একই দিনে দু’বার আউট হলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ দু’প্লেসি সোমবার সকালে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ইনিংসে বোল্ড হলেন উমেশ যাদবের অসাধারণ ডেলিভারিতে। চার নম্বরে নেমে করলেন মাত্র ১। ফিরলেন নবম বলে। আর দুপুরে ফলো অনের পরে দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় ইনিংসে মহম্মদ শামির বলে এলবিডব্লিউ হলেন তিনি। এ বার খেললেন ১০ বল। ফিরলেন চার রানে। রিভিউ নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু লাভ হয়নি।

ভারতের বিরুদ্ধে চলতি তিন টেস্টের সিরিজে একেবারেই মেজাজে দেখায়নি প্রোটিয়া ক্যাপ্টেনকে। এই সিরিজের ছয় ইনিংসে করেছেন মোটে ১৪২ রান। গড় ২৩.৬৬। পঞ্চাশের গণ্ডি পেরিয়েছেন দু’বার। কিন্তু কোনও বারই তা তিন অঙ্কের রানে টেনে নিয়ে যেতে পারেননি। দলের বিপদের সময় কখনওই চওড়া হয়ে ওঠেনি তাঁর ব্যাট। নির্ভরতা দিতে পারেননি। সোমবারই তা ঘটল দু’বার।

ঘটনা হল, ২০১৫ সালের ভারত সফরেও দু’প্লেসিকে বিপর্যস্ত দেখিয়েছিল বাইশ গজে। সেই বারে চার টেস্টের সিরিজে আরও জঘন্য ফর্মে ছিলেন। সাত ইনিংসে ৮.৫৭ গড়ে করেছিলেন মোটে ৬০ রান! যা তাঁর মতো ব্যাটসম্যানের কাছ থেকে অকল্পনীয়। চলতি টেস্ট সিরিজেও রয়েছেন তেমনই ফর্মে। শুধু ব্যাট হাতেই যে খারাপ সময় চলছে, এমন নয়। উপমহাদেশের মাটিতে টানা নয় টেস্টে টস হেরেছেন তিনি। এই সিরিজের প্রথম দুই টেস্টেও হেরেছিলেন টস। রাঁচী টেস্টে তাই টস করার সময় প্রক্সি হিসেবে বাভুমাকে পাঠিয়েছিলেন। কিন্তু বাভুমাও টস জেতার ভাগ্য আমদানি করতে পারেননি। সিরিজে তৃতীয় বার টস জিতেছিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি। 

আরও পড়ুন: টেস্টে অনন্য রেকর্ড! এ বার ব্র্যাডম্যানকেও পিছনে ফেললেন রোহিত​

আরও পড়ুন: রাঁচীতেও ফলো অনের ভ্রুকুটি, জাডেজা-নাদিমের ঘূর্ণিতে বিধ্বস্ত দক্ষিণ আফ্রিকা