সই বিতর্কে জড়িয়ে পড়া জবি জাস্টিনকে খেলতে হবে ইস্টবেঙ্গলেই, তদন্তের পর ফেডারেশনকে জানিয়ে দিল আইএফএ। শনিবার বিকেলে প্লেয়ার্স স্ট্যাটাস কমিটির সভায় এটিকে এবং ইস্টবেঙ্গলে জমা দেওয়া জবির কাগজপত্র নিয়ে আলোচনার পর সিদ্ধান্ত হয়, কেরলের স্ট্রাইকার যা দাবি করেছেন সেটা ঠিক নয়। আইএফএ সচিব উৎপল গঙ্গোপাধ্যায় বললেন, ‘‘জবি বলেছিল ইস্টবেঙ্গলে দেওয়া চিঠির সই ওর নয়। ওটা ফটোকপি করে বসানো হয়েছে। কিন্তু তদন্তের পর দেখা যায় ওর দাবি ঠিক নয়। আমাদের মত, জবিকে ইস্টবেঙ্গলে খেলতে দেওয়া উচিত। কমিটির সিদ্ধান্ত ফেডারেশনকে জানিয়ে দিয়েছি। এ বার যা করার ওরা করুক।’’

‘সামনের দু’ মরসুম আপনাদের দলে খেলব,’ ইস্টবেঙ্গলকে এই চিঠি দিয়েও এটিকেতে সই করেছিলেন জবি। এটিকের পক্ষ থেকে সরকারিভাবে সেটা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েও দেওয়া হয়। যা দেখে, ইস্টবেঙ্গল প্রতিবাদপত্র জমা দেয় সর্বভারতীয় ফেডারেশন এবং আইএফএ-তে। দিল্লির ফুটবল হাউস থেকে তদন্ত করে দেখার জন্য বলা হয়  আইএফএ-কে। প্রায় দু’মাস ধরে তদন্ত চলে। এটিকে, ইস্টবেঙ্গল এবং জবির সঙ্গে বেশ কয়েকবার কথা বলেন প্লেয়ার্স স্ট্যাটাস কমিটির সদস্যরা। 

ইস্টবেঙ্গল যে চিঠি জমা দিয়েছে, সেই সই তাঁর নয়, জবি এটা জানানোর পর আইএফএ সিদ্ধান্ত নেয়, ওই চিঠিটি পাঠানো হবে হস্তলেখা বিশেষজ্ঞদের কাছে। সেই পরীক্ষার রিপোর্ট মুখবন্ধ খামে আসে বৃহস্পতিবার। এ দিনের সভায় সেটি খোলা হয়। দেখা যায় সই জবিরই। ইস্টবেঙ্গলকে জবি চিঠি দিয়েছিলেন ৪ মার্চ। আর এটিকের পক্ষ থেকে চুক্তির যে কাগজটি জমা পড়েছে সেটি ১ মার্চের। আইএফএ সচিব বললেন, ‘‘বোঝাই যাচ্ছে এটিকের সঙ্গে চুক্তির তারিখ পরে বসানো হয়েছে। যদি জবি ১ মার্চ সই করতেন, তা হলে নিশ্চয়ই ৪ তারিখ ইস্টবেঙ্গলকে খেলতে চেয়ে চিঠি দিতেন না।’’

কিন্তু আইএফএ-র নেওয়া সিদ্ধান্ত কী ফেডারেশন সিলমোহর দেবে? জবিকে কি খেলবেন ইস্টবেঙ্গলে? সেই প্রশ্নই ঘুরছে লাল-হলুদের অন্দরে। ইস্টবেঙ্গলের অশঙ্কা,  আই লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা জবি যে-হেতু আইএসএলের ক্লাব এটিকেতে সই করেছেন, তাই স্পনসররা এতে হস্তক্ষেপ করবেনই। ফেডারেশনকে যে সংস্থা স্পনসর করে তারাই আইএসএলের সংগঠক। ফলে চাপের মুখে ফেডারেশন কি করে সেটাই দেখার। 

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।