনদিন মধুর সঙ্গে চিনি মিশিয়ে একটি স্ক্রাবার তৈরি করুন। এই স্ক্রাবার পায়ে ব্যবহার করুন।

৬) বেকিং সোডার সঙ্গে লেবু মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে পায়ে মাঝে মধ্যেই লাগান। এতে পায়ের দুর্গন্ধ দূর হবে।

৭) বাজারে ফুট ডিওডোরেন্ট পাওয়া যায়। জুতো পরার আগে ব্যবহার করলে ফল পাবেন।

৮) গরমে শরীরকে হাইড্রেটেড রাখা দরকার। এতে ঘামে দুর্ঘন্ধ হয় না। নিয়মিত যথেষ্ট পরিমাণে জল খান।

৯) গরমে পা ঢাকা জুতো পরলেও তা যেন বেশি  চাপা না হয় দেখবেন। এতে ঘাম বেশি হয়।

১০) লেদারের জুতো পরার চেষ্টা করুন গরমে।

ছবি: পিক্সাবে।