আলু নয় চাউমিনের পুরেই চায়ের সঙ্গে জমে যাবে চাইনিজ সিঙাড়া!

নিজস্ব প্রতিবেদন
আলু নয় চাউমিনের পুরেই চায়ের সঙ্গে জমে যাবে চাইনিজ সিঙাড়া!

গরম গরম সিঙাড়া আর চা! আহা বিকেলের বৈঠকী আড্ডা জমজমাট। হামেশাই আমরা বাজার থেকে কিনে আনা সিঙাড়া কিংবা আলুর চপ দিয়ে বিকেলের টিফিনটা সেরে থাকি। তবে বাজারের সেই সিঙাড়া খেলেই গ্যাস, অম্বল লেগেই থাকে। অথচ আড্ডার সঙ্গে সিঙাড়া না থাকলে কেমন যেন জমে না সেই আড্ডা।

ঘরে অনেকেই সিঙাড়া তৈরি করেন বটে, তবে সেই সিঙাড়া ঠিক ‘পারফেক্ট’ হয় না। অর্থাৎ দোকানের মতো হয় না। কারও সিঙাড়ার  উপরের কোটিংটা মুচমুচে হয় না, কারও আবার আকারটা ঠিক আসে না। এখন বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন এই সিঙাড়া। তবে সঙ্গে থাকুক একটা মজাদার ট্যুইস্ট।

সিঙাড়ায় এক কামড় দিলেই যদি ভিতর থেকে বেরিয়ে আসে আলুর পরিবর্তে মশলাদার চাউমিন? ভাবছেন ব্যাপারটা কী হল? হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন এই সিঙাড়ায় পাবেন ‘চাইনিজ ট্যুইস্ট’।  আপনার বাচ্চারা সিঙাড়া দেখলেই দৌড়ে পালায়? এই চাইনিজ সিঙাড়া বানিয়ে চমকে দিন তাদের। দেখবেন পাতে পড়লেই একেবারে চেটেপুটে সাফ! রইল রেসিপি।  

আরও পড়ুন: মালাইকারি কিন্তু মাংসের, এই পদ না খেলে ঠকবেন

গ্রাফিক: তিয়াসা দাস

আরও পড়ুন: রেস্তরাঁ স্টাইল সেজুয়ান চিকেন বানিয়ে ফেলুন বাড়িতেই

প্রণালী:

একটি পাত্রে ময়দায় তেল,  নুন আর বেকিং সোডা দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিয়ে তাতে আন্দাজমতো জল দিয়ে একটা ডো বানিয়ে রাখুন। এরপর সাদা কাপড় দিয়ে ডো টি ঢেকে রাখুন এক ঘণ্টার জন্য। এ বার একটি প্যানে তেল গরম করে  তাতে রসুন, কাঁচালঙ্কা কুচি, পেঁয়াজ কুচি হালকা করে ভেজে নিন। এরপর কেটে রাখা সব্জি আর চিকেন যোগ করুন। ভাজা ভাজা হয়ে এলে একে একে সব সস্ আর ভিনিগার দিয়ে ভাল করে নাড়াচাড়া করে নিন। প্রয়োজন মতো নুন আর গোলমরিচ গুঁড়ো  মিশিয়ে নিন। এরপর আগে থেকে সেদ্ধ করে রাখা চাউমিন দিয়ে ভাল করে মিলিয়ে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে সিঙ্গারার পুর। সিঙাড়া তৈরির জন্য ছোট লেচি বানিয়ে ডিমের আকারে বেলে নিন। এরপর মাঝখান দিয়ে কেটে দু’ভাগ করে নিন। একভাগ হাতে তুলে নিয়ে কোণ বা পানের খিলির মতো ভাঁজ করুন। ভিতরে চাউমিনের পুড় দিন। খোলা মুখে জল লাগিয়ে ভাল করে মুখটি বন্ধ করে নিন। নীচের ছুঁচোলো অংশ একটু মুড়ে নিন। এভাবে একে একে সিঙাড়া গড়ে থালায় সাজিয়ে রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে নিন তবে আঁচ যেন খুব বেশি না হয় সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখুন। এবার সিঙাড়াগুলি তেলে  ছেড়ে ১০ থেকে ১২ মিনিট অল্প আঁচে ভাজুন। হালকা বাদামি ও মুচমুচে হলে নামিয়ে নিন কড়াই থেকে। তেঁতুলের চাটনি কিংবা মেয়োনিজের সঙ্গে পরিবেশন করুন গরম গরম চাইনিজ সিঙাড়া।