হিন্দি নিয়ে তীব্র প্রতিবাদ-প্রতিরোধের মধ্যে পিছু হঠলেন অমিত শাহ। বুধবার এক অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন, তিনি কখনও আঞ্চলিক ভষার উপর হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার কথা বলেননি। বুধবার একটি অনুষ্ঠানে অমিত বলেন, তাঁর মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা এবং তা নিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে।

১৪ সেপ্টেম্বর হিন্দি দিবসে অমিত শাহ টুইট করেছিলেন, ‘ভারত বহু ভাষার দেশ এবং প্রতিটি ভাষার আলাদা তাৎপর্য রয়েছে। কিন্তু একটা সাধারণ ভাষা থাকা প্রয়োজন, যা বিশ্ববাসীর কাছে ভারতকে পরিচিত করবে। ...যদি কোনও ভাষা দেশকে একসূত্রে বাঁধতে পারে, তাহলে সেটা হল হিন্দি। হিন্দিই দেশের সবচেয়ে বেশি কথিত ভাষা।’

কিন্তু কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই মন্তব্যের পরই দেশ জুড়ে হইচই শুরু হয়। কেন্দ্র হিন্দিকে চাপিয়ে দিতে চাইছে বলে অভিযোগ ওঠে। আজ বুধবারও এর বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন দক্ষিণী সুপারস্টার রজনীকান্ত। তার আগে কমল হাসান থেকে শুরু করে পিনারাই বিজয়ন, কুমারস্বামী থেকে শুরু করে দক্ষিণের রাজ্যগুলির রাজনৈতিক দলের তরফে হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার বিরুদ্ধে বক্তব্য উঠে আসে। এমনকি, বিজেপিরই মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা পর্যন্ত বিরোধিতা করেন।

এই পরিস্থিতিতে বুধবার দিল্লিতে একটি আলোচনা চক্রে যোগ দেন অমিত শাহ। সেখানেও স্বাভাবিক ভাবেই আলোচনার কেন্দ্রে ছিল ‘হিন্দি’। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ দিন বলেন, ‘‘আমি কখনও আঞ্চলিক ভাষাগুলির উপর হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার কথা বলিনি। বরং মাতৃভাষার সঙ্গে দ্বিতীয় ভাষা হিসেবে হিন্দি শেখার কথা বলেছিলাম।’’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ দিন আরও বলেন, ‘‘আমি নিজেও অ-হিন্দি রাজ্য থেকে এসেছি। কেউ যদি এটা নিয়ে রাজনীতি করতে চান, সেটা তাঁদের পছন্দ।’’ অর্থাৎ তাঁর মন্তব্য নিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন অমিত শাহ।

 

https://www.anandabazar.com/topic/amit-shah

আরও পড়ুন: কোল ব্লকের উদ্বোধনে মোদীকে আমন্ত্রণ জানালেন মমতা, কাল দেখা করতে চান অমিতের সঙ্গে

আরও পড়ুন: হামাগুড়ি দিয়ে ভারতে ঢোকার চেষ্টা পাক জঙ্গিদের, সেনার গ্রেনেডে ছিন্নভিন্ন, দেখুন ভিডিয়ো