• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

স্মরণীয় আইপিএল চান রাহুল, রাহানের জায়গা নিয়েই ধোঁয়াশা

KL Rahul-Ajinkya Rahane
রাহুল (বাঁ-দিকে)-রাহানে। —ফাইল চিত্র।

কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে তাঁদের অভিযান শুরু হচ্ছে আজ। তার আগে দিল্লি ক্যাপিটালসের হেড কোচ রিকি পন্টিং নিশ্চিত নন, প্রথম একাদশে অজিঙ্ক রাহানের জায়গা হবে কি না। পন্টিং বলে দিচ্ছেন, ‘‘আমাদের ব্যাটিং অর্ডার সত্যিই খুব শক্তিশালী। মিডল অর্ডারে জায়গা নেওয়ার জন্য প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বিতাও রয়েছে। রাহানে আসায় টিমে গভীরতা যোগ হয়েছে।’’ তেমনই তিনি অশ্বিনের নামও করেন যে, ভারতীয় অফস্পিনার আসায় দলে ভারসাম্য যোগ হয়েছে। অশ্বিন তাঁর প্রাক্তন দল কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে নামবেন। আর রাজস্থান রয়্যালস থেকে এ বছরেই দিল্লিতে যোগ দিয়েছেন রাহানে। 

তবে দল পাল্টে তাঁর ভাগ্য ভাল হল না খারাপ, তা দেখার। কারণ, রাহানের আগমনকে স্বাগত জানালেও পন্টিং নিশ্চিত করে বলতে পারেননি, প্রথম একাদশে রাহানের জায়গা হচ্ছেই। বরং প্রাক-ম্যাচ ভিডিয়ো সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘‘শিখরের খুব ভাল মরসুম গিয়েছে গত বার। পৃথ্বী শ খুব ভাল ট্রেনিং করছে। শ্রেয়র ওর সেরা ১২ মাস কাটিয়ে এসেছে ভারতের জার্সিতে। আমাদের পন্থ আছে, শিমরন হেটমায়ার আছে, অ্যালেক্স ক্যারি আছে।’’ যে ক’জন ব্যাটসম্যানের নাম তিনি নিয়েছেন, তার মধ্যে ছিলেন না রাহানে। 

তবে গত এক বছর ধরে তর্ক-বিতর্কের মধ্যে থাকা ঋষভ পন্থের পাশে দাঁড়িয়েছেন পন্টিং। ভারতীয় দলে প্রতিভাবান তরুণ হিসেবে প্রবেশ করেও নিজের জায়গা হারিয়েছেন পন্থ। কিন্তু পন্টিং বলছেন, দিল্লির শিবিরে তিনি যে পন্থকে দেখতে পেয়েছেন, তাঁর উপরে পূর্ণ আস্থা রয়েছে। ‘‘গত এক সপ্তাহে দারুণ ভাবে ছন্দ পেয়েছে পন্থ। আমি ওকে গত বারের আইপিএলের মেজাজেই দেখতে পাব বলে আশা করছি,’’ বলেছেন ঋষভদের হেড কোচ।

পন্টিংয়ের উল্টো দিকে ভারতীয় কিংবদন্তি অনিল কুম্বলের কিংস ইলেভেন পঞ্জাব। বিশেষজ্ঞদের মতে, লড়াইটা মূলত পঞ্জাবের আগুনে ব্যাটিং বনাম দিল্লির স্পিন শিল্পীদের। কিংস ইলেভেনের অধিনায়ক কে এল রাহুল বলছেন, ‘‘আমরা ভাল ক্রিকেট খেলার লক্ষ্যে নামছি। এই দলটা দারুণ। আমরা আত্মবিশ্বাসী, অনুপ্রাণিত। স্মরণীয় করে রাখতে চাই এই আইপিএল।’’ পন্থের হারানো জায়গাই নিয়েছেন রাহুল। তাই রবিবার কোথাও একটা এই দু’জনের দ্বৈরথও থাকছে। তবে রাহুল মানছেন, এ বারের আইপিএল অন্য এক অভিজ্ঞতা হতে যাচ্ছে। ‘‘ভক্তদের জন্য নিজেদের সেরাটা দিতে চাই আমরা সকলে,’’ অঙ্গীকার তাঁর।  এ বারের আইপিএলের ৬০টি ম্যাচের ২৪-টি হবে দুবাইয়ে। পন্টিংয়ের আবার ধারণা, টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় ভাগে পিচ অনেকটাই মন্থর হয়ে যাবে। সেই সময়টাতে স্পিনারেরা অনেক বেশি কার্যকরী হয়ে উঠবেন। ‘‘এ বারের টুর্নামেন্ট যত এগোবে, বয়স যত বাড়বে, পরিস্থিতিও ততই পাল্টে যেতে পারে। দুবাইয়ে যেমন ২৪টি ম্যাচ হবে চারটি পিচে। এখানকার উইকেটে দেখলাম সবুজ ঘাসের আস্তরণ একটা রয়েছে। খেলা শুরুর আগে নিশ্চয়ই কিছুটা ঘাস কাটা হবে। মনে হয় না, আইপিএলের শুরু থেকেই স্পিনারেরা পিচ থেকে ফায়দা তুলতে পারবে। কিন্তু পরের দিকে স্পিনাররাই ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেবে,’’  পূর্বাভাস পন্টিংয়ের। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন