• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

লর্ডসের মতোই রাজকীয় শুরু, সৌরভ বলছেন এটাই তো কাজ

BCCI
সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র

ভারতীয় ক্রিকেটে ঐতিহাসিক গোলাপি বলে দিনরাতের টেস্টের সূচনা হচ্ছে ইডেন থেকেই। বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়ে দিলেন, টেস্ট ম্যাচ থেকে মুখ ফিরিয়ে নেওয়া জনতাকে আবার মাঠে ফেরাতে হলে এটাই একমাত্র পথ।

আগামী ২২ নভেম্বর ভারত বনাম বাংলাদেশের দ্বিতীয় টেস্ট হবে দিনরাতের। মঙ্গলবার সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সৌরভ জানিয়েছেন, খুব কম সময়ের মধ্যে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড যে ভাবে দিনরাতের টেস্ট খেলার বিষয়ে সম্মতি দিয়েছে, তাতে তিনি আনন্দিত। তিনি বলেছেন, ‘‘এটাই আমার কাজ। সেই কারণেই এই দায়িত্বে রয়েছি। আমিও দীর্ঘদিন ক্রিকেট খেলেছি এবং সেই অভিজ্ঞতা থেকে মনে হয়েছে, যে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য সাধারণ জ্ঞান থাকা খুবই প্রয়োজনীয়।’’ যোগ করেছেন, ‘‘টেস্ট ক্রিকেটকে চাঙ্গা করে তুলতে এটাই সেরা পদক্ষেপ। আমি আশাবাদী, এর পরে টেস্ট ম্যাচ দেখতে আবার দর্শকরা আসবেন।’’

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সদ্য সমাপ্ত টেস্ট সিরিজে দেখা গিয়েছিল, মাঠে দর্শক অনেক কম হয়েছে। বোর্ড প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরেই সৌরভ জানিয়ে দিয়েছিলেন, টেস্টে মাঠে দর্শক আনা তাঁর অন্যতম লক্ষ্য। যে কারণে দিনরাতের টেস্ট আয়োজন করতে এতটা আগ্রহী হয়ে উঠেছিলেন তিনি। সৌরভ বলেছেন, ‘‘টেস্ট ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা ফেরাতে এ ধরনের ধাক্কার প্রয়োজন রয়েছে। আমি, বোর্ডের সচিব জয় শাহ এবং আমাদের পুরো টিম এই ব্যাপারটা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল ছিলাম। ধন্যবাদ দেব বিরাটকে। ও আমার প্রস্তাব শুনেই সম্মতি দিয়েছিল। এবং অবশ্যই কৃতজ্ঞতা জানাব বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে। এত অল্প দিনের মধ্যে ওরা যে ভাবে দিনরাতের টেস্ট খেলার বিষয়ে সম্মতি দিয়েছে, তা অসাধারণ। আমি মনে করি, টেস্টের অগ্রগতির জন্য এটাই প্রয়োজনীয়।’’

শেষ পর্যন্ত বাংলাদশের বিরুদ্ধে ইডেনে দিনরাতের টেস্ট হবে কি না, তা নিয়ে গত কয়েক দিন নানা ধরনের জল্পনা চলছিল। বিশেষ করে, আচমকা ক্রিকেটারদের  বিদ্রোহ এবং শাকিব আল হাসানকে নিয়ে বিতর্কে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে অস্থিরতা তৈরি হয়েছিল। সৌরভ অবশ্য জানিয়েছেন, তিনি শুরু থেকে আশাবাদী ছিলেন যে, দিনরাতের টেস্ট হবে। তিনি বলেছেন, ‘‘এ ভাবেই তো পরিস্থিতি পাল্টে যায়। আমি কিন্তু মনে করি, উপমহাদেশীয় মানচিত্রে টেস্ট ক্রিকেটের নতুন একটা যাত্রা শুরু হতে চলেছে। আমাদের উদ্দেশ্য তো ভাল ছিল। ফলে সমস্যা যে হবে না, তা নিয়েও নিশ্চিত ছিলাম। উৎকণ্ঠার কারণ নেই। সমস্ত কিছুই সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন হবে।’’

সৌরভ যখন বোর্ডের টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন, তখন তিন বছর (২০১৬, ২০১৭, ২০১৮) দলীপ ট্রফির ম্যাচ হয়েছে দিনরাতে। কিন্তু সেই সময় যে বিষয় নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল তা হল, রাতে শিশির পড়ার বিষয়টি। সেই বিষয়টি আবারও সামনে চলে আসছে। সৌরভ বলেছেন, ‘‘আমি নিশ্চিত ভাবে বলতে পারি, শিশির বাধা হবে না।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘আমরা একটা রাস্তা বার করে ফেলব। ইডেনে তো দিনরাতের ওয়ান ডে ম্যাচও হয়েছে ওই সময়। শিশির নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য স্প্রে ব্যবহার করা হবে।’’ শাকিবকে ছাড়াই খেলতে আসছে বাংলাদেশ। তাঁকে ছাড়া কি গোলাপি বলের টেস্টে মানিয়ে নিতে পারবে দল? সৌরভ বলেন, ‘‘আমার মনে হয় না, এতে বাংলাদেশের সমস্যা হবে। ওদের দলে অনেক ভাল ক্রিকেটার আছে। ঠিক মানিয়ে নেবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন