বেগুন-মৌরলার মিলমিশে মাছে-ভাতে বাঙালির পাত সাফ হবে নিমেষে

নিজস্ব প্রতিবেদন
বেগুন-মৌরলার মিলমিশে মাছে-ভাতে বাঙালির পাত সাফ হবে নিমেষে

মাছপ্রিয় বাঙালির কাছে পাতে মাছ পড়া মানেই দুপুরের ভাত সাবাড়। বিশেষ করে ছোট মাছের মনপসন্দ নানা রেসিপি বাঙালিদের মন জয় করেছে সহজেই। দুপুরের পাত সাফ করতে তাই চুনোমাছের আদর কমায়নি বাঙালি।

বড় মাছের ভিড়ে ছোট মাছরা শুধু হারিয়ে যায়নি বাঙালির রসনা থেকে তাই-ই নয়, বরং নানা উপায়ে ছোট মাছের রান্নায় বাঙালি তার হাতযশ দেখিয়েছে। নানা বাঙালি খাবারের রেস্তোরাঁতেও আজকাল চুনোমাছের নানা পদ মানুষের মন কাড়ে। বিশেষ করে পুঁটি বা মৌরলার রান্নায়।

তবে এমন মাছ মানেই ঝাল-ঝোল বা অম্বল? তা কেন? বরং রান্না জানলে বিশেষ কিছু সব্জি দিয়ে এই ধরনের মাছ জমিয়ে দিতে পারে আপনার ডাইনিং টেবিল। যেমন, বেগুন-মৌরলার ঝাল। দেখে নিন সহজ এই রান্নার রেসিপি।

উপকরণ

মৌরলা

বেগুন (ডুমো ডুমো করে কাটা)

কালো জিরে

হলুদ

তেল

নুন: স্বাদমতো

কাঁচা লঙ্কা

টম্যাটো

আদা বাটা

রসুন বাটা

সরষে বাটা

তেঁতুলের টক

প্রণালী:  মৌরলা মাছ ভাল করে ধুয়ে ছাঁকা তেলে আধভাজা করে নিন। মড়মড়ে করে ভাজবেন না। এ বার মাছ তুলে ওই তেলেই কালো জিরে ও কাঁচা লঙ্কা ফোড়ন দিন। আদা বাটা ও রসুন বাটা যোগ করুন। অল্প কষেই ডুমো ডুমো করে কেটে রাখা বেগুন মেশান তাতে। বেগুন নরম সব্জি, খোলা থেকে বেরিয়ে আসতে পারে, তাই খুন্তির আগা দিয়ে অল্প অল্প করে নাড়ুন। এ বার তাতে সরষে বাটা দিন। এর পর এতে টম্যাটো যোগ করুন। হলুদ ও নুন দিন। আরেকটু কষে অল্প জল দিয়ে চাপা দিয়ে দিন। মাখো মাখো হয়ে এলে মৌরলা মাছ যোগ করুন।নামানোর আগে তেঁতুলের টক মেশান। পরিবেশন করুন গরম ভাতের সঙ্গে।