আপনার ফোনের তথ্য যতটা সুরক্ষিত ভাবেন ততটা কিন্তু নয়! ইন্টারন্যাশনাল কম্পিউটার সায়েন্স ইনস্টিটিউট (আইসিএসআই)-এর সাম্প্রতিক এক গবেষণা কিন্তু তেমনটাই বলছে। ওই সমীক্ষা বলছে, অন্তত ১ হাজার ৩২৫টি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে, যারা আপনার ফোন থেকে গোপনে তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে। এমনকি অ্যাপটি ইনস্টল করার সময় আপনি যে তথ্যগুলির নাগাল পাওয়ার অনুমতি দিচ্ছেন না, সেই তথ্যেও তারা হাত দিচ্ছে! ওই গবেষণায় দেখা গিয়েছে, গুগল প্লে স্টোরের কিছু অ্যাপ আপনার ফোনের ‘লোকেশন’ এবং ‘হিস্ট্রি’ অ্যাক্সেস করছে। আপনার অনুমতির তোয়াক্কা না করেই। যাঁরা দীর্ঘক্ষণ স্মার্টফোনে সময় কাটান, তাঁদের ওপরই মূলত এই গবেষণা চালানো হয়।

তথ্য হাতানোর এই কাজ হয় মূলত দু’ভাবে। হয় অ্যান্ড্রয়েড এবং থার্ড-পার্টি এসডিকে (সফ্টওয়ার ডেভলপমেন্ট কিট)-র দুর্বলতার ফাঁক গলে, নয়তো খুব চতুর ভাবে বা ঘুরিয়ে অন্য একটি লুকানো চ্যানেল দিয়ে তথ্য হাতানো হচ্ছে। আপনি হয়তো ভাবছেন, ওই অ্যাপকে অনুমতি দেননি। কিন্তু ঘুর পথে সেই অ্যাপই আপনার তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে।

গুগল, অ্যাপলের মতো টেক জায়েন্টরা ব্যক্তিগত তথ্য নিরাপত্তার বিষয়ে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে। যাতে অনুমতি ছাড়া কোনও অ্যাপ কোনও রকমের তথ্য নিতে না পারে। গুগল তাদের নতুন অ্যান্ড্রয়েড ভার্সান ‘কিউ’-তে ব্যক্তিগত তথ্য চুরি আটকাতে কিছু কার্যকরী ব্যবস্থা নিয়েছে বলে সংস্থা সূত্রে খবর।

আরও পড়ন : হাতে-মুখে বন্দুক নিয়ে নাচছেন বিজেপি বিধায়ক! সঙ্গে অশালীন কথা

আরও পড়ন : কাঁকড়ার কারণে বাঁধ ভেঙেছে, বলায় মন্ত্রীর ঘরে কাঁকড়া ছেড়ে প্রতিবাদ