ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম দু’টি টি টোয়েন্টি ম্যাচে ব্যর্থ হয়েছিলেন ঋষভ পন্থ। তৃতীয় টি টোয়েন্টিতে ভারতের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ধরা দিলেন অন্য মূর্তিতে। গায়ানায় অনুষ্ঠিত তৃতীয় টি টোয়েন্টি ম্যাচে পন্থ খেললেন ৪২ বলে অপরাজিত ৬৫ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংস। এই ইনিংস খেলার পথে মহেন্দ্র সিংহ ধোনির রেকর্ড ভাঙলেন পন্থ।

২০১৭ সালে বেঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠিত ভারত-ইংল্যান্ড ম্যাচে ধোনি ৫৬ রান করেছিলেন। সেঞ্চুরিয়নে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধেও ধোনি করেছিলেন ৫২। মঙ্গলবার পন্থ ছাপিয়ে পূর্বসূরিকে। প্রথম ভারতীয় উইকেটরক্ষক হিসাবে টি টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ রান করলেন তিনি। তৃতীয় টি টোয়েন্টি ম্যাচে বিরাট কোহালিকে সঙ্গে নিয়ে পন্থ ১০৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। এই দু’ জনের জন্যই ভারত সহজেই ম্যাচ জিতে নেয়।

ফ্লোরিডায় অনুষ্ঠিত প্রথম টি টোয়েন্টিতে পন্থ খাতা খুলতে পারেননি। দ্বিতীয় টি টোয়েন্টি ম্যাচে পন্থ করেন মাত্র ৪। তাঁর উইকেট ছুড়ে দেওয়ার ধরন দেখে সাংবাদিক বৈঠকে নিয়ম করে কোহালির দিকে উড়ে আসত পন্থকে নিয়ে তেতো প্রশ্ন। বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে একই ভাবে উইকেট ছুড়ে দিয়েছিলেন তিনি।

ভুল শটে পন্থ আউট হওয়ার পরে সাজ ঘর থেকে বেরিয়ে এসে হেড কোচ রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে উত্তেজিত ভাবে কথা বলতে দেখা যায় কোহালিকে। ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে তৃতীয় টি টোয়েন্টি ম্যাচে অবশ্য পন্থ স্বমহিমায় ধরা দেন। উল্টো দিকে থেকে কোহালি পরিচালনা করেন পন্থকে। পন্থের সঙ্গে ক্রমাগত কথা বলতে দেখা যায় কোহালিকে। পন্থের ইনিংসে সাজানো ছিল চারটি ছক্কা ও চারটি বাউন্ডারি। কোহালি করেন ৫৯ রান। পন্থের ব্যাটিং দেখে খুশি ভারত অধিনায়কও। তিনি বলেন, ‘‘প্রথম দুটো টি টোয়েন্টিতে রান না পাওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছিল পন্থ। তৃতীয় ম্যাচে পন্থ নিজেকে প্রয়োগ করে। যখন দরকার পড়েছে ঠিক তখনই বড় শট খেলেছে।’’