×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৭ মে ২০২১ ই-পেপার

ব্যায়ামেই বাড়ুক মনের বিস্তার, নেটমাধ্যমে ভাবনা উস্কে দিলেন অভিনেতা টোটা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৪ মার্চ ২০২১ ১৫:৩১
শরীরচর্চাতে কাটে টোটার সকাল।

শরীরচর্চাতে কাটে টোটার সকাল।
ছবি: ইনস্টাগ্রাম

রোজ কিছু ক্ষণের ব্যায়াম মানুষকে কতটা ভাল রাখতে পারে? শুধু কি শরীরই ভাল রাখে? একেবারেই না। ভাল রাখে মনও। বাড়িয়ে দেয় চিন্তাশক্তি।

এ কথা হয়তো নতুন নয়। তবে সব সময়ে খেয়ালও রাখা হয় না। বরং কাজের চাপ বা মানসিক চাপে পড়ে ব্যায়ামের অভ্যাসে বিঘ্ন ঘটানোর প্রবণতাই দেখা যায়। কিন্তু তা যে কাজের কথা নয়, সে আলোচনা এ বার উস্কে দিল এক টলি-তারকার বক্তব্যই। নিজের ব্যায়াম করার একটি ছবি নেটমাধ্যমে ভাগ করে নিয়েছেন অভিনেতা টোটা রায়চৌধুরী। বারান্দায় দাঁড়িয়ে টানটান ভঙ্গীতে স্ট্রেচ করছেন তিনি। ইনস্টাগ্রামে সেই ছবির সঙ্গে লিখেছেন, ‘স্ট্রেচ’ ইওর ইম্যাজিনেশন। নিজের ভাবনার পরিধি বাড়ান। তা-ও যে বাড়তে পারে একটু ব্যামের দৌলতে, সে কথা মনে করাল অভিনেতার লেখা। শুধু ‘স্ট্রেচ’ শব্দটি নিয়ে একটু খেললেন বলে তিনি।

Advertisement

দিনের শুরুতে বা কাজের মাঝে হাল্কা ‘স্ট্রেচিং’ যে শরীর ঠিক রাখার জন্য জরুরি, তা জানেন সকলেই। কাজের মাঝে অফিসে বসে কী কী ব্যায়াম করে নেওয়া যায় ঝটপট, তা নিয়েও চর্চা হয় যথেষ্ট। কিন্তু মন ভাল রাখতে যে বেশি করে প্রয়োজন রোজের ব্যায়াম, তা নিয়ে আলোচনা সব সময়ে হয় না। ফলে মানসিক চাপ যত বাড়ে, ততই ব্যায়াম করার অভ্যাসও কমতে থাকে। মন স্থির রাখতে, ভাবনা-চিন্তা করার ক্ষমতা বজায় রাখতেও একই ভাবে ব্যায়াম করা প্রয়োজন।


ব্যায়াম নিয়মিত করলে মাথা পরিষ্কার থাকে। তার প্রথম কারণ হল, ব্যায়ামের ক্লান্তিতে ঘুম ভাল হয়। আর ভাল ঘুম অনেক সমস্যার সমাধান করে দিতে পারে। কর্মক্ষমতা বাড়ে। কাজ ভাল হলে বাড়ে আত্মবিশ্বাস। ফলে নতুন ধরনের বিষয় নিয়ে ভাবতে ইচ্ছে করে। এ ভাবেই নিজের চিন্তার পরিধি বাড়ে। এমন লাভ নিজেই পেয়েছেন টোটা। অভিনেতার বক্তব্য, তিনি নিজের প্রয়োজন বুঝে স্ট্রেচ করেন দিনে অন্তত এক বার করে। সঙ্গে বলেন, ‘‘ব্যায়ামের মাধ্যমে শরীর এবং মনের মধ্যে একটা যোগাযোগ তৈরি হয়। দিনে কুড়ি মিনিট একটু শরীরচর্চা করলেও মন খুব ঝরঝরে লাগে। পরিশ্রম করার ইচ্ছে হয়।’’


টোটা যেমন জিমে যাওয়ার বদলে বেশি মাঠে বা নিদেনপক্ষে বারান্দায় ব্যায়াম করতে পছন্দ করেন। তাতে ভাবনার বিস্তার বাড়ে বলে মনে করেন তিনি। মনোরোগ চিকিৎসক অনিরুদ্ধ দেবও এ বিষয়ে একমত। তার বক্তব্য, ব্যায়ামের সময়টা খোলা আকাশের নীচে কাটালে ভাবনার পরিধি বাড়ে। তিনি বলেন, ‘‘ব্যায়াম করলে সারা শরীরের মতো মস্তিষ্কেও রক্তচলাচল বাড়ে। আর তার থেকেই চিন্তাশক্তি বৃদ্ধি পায়।’’ নিয়মিত ব্যায়াম করলে শরীরে এন্ডরফিন নামক একটি রাসায়নিক তৈরি হয়। তা যেমন মন ভাল রাখে, তেমনই কাজে মন দিতে সাহায্য করে।


Advertisement