• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সাউদাম্পটনে মহড়া স্টোকসদের

করোনা পরীক্ষায় পাশ পাক দল, যাচ্ছেন হাফিজরাও

England
মহড়া: বেন স্টোকসের নেতৃত্বে প্রস্তুতি চলছে ইংল্যান্ডের। গেটি ইমেজেস

ইংল্যান্ডে আসার আগে তাদের একের পর এক ক্রিকেটারের করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ায় বিতর্কের মুখে পড়েছিল পাকিস্তান। মহম্মদ হাফিজ-সহ দশজনকে দেশে রেখেই ইংল্যান্ডে আসতে হয়েছে তাদের। ইংল্যান্ডে পা দেওয়ার পরে অবশ্য কিছুটা স্বস্তি মিলেছে আজহার আলি-বাবর আজমদের। দলের সঙ্গে যাঁরা ইংল্যান্ডে এসেছেন, তাঁদের শরীরে কোনও রকম করোনাভাইরাসের চিহ্ন পাওয়া যায়নি বলে জানা গিয়েছে। 

মঙ্গলবার ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের তরফে জারি করা এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইংল্যান্ডে পা দেওয়ার পরে পাকিস্তানের ২০ জন ক্রিকেটার এবং ১১ জন সাপোর্ট স্টাফের করোনা পরীক্ষা করা হয়। সেই পরীক্ষার রিপোর্ট সবারই ‘নেগেটিভ’ এসেছে। পাশাপাশি ইসিবি-র তরফে আরও জানানো হয়েছে, ইংল্যান্ডের ক্রিকেটার এবং তাদের ম্যানেজমেন্ট গ্রুপের সবার করোনা পরীক্ষার ফল ‘নেগেটিভ’ এসেছে। ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের এবং সাপোর্ট স্টাফের এই নিয়ে সব মিলিয়ে তিন বার করোনা পরীক্ষা করা হল।

শুধু বিদেশ থেকেই নয়, দেশ থেকেও কিছুটা স্বস্তির খবর মিলেছে পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য। এ দিন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেশে থেকে যাওয়া দশ জনের মধ্যে ছ’জনের পরপর দু’বার করোনা পরীক্ষার ফল ‘নেগেটিভ’ এসেছে। যার ফলে ওই ছ’জনের ইংল্যান্ড যাওয়ায় আর কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু বাকি চার জনের ফল ‘পজ়িটিভ’ আসায়, তাঁদের দেশেই থেকে যেতে হচ্ছে। 

যাঁদের পরপর দু’বার করোনা পরীক্ষার ফল ‘নেগেটিভ’ এসেছে, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন মহম্মদ হাফিজও। পাকিস্তানি অলরাউন্ডারের করোনা পরীক্ষা করা নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। পিসিবি-র প্রথম পরীক্ষায় হাফিজের ফল ‘পজ়িটিভ’ আসে। তার পরে নিজের উদ্যোগে ব্যক্তিগত ভাবে পরীক্ষা করান হাফিজ। যার ফল ‘নেগেটিভ’ আসে এবং তিনি তা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়ে দেন। যা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে পাক বোর্ড। যে ছ’জনের নাম করোনামুক্ত তালিকায় আছে, তাতে হাফিজ ছাড়া আরও আছেন, ওয়াহাব রিয়াজ, মহম্মদ হাসনাইন, শাদাব খান, মহম্মদ রিজওয়ান এবং ফখর জামান। যে চার জনের ফল আবার ‘পজ়িটিভ’ এসেছে, তাঁরা হলেন ইমরান খান, কাশিফ ভাট্টি, হায়দার আলি এবং হ্যারিস রউফ। এই ক্রিকেটারদের পরপর দুটো পরীক্ষার ফল ‘নেগেটিভ’ না এলে  এঁরা এখন ইংল্যান্ড সফরে যেতে পারবেন না। 

অগস্টের শুরু থেকে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিনটি টেস্ট এবং তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে পাকিস্তান। যার নির্দিষ্ট তারিখ এখনও ঘোষণা করা হয়নি। রবিবার রাতে ইংল্যান্ডে এসে পৌঁছয় পাকিস্তান ক্রিকেট দল। পাক ক্রিকেটাররা এখন বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের নিভৃতবাসে রয়েছেন। তার পরে তাঁরা প্র্যাক্টিস ম্যাচ খেলতে নামবেন। হ্যাম্পশায়ারে সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে অনুশীলন করছে ৩০ সদস্যের ইংল্যান্ড দল। ৮ জুলাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট খেলতে নামবে ইংল্যান্ড।      

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন