এ বার বাড়ির হেঁশেলেই বানিয়ে ফেলুন ছানার কোফতা কালিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদন
এ বার বাড়ির হেঁশেলেই বানিয়ে ফেলুন ছানার কোফতা কালিয়া

বাঙালির হেঁশেল থেকে প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছে বাংলার সনাতনী রান্নাগুলি। তার জন্য অবশ্য কর্মব্যস্ত জীবনে সময়ের অভাব একটা বড় কারণ। কেবল চিনা, মোগলাই খাবারই নয়, বাঙালি খাবারের জন্যও সে আজ রেস্তোরাঁমুখী।  অথচ সনাতনী রান্না মানেই অনেকটা সময় ব্যয় করতে হবে, এমন কিন্তু নয়। 
 
বাড়িতে টুকিটাকি আমিষ পদগুলি রান্না করা হলেও নিরামিষে কী বানাবেন তা ভেবেই নাজেহাল? ‘ফাস্ট কুকিং’-এর এই যুগে বাঙালি ভুলে যেতে বসেছে কচুর লতি, মোচার পাতুরি, বেগুন বালুচরির মতো পদগুলি। এমনই এক পদ হল ‘ছানার কোফতা কালিয়া’। সঠিক কায়দায় বানাতে পারলে আমিষ পদগুলিকেও সমান টক্কর দেবে ছানার এই পদ। 
 
দুধ জাল দিতে গিয়ে অনেক সময়ই দুধে ছানা কেটে যায়। সেই ছানাই নষ্ট না করে বানিয়ে ফেলতে পারেন এই লোভনীয় পদ। কী ভাবে বানাবেন এই সনাতনী পদ। রইল হদিশ। 
 
 

 
 গ্রাফিক: তিয়াসা দাস
 
­­­­
প্রণালী:
 
প্রথমে একটি পাত্রে ছানা নিয়ে তাতে এক এক করে আদা বাটা, কাঁচালঙ্কা বাটা, নুন, চিনি, ময়দা আর ১ চামচ ঘি মিশিয়ে ভাল করে মেখে একটা মণ্ড তৈরি করে নিন। এবার সেই মণ্ড থেকে ছোট ছোট গোল্লা  বানিয়ে হাতের তালুতে রেখে কোফতার আকারে গড়ে নিন। এবার কোফতাগুলি ফ্রিজে রেখে দিন ১৫ থেকে ২০ মিনিটের জন্য। এ বার একটি মিক্সারে কাজু, চারমগজ আর টক দই দিয়ে একটা ফাইন পেস্ট বানিয়ে রাখুন। ননস্টিক প্যানে তেল ও ঘি মিশিয়ে গরম করে নিন। এবার ফ্রিজ থেকে কোফতাগুলি বার করে শ্যালো ফ্রাই করে নিন। আবার কড়াইতে আবার খানিকটা তেল গরম করে দারুচিনি,ছোট এলাচ,লবঙ্গ,গোটা জিরে,তেজপাতা একসঙ্গে ফোড়ন দিন। হালকা নাড়াচাড়া করে আদা বাটা ও টোম্যাটো বাটা যোগ করুন। আদার কাঁচা গন্ধ চলে গেলে সমস্ত গুঁড়ো মশলা গিয়ে ভাল করে কষিয়ে নিন। মশলা থেকে তেল ছেড়ে এলে আগে থেকে বানিয়ে রাখা কাজু-চারমগজ-দই এর পেস্টটি দিয়ে আরও মিনিট দু'য়েক কষিয়ে নিন। এ বার সামান্য জল দিয়ে মশলার সঙ্গে ভাল করে মিশিয়ে নিন। গ্রেভি হালকা ফুটে এলে ভেজে রাখা কোফতাগুলি যোগ করুন। কিছুক্ষণ ঢেকে রাখুন। এ বার ঢাকা খুলে এক চামচ ঘি আর গরম মশলা দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। গরম ভাতের সঙ্গে দারুণ জমবে ছানার কোফতা কালিয়ার এই রেসিপি!